অনলাইন শপিং,ফ্রিল্যান্সিং ও অন্যান্য কাজ করার জন্য এই ওয়েবসাইটে একটি একাউন্ট থাকতে হবে। একাউন্ট খোলা মানেই টাকা দিতে হবে এমন না। ফ্রিল্যান্সার অথবা বায়ার, এর যে কোন একটি চয়েজ করে একাউন্ট তৈরি করতে হবে।অথবা শপিং সেকশনের যে কোন প্রোডাক্টের এ্যাড টু কার্ট বাটনে ক্লিক করেও আপনি একাউন্ট তৈরি করতে পারবেন।সাইনআপ করুন এবং কাজ পোষ্ট করুন। ফ্রিল্যান্সারগণ কাজ খুজুন ও বিড করুন।একাউন্ট তৈরি হলে আপনি আপনার দেয়া ইউজার আইডি ও পাসওর্য়াড ব্যবহার করে সাইটে লগইন করতে পারবেন। You must have an account on this website for online shopping, freelancing and other activities. Opening an account does not mean that you have to pay. Freelancer or buyer, you have to create an account by choosing one of them. Or you can create an account by clicking on the add to cart button of any product in the shopping section.Sign up and post work. Freelancers find work and bid. Once the account is created, you can login to the site using your given user ID and password.

We have 69 guests and no members online

All Posts

4786 posts found

fatima
07 December 2021, 17:52

চট্টগ্রামে ফুটপাত দিয়ে যাওয়ার সময় নালায় পড়ে এবার শিশু নিখোঁজ

চট্টগ্রামে ফুটপাত দিয়ে যাওয়ার সময় নালায় পড়ে এবার শিশু নিখোঁজ
চট্টগ্রামে ফুটপাত দিয়ে হেঁটে যাওয়ার সময় নালায় পড়ে এবার এক শিশু নিখোঁজ হয়েছে। শিশুটির নাম মো. কমাল। গত ২৪ ঘণ্টায়ও তার অবস্থান শনাক্ত করা যায়নি। অবশ্য বিষয়টি ২৪ ঘণ্টা পর ফায়ার সার্ভিসকে জানানো হয়।
0 Share Comment
fatima
07 December 2021, 17:51

ফেসবুকের বিরুদ্ধে ১৫ হাজার কোটি ডলারের মামলা রোহিঙ্গাদের

ফেসবুকের বিরুদ্ধে ১৫ হাজার কোটি ডলারের মামলা রোহিঙ্গাদের
ফেসবুকের বিরুদ্ধে ১৫ হাজার কোটি ডলার ক্ষতিপূরণের মামলা দায়ের করেছেন যুক্তরাজ্য ও যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসরত বেশ কয়েকজন রোহিঙ্গা।


মামলায় দাবি করা হয়েছে ফেসবুক প্লাটফর্ম নিপীড়িত জনগোষ্ঠীটির বিরুদ্ধে সহিংসতা উস্কে দিয়েছে। বৌদ্ধ সংখ্যাগরিষ্ঠ মিয়ানমারে ২০১৭ সালে সেনা অভিযানের সময় প্রায় দশ হাজার রোহিঙ্গা মুসলিম নিহত হয় বলে ধারণা করা হয়ে থাকে।

যুক্তরাজ্যে কয়েকজন শরণার্থীর প্রতিনিধিত্ব করা ব্রিটিশ আইনি প্রতিষ্ঠান ফেসবুককে চিঠি দিয়ে অভিযোগের বিষয়ে অভিহিত করেছে। এতে অভিযোগ করা হয়েছে ফেসবুকের অ্যালগরিদম রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর বিরুদ্ধে ঘৃণাবাদী বক্তব্য ছড়াতে সহায়তা করেছে।

এছাড়া কোম্পানিটি রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে সহিংসতায় উস্কানি দেওয়া পোস্ট নামিয়ে ফেলতে কিংবা মুছে ফেলতে ব্যর্থ হয়েছে। আরও অভিযোগ করা হয়েছে দাতব্য প্রতিষ্ঠান ও সংবাদমাধ্যম সতর্ক করলেও সময় মতো ব্যবস্থা নিতে ব্যর্থ হয়েছে ফেসবুক।

যুক্তরাষ্ট্রের আইনজীবীরা সান ফ্রানসিসকোতে একটি অভিযোগে দায়ের করেছেন যেখানে বলা হয়েছে, ফেসবুক ‘দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার একটি ছোট দেশের বাজারে ভালোভাবে ঢুকবার জন্য রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর জীবন বলি দিতে পর্যন্ত প্রস্তুত ছিল’।

মিয়ানমারে দুই কোটির বেশি ফেসবুক ব্যবহারকারী রয়েছে। দেশটিতে অনেকের জন্যই এই সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমটি খবর পাওয়ার এবং দেয়ার প্রধান অথবা একমাত্র মাধ্যম।

২০১৮ সালে ফেসবুক স্বীকার করেছিল যে তারা সেখানে সহিংসতা ও বিদ্বেষ ছড়ানো ঠেকাতে যথেষ্ট উদ্যোগ নেয়নি।

এর আগে ফেসবুকের কমিশন করা একটি স্বাধীন প্রতিবেদনে বলা হয়েছিল, প্লাটফর্মটি সেখানে মানবাধিকার লঙ্ঘনের বিস্তার ঘটানোর ‘উপযোগী পরিবেশ’ তৈরি করেছিল।

ফেসবুকের প্যারেন্ট কোম্পানি মেটা তাৎক্ষণিকভাবে ওই অভিযোগ সম্পর্কে কোনও প্রতিক্রিয়া দেখায়নি। কোম্পানিটির বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়েছে, ঘৃণাপূর্ণ প্রচার এবং বিপজ্জনক অপতথ্য বছরের পর বছর ধরে চলতে দিয়েছে কোম্পানি।
0 Share Comment
Bakar
29 November 2021, 13:37

আঁটোসাঁটো জিন্স থেকে ট্রেঞ্চ কোট নিষিদ্ধ উত্তর কোরিয়ায়

আঁটোসাঁটো জিন্স থেকে ট্রেঞ্চ কোট নিষিদ্ধ উত্তর কোরিয়ায়
কিছুদিন পর-পরই নতুন নিয়ম ও নিয়ম বদলানোতে অভ্যস্থ উত্তর কোরিয়ার জনগণ। এবার পোশাক, স্টাইল নিয়েও নতুন নিয়ম জারি করলেন উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রপ্রধান কিম জং উন। সেখানে কেউ চামড়ার জ্যাকেট পরতে পারবেন না। এমনকী ইউরোপ, আমেরিকায় তৈরি নামী ব্র্যান্ডের পোশাকেও নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছে।

নতুন এই নিয়মের কারণ হিসেবে দেখানো হয়েছে, এসব পরা মানেই রাষ্ট্রপ্রধান কিমের স্টাইল অনুকরণ করা। যা ভাল চোখে দেখছেন না কিম। উত্তর কোরিয়ার নিয়ম-কানুন পৃথক। হাজার বাঁধাধরা নিয়মের মধ্যে দিন কাটাতে হয় উত্তর কোরিয়ার বাসিন্দাদের।

নিষেধের মধ্যে পড়ল আঁটোসাঁটো জিন্স, ছেঁড়া জিন্স। এটা নাকি সে দেশের সংস্কৃতির বিরোধী। এছাড়া নিজের ইচ্ছেমতো চুলের ছাঁট কিংবা হেয়ার কালার করতেও পারবেন না উত্তর কোরিয়ার জনগণ। এছাড়া নাকে ফুটো করাও নিষিদ্ধ এখানে। অবিবাহিত মেয়েদের ক্ষেত্রে এই নিষেধাজ্ঞার তালিকা আরও দীর্ঘ। বিয়ে না হলে লম্বা চুল রাখতে পারবেন না নারীরা। চুল কেটে ফেলতে হবে।

শোনা যায়, নিজের স্ত্রীর ক্ষেত্রে কিম এমনই কড়া। তার স্ত্রী নিজের পছন্দমতো পোশাক নির্বাচন কিংবা সাজগোজ করায় স্বাধীন নন। নিজের বাবা কিম জং ইলকে অনুকরণ করে বছর দুই ধরে মাও-স্টাইল জ্যাকেট পরছেন কিম জং উন। এখন সেই জ্যাকেটও নিষিদ্ধ জনসাধারণের জন্য। ফলে এখন উত্তর কোরিয়াবাসীর ব্যক্তিগত পছন্দ-অপছন্দও কিমের হাতে।

0 Share Comment
Bakar
29 November 2021, 13:35

আগামী বছর আসছে ‘ম্যাক-সমতুল্য’ এআর হেডসেট

আগামী বছর আসছে ‘ম্যাক-সমতুল্য’ এআর হেডসেট
মার্কিন প্রযুক্তি জায়ান্ট অ্যাপল ২০২২ সালে নতুন অগমেন্টেড রিয়ালিটি (এআর) হেডসেট উন্মুক্ত করবে-এমন গুঞ্জন শোনা যাচ্ছিল বেশ অনেক দিন থেকেই। এবার নতুন মাত্রা পেয়েছে সেই গুঞ্জন; খবর রটেছে ম্যাক কম্পিউটারের এম১ চিপের সমতুল্য কম্পিউটিং ক্ষমতা থাকবে ওই হেডসেটের।

বাজারের চলতি গুজবের রসদ সরবরাহ করছেন তাইওয়ানভিত্তিক প্রযুক্তি পণ্যের বাজার বিশ্লেষক মিং-চি কুও। অ্যাপল পণ্যের ক্ষেত্রে ‘বিশ্বের সবচেয়ে নির্ভরযোগ্য অ্যাপল বিশ্লেষক’ হিসাবেও পরিচিত তিনি। আর কুও’র গবেষণার নথি দেখে ম্যাকনিউমার ও ৯ টু ৫ম্যাক বলছে, ২০২২ সালের চতুর্থ প্রান্তিকে বাজারে আসবে অ্যাপলের নতুন এআর হেডসেট।

কুও’র গবেষণা নথি থেকে নতুন অ্যাপল পণ্যটির যন্ত্রাংশ নিয়েও অনেক তথ্য মিলেছে বলে জানিয়েছে প্রযুক্তিবিষয়ক সাইট ভার্জ। দুটি প্রসেসর থাকবে ডিভাইসটিতে। এর মধ্যে একটির কম্পিউটিং ক্ষমতা অ্যাপলের এম১ চিপের সমতুল্য হবে বলে জানিয়েছেন কুও।

দ্বিতীয় প্রসেসর চিপটি বিভিন্ন সেন্সর থেকে পাওয়া ইনপুট নিয়ে কাজ করবে। কুও বলেন, ডিভাইসে ‘চলমান ভিডিও সি-থ্রু এআর সেবার জন্য অন্তত ছয় থেকে আটটি অপটিক্যাল মডিউল একসঙ্গে কাজ করবে।’ হেডসেটটিতে সনির নির্মিত দুটি ৪কে ওএলইডি মাইক্রোডিসপ্লে থাকবে বলে জানিয়েছেন তিনি। কুও বলছেন, ‘ম্যাক-সমতুল্য কম্পিউটিং ক্ষমতা’ থাকবে হেডসেটটিতে। বলা হচ্ছে, তারবিহীন সংযোগ এবং বিভিন্ন খাতে এর কার্যকর ব্যবহার অ্যাপলের নতুন পণ্যটিকে প্রতিযোগীদের চেয়ে আলাদা করে তুলবে।
0 Share Comment
Bakar
29 November 2021, 13:35

বিনামূল্যে পরামর্শ দেবে ভ্যাট ফোরাম

বিনামূল্যে পরামর্শ দেবে ভ্যাট ফোরাম
ব্যবসায়ীদের আগামী ১ ডিসেম্বর থেকে বিনামূল্যে ভ্যাটের পরামর্শ দেবে বাংলাদেশ ভ্যাট প্রফেশনালস ফোরাম (ভ্যাট ফোরাম)।

এ জন্য সেবাপ্রার্থীকে সাপ্তাহিক কর্মদিবসে সকাল ১০টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত নির্ধারিত হটলাইন (০৯৬৭৮২০৮২০৮) নম্বরে ফোন করতে হবে।

এ বিষয়ে ভ্যাট ফোরামের সহ-সভাপতি হাফিজুর রহমান বলেন, ভ্যাটের আইন-বিধি জটিল হওয়ায় ক্ষুদ্র ও মাঝারি ব্যবসায়ীরা প্রায়ই বিপাকে পড়েন। এ সুযোগে একটি পক্ষ ফুলেফেঁপে উঠলেও রাষ্ট্র তার প্রাপ্য রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। তাই ভ্যাটের বিষয়ে ব্যবসায়ীদের সচেতন করতে ভ্যাট ফোরাম কল সেন্টার চালুর উদ্যোগ নিয়েছে। এ কল সেন্টারে ভ্যাটবিষয়ক যাবতীয় প্রশ্নের উত্তর পাওয়া যাবে। প্রাথমিকভাবে ২ মাস বিনামূল্যে সেবাপ্রার্থীদের ভ্যাট সম্পর্কিত যাবতীয় প্রশ্নের উত্তর দেওয়া হবে।

তিনি আরও বলেন, ভ্যাট ফোরামের বিশেষজ্ঞ দল কিছু প্রচলতি প্রশ্নের উত্তর তৈরি করেছে। কেউ এসব বিষয়ে জানতে চাইলে তত্ক্ষণাৎ কল সেন্টারের প্রতিনিধিরা জানিয়ে দেবেন। আর জটিল প্রশ্নের ক্ষেত্রে কল সেন্টারের প্রতিনিধিরা প্রশ্ন নোট নেবেন। এর একদিন পরই ভ্যাট ফোরামের বিশেষজ্ঞরা সেবাপ্রার্থীর হোয়াটসঅ্যাপ বা ই-মেইলে প্রশ্নের উত্তর পাঠিয়ে দেবেন।

প্রসঙ্গত, ভ্যাট ফোরাম হচ্ছে ভ্যাট নিয়ে কাজ করা পেশাজীবীদের একটি সংগঠন। এ সংগঠনে দেশের বড় বড় শিল্প গ্রুপ ও বহুজাতিক কোম্পানির ভ্যাট পরামর্শকরা রয়েছেন। সংগঠনটি ভ্যাট বিষয়ক সচেতনতা বাড়াতে প্রায়ই সেমিনারের আয়োজন করে থাকে।
0 Share Comment
Bakar
29 November 2021, 13:34

সূচকের ইতিবাচক ধারায় চলছে পুঁজিবাজারে লেনদেন

সূচকের ইতিবাচক ধারায় চলছে পুঁজিবাজারে লেনদেন
দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) ও অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সূচকের ইতিবাচক ধারায় চলছে লেনদেন।

এ সপ্তাহের দ্বিতীয় কার্যদিবস সোমবার ডিএসই ও সিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা যায়।

এদিন বেলা ১০টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত ডিএসইয়ের সাধারণ সূচক ডিএসইএক্সের লেনদেনে ৪৬ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করে ৬ হাজার ৮১৯ পয়েন্টে। তবে ডিএসই শরিয়াহ সূচক ৮ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করে ১৪৩৭ পয়েন্টে। এ ছাড়া ডিএসই-৩০ সূচক ৬ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করে ২৫৮২ পয়েন্টে।

এ সময় পর্যন্ত লেনদেন হওয়া কোম্পানিগুলোর মধ্যে দাম বেড়েছে ২৫০টি কোম্পানির শেয়ারের। দাম কমেছে ৩১টির এবং দাম অপরিবর্তিত রয়েছে ১৮টির।

অন্যদিকে একই সময়ে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সিএএসপিআই সূচক ৫২ পয়েন্ট বেড়ে ১৯ হাজার ৮৯২ পয়েন্টে অবস্থান করছে।
0 Share Comment
Bakar
29 November 2021, 13:32

হেফাজত মহাসচিব নুরুল ইসলাম আর নেই

হেফাজত মহাসচিব নুরুল ইসলাম আর নেই
হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব ও তাহাফফুজে খতমে নবুওয়াত বাংলাদেশের আমির আল্লামা নুরুল ইসলাম জিহাদী আর নেই। সোমবার দুপুর ১২টার দিকে রাজধানীর ল্যাবএইড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন তিনি ইন্তেকাল করেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। নুরুল ইসলামের বয়স হয়েছিল ৭৩ বছর।

সোমবার দুপুর সোয়া ১২টার দিকে তার ছেলে খালেদ বিন নূর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে দেওয়া এক স্ট্যাটাসে এ তথ্য জানিয়েছেন।

এর আগে শনিবার রাতে গুরুতর অসুস্থ হলে নুরুল ইসলামকে রাজধানীর ল্যাবএইড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে তাকে নিবিড় পরিচর্যাকেন্দ্রের (আইসিইউ) লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়েছিল।

হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার আগে নুরুল ইসলাম জিহাদী স্ট্রোক করেন বলে জানান তার ছেলে মাওলানা রাশেদ বিন নূর।
শনিবার জাতীয় প্রেসক্লাবে মাগরিব নামাজের পর ওলামা মাশায়েখদের একটি অনুষ্ঠানে অংশ নেন। রাতে খিলগাঁওয়ের বাসায় ফেরার পথে তিনি স্ট্রোক করেন।

গত বছরের ১৩ ডিসেম্বর হেফাজত ইসলামের মহাসচিব নুর হোসাইন কাসেমী মারা যাওয়ার পর ২৩ ডিসেম্বর নুরুল ইসলাম জিহাদীকে সংগঠনটির দ্বিতীয় শীর্ষস্থানীয় পদ মহাসচিবের দায়িত্ব দেওয়া হয়। তখন হেফাজতের আমির ছিলেন জুনায়েদ বাবুনগরী। গত ১৯ আগস্ট তিনি মারা যাওয়ার পর এখন তার মামা মুহিবুল্লাহ বাবুনগরী আমিরের দায়িত্ব পালন করছেন।
0 Share Comment
Bakar
29 November 2021, 13:27

জাতীয় চিড়িয়াখানায় মাছির আক্রমণ

জাতীয় চিড়িয়াখানায় মাছির আক্রমণ
রাজধানীর মিরপুরে জাতীয় চিড়িয়াখানায় মাছির কামড়জনিত রোগে মারা গেছে বাঘের দুই শাবক দুর্জয় ও অবন্তিকা। ২০ ও ২১ নভেম্বর এরা মারা যায়। তবে বিশেষজ্ঞদের কেউ কেউ বলছেন, অদক্ষ চিকিৎসক দিয়ে চিকিৎসা ও অযত্ন-অবহেলাই এ মৃত্যুর কারণ।

এ সম্পর্কে রোববার দুপুরে কথা বলেছেন জাতীয় চিড়িয়াখানার কিউরেটর ডা. মোহাম্মদ আবদুল লতিফ। তিনি জানান, যেখানে বাতাস ঢুকতে পারে, সেখানে মশা-মাছি প্রবেশ করতে পারে। এটি একটি বড় সমস্যা। মাছি নিয়ন্ত্রণ করা খুবই কঠিন। এছাড়া ময়নাতদন্ত প্রতিবেদনে এসেছে, সেটসি ফ্লাই নামে এক ধরনের মাছির কামড়ে ট্রাইপেনোসোমা রোগে এদের মৃত্যু হয়েছে। তারপরও প্রাণিসম্পদ বিভাগের প্রধান পরিচালক (প্রশাসন) ডা. দেবাশীষকে প্রধান করে তদন্ত কমিটি করা হয়েছে।

এদিকে বিশেষজ্ঞদের প্রশ্ন-মাছিবাহিত পরজীবী রোগে যদি বাঘ শাবকের মৃত্যু হয়, তাহলে মাছি নিধনে কী কী পদক্ষেপ নিচ্ছে কর্তৃপক্ষ? এর আগেও যদি একই রোগে শাবক মারা যায়, তাহলে এতদিন মাছিবাহী রোগ থেকে মুক্তি পেতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি কেন? এ বিষয়ে ডা. আব্দুল লতিফ জানান, মাছি থেকে মুক্ত রাখতে বিশেষ ব্যবস্থাপনায় খাঁচা তৈরি করাসহ মাছি নিধনে পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। শিগগিরই এ কার্যক্রম শুরু হবে।

উল্লেখ্য, চলতি বছর ২৬ মে জন্ম হয়েছিল বাঘ শাবক এ ভাইবোনের। থাকত মা বেলি ও বাবা টগরের সঙ্গে একই খাঁচায়। এর আগে ১৬ আগস্ট মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম এদের নামকরণ, নিবন্ধন ও দর্শনার্থীদের জন্য উম্মুক্ত করেন। ওই সময় এদের প্রতি বিশেষ নজর রাখার নির্দেশ দিয়েছিলেন মন্ত্রী। খাঁচায় উন্মুক্ত হওয়ার পর থেকেই দর্শনার্থীদের ভিড় ছিল শাবক দুটিকে ঘিরে। বিশেষ করে শিশুরা তাকিয়ে থাকত এদের দিকে। অনেক সময় বাঘ মা-বাবা ক্লান্ত হয়ে ঘুমিয়ে পড়লেও খুদে দুই শাবক খাঁচা ঘেঁষে খেলা করত।

ডা. আবদুল লতিফ জানান, শাবক দুটির মৃত্যুতে আমরাও শোকাহত। ভাবতেই পারছি না, ফুটফুটে দুর্জয়-অবন্তিকা এভাবে চলে যাবে। ৬ মাসে প্রায় ২৫ কেজি ওজন হয়েছিল। আমরা সর্বোচ্চ চেষ্টা করেছি। কিন্তু বাঁচাতে পারিনি। ১৫ নভেম্বর খুঁড়িয়ে হাঁটা দেখে সঙ্গে সঙ্গেই আমরা চিকিৎসকের পরামর্শে এদের আইসোলেশনে নিয়ে চিকিৎসা শুরু করি। ১৯ নভেম্বর এদের শরীর বেশ দুর্বল হয়। সঙ্গে সঙ্গে আমরা বিশেষজ্ঞ ডাক্তার ডেকেছি-চিকিৎসকরা বোর্ড বসিয়ে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। পরীক্ষায় রক্তে মাছিবাহিত পরজীবী ধরা পড়ে।

গাজীপুরের বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্ক থেকেও একজন চিকিৎসককে যুক্ত করে চিড়িয়াখানায় একের পর এক মেডিকেল বোর্ড বসানো হয়। কিন্তু বেলি ও টগরের প্রথম শাবক দুটি মারা যায়। বাঘ মা-বাবার চোখে মুখে শোকের ছায়া এখনো স্পষ্ট। আমরা বেলিকে আলাদা রেখেছি। বিশেষভাবে দেখভাল করছি। আশা করছি, এরা আবারও বাচ্চা দেবে। আমরা সেই পরিবেশ সৃষ্টি করছি।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক গবেষক জানান, তিনি একসময় চিড়িয়াখানার কর্মকর্তা ছিলেন। প্রাণীদের জীবনাচার বুঝতে নানা দিক থেকে বিশ্লেষণ করতে হয়। এজন্য বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক প্রয়োজন। বাঘ শাবক দুটিকে হাসপাতালে না নিয়ে চিড়িয়খানার খাঁচায় রেখেই চিকিৎসা দেওয়া হয়। এতে অসুস্থের ৯ দিনের মধ্যেই মারা যায় এরা। প্রাণী অসুস্থ হয়ে পড়লে নয়-অসুস্থ হওয়ার আগেই যথাযথ নজর রাখতে হয়। নিয়মিত চিকিৎসার আওতায় রাখতে হয়। সেটি নামমাত্র যেন না হয়, যথাযথভাবে করতে হয়, যা জাতীয় চিড়িয়াখানায় অনুপস্থিত।
0 Share Comment
National/International News Group
28 November 2021, 23:28

গরুর শিরা বসানো হলো শিশুর বুকে, লাগল মাত্র ২ টাকা

গরুর শিরা বসানো হলো শিশুর বুকে, লাগল মাত্র ২ টাকা


না, কল্পবিজ্ঞানের গল্প নয়। খাস ভারতের কলকাতার এক সরকারি হাসপাতালের ঘটনা। গরুর গলার শিরার সৌজন্যে নতুন জীবন পেল পাঁচ বছরের এক শিশু। কলকাতার এনআরএস মেডিক্যাল কলেজের কার্ডিওথোরাসিক সার্জারি বিভাগে এই প্রথম হার্টের ভালভ পাল্টানোর ‘রস অপারেশন’ হলো, বিনিময়ে চার্জ লাগল মাত্র দু’টাকা। পশ্চিমবঙ্গের কোনো সরকারি হাসপাতালের এহেন নজিরবিহীন কৃতিত্ব দেখে বিস্মিত স্বাস্থ্য ভবনও। কুর্নিশ, অভিনন্দনের বন্যা বইছে। যদিও এনআরএসের কার্ডিওথোরাসিক বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এখানে মূল ভূমিকা সদিচ্ছার। আমরা পারি। শুধু ইচ্ছেটা দরকার।
কী পেরেছেন ওরা? গরুর গলার শিরা কেটে বিশেষভাবে প্রস্তুত একটি শিরা পাঁচ বছরের এক শিশুকন্যার বুকে বসিয়ে তাকে জটিল হৃদরোগ থেকে মুক্তি দিয়েছেন। সেই তয়বা খাতুন এসেছিল মুর্শিদাবাদের কান্দির তেঁতুলিয়া থেকে। জন্মথেকে মেয়ের শ্বাসকষ্ট, একটু হাঁটলেই বুকে ব্যথা, বুকে হাত চেপে বসে পড়ে। মা চোখের পানি ফেলেন। একের পর এক ডাক্তার দেখিয়েও সুরাহা না মেলায় ওই শিশুকে বুকে নিয়ে মা ট্রেনে চড়ে চলে আসেন শিয়ালদহ স্টেশনে। একটু হেঁটেই এনআরএসের শিশু বিভাগের আউটডোর। টিকিট কেটে ভিড় ঠেলে যতক্ষণে তার দরজায় দাঁড়ালেন, মেয়ে নিস্তেজ হয়ে পড়েছে। ডাক্তার পরীক্ষা করে সটান পাঠিয়ে দিলেন কার্ডিওথোরাসিক সার্জারিতে, টিকিটে লিখলেন, ‘কনজেনিটাল হার্ট ডিজিজ’। সরকারি হাসপাতালে যেমন হয়। পরের সপ্তাহে ফের আউটডোর। টিকিট কেটে ফের চারতলা, ফের মেয়ের প্রবল শ্বাসকষ্ট। বাচ্চাটাকে দেখেই মনে হলো, যেকোনো সময় অঘটন ঘটতে পারে। হার্ট ফেলের সম্ভাবনা ব্যাপক। তাই সাথে সাথে ইকো কার্ডিওগ্রাফি করতে পাঠাই, বলছিলেন বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ডা: পরেশ বন্দ্যোপাধ্যায়।
তার কথায়, বাচ্চাটার হার্টের অ্যাওর্টিক ভালভে জন্ম থেকেই গ-গোল। তাই ভালভ পাল্টানো দরকার। কিন্তু শিশু বড় হলে নতুন ভালভকেও সমানতালে বড় হতে হবে। তাই করা হল রস অপারেশন। স্বাস্থ্য দফতরের শীর্ষকর্তারা জানাচ্ছেন, এ রাজ্যের সরকারি হাসপাতালে এর আগে এমন অস্ত্রোপচার হয়নি। সেই নিরিখে তয়বাই খুলে দিল দরজা। ১৫ নভেম্বর সে হাসপাতালে ভরতি হয়, ওজন ১৩ কেজি। পর দিন সকাল ১০টায় অস্ত্রোপচারের জন্য নিয়ে যাওয়া হয়। বিকেল সাড়ে ৪টা নাগাদ ফিরিয়ে আনা হয় আইটিইউ চেম্বারে। মাঝে একটা সময়ে ফুসফুস থামিয়ে কৃত্রিমভাবে রক্ত সঞ্চালন করানো হয়।
গরুর গলার শিরা কেটে বিশেষভাবে প্রস্তুত যে শিরা তয়বার বুকে বসানো হয়েছে, তার দৈর্ঘ্য প্রায় ২০০ মিলিমিটার, ব্যাস ১৪ মিলিমিটার। এই শিরা দিয়ে রক্ত সঞ্চালন সহজ হবে। পরেশবাবুর কথায়, ও যত বড় হবে, ফুসফুসও সমানভাবে বড় হবে। তাই একটু বড় শিরা বসানো হয়েছে। বাজারে এর দাম প্রায় দেড় লাখ টাকা। কিন্তু শিশুসাথী প্রকল্পে চিকিৎসার সব খরচ রাজ্য সরকার বহন করছে। স্বাস্থ্য ভবন সূত্রে খবর, তয়বা এখন সম্পূর্ণ বিপদ মুক্ত। সোমবার রাতে মায়ের কোলে চেপে সে হাসিমুখে বাড়ি ফিরে গিয়েছে। সূত্র : সংবাদ প্রতিদিন


0 Share Comment
National/International News Group
28 November 2021, 23:24

Omicron: ওমিক্রনের উপসর্গ কী, কতটা বিপজ্জনক?

Omicron: ওমিক্রনের উপসর্গ কী, কতটা বিপজ্জনক?
দক্ষিণ আফ্রিকায় শনাক্ত হওয়া করোনাভাইরাসের নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনে (Omicron) আক্রান্তদের শরীরে বিশেষ কোনো উপসর্গ ছাড়াই মৃদু রোগ দেখা দিতে পারে। শনিবার দেশটির মেডিক্যাল সংস্থার চেয়ারম্যান অ্যাঞ্জেলিক কোয়েৎজি রুশ বার্তাসংস্থা স্পুটনিককে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এই তথ্য জানিয়েছেন।

শুক্রবার বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা দক্ষিণ আফ্রিকায় শনাক্ত করোনার নতুন প্রজাতিকে ‘উদ্বেগজনক ভ্যারিয়েন্ট’ হিসেবে ঘোষণা দেয়। সংস্থাটি বলেছে, করোনার নতুন ধরনটির স্পাইক প্রোটিনে ৩২ বার রূপ বদল ঘটেছে। সাধারণত ভাইরাসের এ ধরনের বারবার রূপ বদল সেটিকে আরও বেশি সংক্রামক এবং বিপজ্জনক করে তোলে।

গ্রিন বর্ণমালার ১৫ নম্বর অক্ষর অনুযায়ী বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এই ভ্যারিয়েন্টকে ‘ওমিক্রন’ নাম দিয়েছে।

কোয়েৎজি বলেছেন, নতুন ভ্যারিয়েন্টটি মৃদু রোগের উপসর্গের সাথে সাথে মাংসপেশীর ব্যথা এবং এক অথবা দু’দিন পর্যন্ত ক্লান্তির বোধ তৈরি করতে পারে। আমরা এখন পর্যন্ত যাদের শরীরে এই ধরনটি শনাক্ত করেছি, তাদের স্বাদ বা গন্ধ চলে যায়নি। তবে তাদের হালকা কাশি হতে পারে। এর বিশেষ কোনো উপসর্গ নেই। যারা আক্রান্ত হয়েছেন, তাদের কয়েকজন বর্তমানে বাড়িতে থেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

দক্ষিণ আফ্রিকার এই স্বাস্থ্য কর্মকর্তা বলেছেন, দেশের হাসপাতালগুলো এখনও ওমিক্রন রোগীতে উপচে পড়েনি। টিকা নেওয়া লোকজনের মাঝে নতুন ধরনটি শনাক্ত হয়নি। তবে একই সময়ে টিকা না নেওয়া লোকজনের ক্ষেত্রে পরিস্থিতি ভিন্ন হতে পারে।

অ্যাঞ্জেলিক কোয়েৎজি বলেছেন, আমরা কেবলমাত্র দুই সপ্তাহ পর এই বিষয়টি সম্পর্কে জানতে পারবো। হ্যাঁ, এটি সংক্রমণযোগ্য; কিন্তু আপাতত চিকিত্সক হিসাবে আমরা জানি না, কেন এটি নিয়ে এত হইচই শুরু হয়েছে। কারণ আমরা এখনও এই ধরনটির বিষয়ে বিস্তারিত জানতে পারি নাই।

তিনি বলেন, আমরা কেবলমাত্র দুই থেকে তিন সপ্তাহের মধ্যে এ বিষয়ে জানতে পারবো। কিছু রোগী এখন হাসপাতালে ভর্তি আছেন। তারা বয়সে তরুণ। তাদের কারও বয়স ৪০ এবং কারও তারচেয়ে কম।

নতুন ভ্যারিয়েন্ট শনাক্তের পর দক্ষিণ আফ্রিকার সঙ্গে বিশ্বের কিছু দেশের বিমানের ফ্লাইট বন্ধ করে দেওয়ার সিদ্ধান্তের সমালোচনা করেছেন দেশটির এই চিকিৎসক। এখনও এই ধরনটি কেমন বিপজ্জনক সে বিষয়ে পর্যাপ্ত তথ্য পাওয়া যায়নি, তার আগে দেশটির সঙ্গে ফ্লাইট নিষিদ্ধের সিদ্ধান্তে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন তিনি।

ওমিক্রন শনাক্ত হওয়ার পর যুক্তরাষ্ট্র, ইউরোপীয় ইউনিয়ন, কানাডা, ইসরায়েল, অস্ট্রেলিয়া এবং আরও কিছু দেশ ও অঞ্চল দক্ষিণ আফ্রিকা ও ওই অঞ্চলের কয়েকটি দেশের বিরুদ্ধে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে।

ডব্লিউএইচওর তথ্য বলছে, এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসের যে কয়েকটি ধরন শনাক্ত হয়েছে; তার মধ্যে ওমিক্রনের ‘রি-ইনফেকশন’ বা পুনরায় সংক্রমণের ক্ষমতা বেশি। অর্থাৎ—কেউ একবার এই ধরনে আক্রান্ত হওয়ার পর সুস্থ হয়ে উঠলেও ফের একই ভ্যারিয়েন্টে সংক্রমিত হতে পারেন।

দক্ষিণ আফ্রিকার কোয়াজুলু-নাটাল রিসার্চ অ্যান্ড ইনোভেশন সিকোয়েন্সিং প্ল্যাটফর্মের পরিচালক তুলিও ডি অলিভিয়েরা বলেছেন, নতুন ভ্যারিয়েন্ট বি.১.১.৫২৯ এর রূপ বদলে ফেলার গতি-প্রকৃতি অত্যন্ত অস্বাভাবিক। এই ভ্যারিয়েন্টটি ইতোমধ্যে ৩০বারের বেশি মিউটেশন ঘটিয়েছে তার স্পাইক প্রোটিনে।

সাধারণত সব ধরনের ভাইরাসই সময় এবং প্রকৃতি-পরিবেশের ওপর নির্ভর করে নিজের রূপ বদলে ফেলে। অনেক সময় এই রূপ বদল তেমন কোনো প্রভাব না ফেললেও কিছু কিছু ক্ষেত্রে আগের চেয়ে শক্তিশালী রূপে হাজির। ওমিক্রনের অস্বাভাবিক এই রূপ বদল সেই শঙ্কাই বাড়িয়ে তুলেছে।

আন্তর্জাতিক মহামারিবিদ ও জীবাণু বিশেষজ্ঞরা বলেছেন, কয়েকবার রূপান্তরের মধ্যে দিয়ে যাওয়ার কারণে ওমিক্রন ধরনটি টিকাপ্রতিরোধী হওয়ার যথেষ্ট সম্ভাবনা রয়েছে। অর্থাৎ করোনা টিকার ডোজ সম্পূর্ণ করা ব্যক্তিরাও এই ধরনটির দ্বারা সহজেই আক্রান্ত হতে পারেন।
0 Share Comment
National/International News Group
28 November 2021, 23:23


নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে জাতীয়
বিশ্ববিদ্যালয়। এর অঙ্গীভূত বঙ্গবন্ধু মুক্তিযুদ্ধ বাংলাদেশ গবেষণা
ইন্সটিটিউটে তিনটি পদে ১০ জনকে নিয়োগ দেবে প্রতিষ্ঠানটি। আবেদন করা যাবে
অনলাইনে।


পদের বিস্তারিত

১. অধ্যাপক, পদ সংখ্যা ৩ জন
বিভাগ:বাংলা অর্থনীতি, ইতিহাস ও রাষ্ট্রবিজ্ঞান
বেতন: ৫৬,৫০০ থেকে ৭৪,৪০০


২. সহযোগী অধ্যাপক, পদ সংখ্যা ৩ জন
বিভাগ: ইংরেজী, অর্থনীতি, রাষ্ট্রবিজ্ঞান
বেতন: ৫০,০০০ থেকে ৭১,২০০


৩. সহকারী অধ্যাপক, পদ সংখ্যা ৩ জন
বিভাগ: ইংরেজী, ইতিহাস, সমাজবিজ্ঞান
বেতন: ৩৫,৫০০ থেকে ৬৭,০১০

এতে আবেদনের যোগ্যতা, অভিজ্ঞতা এবং বয়সসীমার শর্তাবলি প্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইট- www.nubd.info থেকে বিস্তারিত জানা যাবে।


আবেদনের নিয়ম: আগ্রহী প্রার্থীরা www.nubd.info/jobs -এ ওয়েবসাইট থেকে আবেদন করতে পারবেন।


আবেদনের শেষ সময়: ২৩ ডিসেম্বর ২০২১


0 Share Comment
National/International News Group
28 November 2021, 23:21

মাস্টারকার্ড এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড-২০২১ পেল ‘নগদ’

মাস্টারকার্ড এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড-২০২১ পেল ‘নগদ’


দেশে আর্থিক খাতে অন্তর্ভুক্তি বৃদ্ধিতে অবদান রাখার জন্য ‘মাস্টারকার্ড এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড-২০২১’ অর্জন করেছে বিশ্বের সবচেয়ে দ্রুতবর্ধনশীল মোবাইল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিস ‘নগদ’। আর্থিক অন্তর্ভুক্তির পাশাপাশি মার্চেন্ট ক্যাটাগরিতে মোবাইল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিসে উল্লেখযোগ্য অবদানের রাখায় নগদ এই পুরস্কার পায়।

সম্প্রতি ঢাকায় ‘মাস্টারকার্ড এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড-২০২১’ নেক্সট অ্যান্ড বেয়ন্ড ঘোষণার মধ্য দিয়ে বিজয়ী প্রতিষ্ঠানসমূহের নাম প্রকাশ করা হয়। এ সময় প্রধান অতিথি হিসেবে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান, বিশেষ অতিথি বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক মো. খুরশিদ আলম, বাংলাদেশে নিযুক্ত মার্কিন দূতাবাসের ‘চার্জ দি অ্যাফেয়ার্স’ হেলেন লা ফেইভসহ আরও অনেক ব্যক্তিবর্গ ও প্রতিষ্ঠান অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

ডাক বিভাগের সেবা নগদ যাত্রার পর থেকে সহজ ও সাশ্রয়ী সেবা প্রদানের কারণে স্বল্প সময়ে দেশে জনপ্রিয় মোবাইল সেবা প্রতিষ্ঠান হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে সক্ষম হয়েছে। দেশ সেরা সর্বনিন্ম ক্যাশ আউট চার্জ, ফ্রি ইউটিলিটি বিল পেমেন্ট, ফ্রি সেন্ড মানি এবং সেভিংসে সর্বোচ্চ মুনাফা প্রদানসহ আরও এমন অনেক সেবার কারণে দেশের সাধারণ মানুষের কাছে নগদের চাহিদা দিন দিন বাড়ছে।
nagad

নগদ ইতোপূর্বে বাংলাদেশে প্রথম ই-কেওয়াইসি উদ্ভাবনের জন্য বেস্ট ইনোভেশন ডিজিটাল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিস অ্যাওয়ার্ড, বিশ্ব সেরা ফিনটেক উদ্যোগ হিসেবে ইনক্লুসিভ ফিনটেক ফিফটি অ্যাওয়ার্ড, বেস্ট ডিজিটাল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিস প্রোভাইডার অ্যাওয়ার্ড, উইটসা গ্লোবাল আইসিটি এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড, ডিজিটাল বাংলাদেশ অ্যাওয়ার্ড, ফাইন্যান্সিয়াল টেকনোলজি ম্যান অব ইয়ার, ই-কমার্স মুভার অ্যাওয়ার্ড, বেস্ট মার্কেটিং কমিউনিকেশন অ্যাওয়ার্ডসহ আরও অনেক দেশীয় ও আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি অর্জন করেছে।

এবার ‘মাস্টারকার্ড এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড-২০২১’-এ মার্চেন্ট ক্যাটাগরিতে মোবাইল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিসে উল্ল্যেখযোগ্য অবদানের রাখায় নগদকে এই পুরস্কার প্রদান করা হয়। মাস্টারকার্ড কর্তৃক এক্সিলেন্স পুরস্কারটি মূলত যাত্রা শুরু করে ২০১৯ সালে। বিশেষত আর্থিক খাতে অন্তর্ভুক্তি বৃদ্ধিতে অবদানের জন্য বিভিন্ন ব্যাংক, ফিনটেক ও অন্যান্য কোম্পানিকে মূল্যায়নের উদ্দেশে এই পুরস্কারের যাত্রা।

নগদের এই অর্জনের বিষয়ে প্রতিষ্ঠানটির সহপ্রতিষ্ঠাতা ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক তানভীর এ মিশুক বলেন, ‘যেকোনো প্রাপ্তি মানুষকে তৃপ্তি দেয়। আমরা শুরু থেকে মানুষের জন্য সাশ্রয়ী ও সহজ সেবা দেওয়ার চেষ্টা করছি। আশা করছি ভবিষ্যতেও নগদের এক্সিলেন্স অব্যাহত থাকবে।’

মাস্টারকার্ড বাংলাদেশে ব্যবসায়িক পদচারণার ৩০ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে তার ৩৫টি শীর্ষ পার্টনার ব্যাংক, ফাইন্যান্সিয়াল ইন্সটিটিউশন এবং মার্চেন্টদের স্বীকৃতিস্বরূপ এই আয়োজন করছে। ফলে এই স্বীকৃতি প্রদানের তৃতীয় বছরে এসে ব্যবসায়িক প্রবৃদ্ধিতে উদ্ভাবন ও সফলতায় অবদান রাখায় প্রতিষ্ঠানটি তার ব্যবসায়িক পার্টনারদের বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে এই সম্মাননা প্রদান করেছে।
0 Share Comment
National/International News Group
28 November 2021, 23:18

বিষাক্ত গাছ ম্যানশিনীল

বিষাক্ত গাছ ম্যানশিনীল
বিশ্বে নানা প্রান্তে ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে লাখো প্রজাতির গাছ। এসব গাছ আমাদের জীবন। মহামূল্যবান অক্সিজেন সরবরাহ করে প্রাণিজগৎকে বাঁচিয়ে রাখে। কিন্তু এই বিশ্বেই আবার এমন গাছ আছে যা প্রাণও কেড়ে নিতে পারে। তেমনই একটি গাছ হল ‘ম্যানশিনীল’।

যাকে ‘মৃত্যুগাছ’ বলেও ডাকা হয়। শুধু তাই নয়, বিশ্বের সবচেয়ে বিষাক্ত গাছ হিসেবেও পরিচিত ম্যানশিনীল। ক্যারিবীয় সাগরের তটে মূলত এই গাছ দেখা যায়। উচ্চতা ৫০ ফুট পর্যন্ত হতে পারে। এই গাছ এতটাই বিষাক্ত যে এর সংস্পর্শে এলে দেহের ত্বক পুড়ে যেতে পারে।

দাবি করা হয়, এই গাছের ফল খেলে দেহের ভেতরে রক্তক্ষরণ হতে শুরু করবে এবং কিছুক্ষণের মধ্যে মৃত্যু হতে পারে। এই গাছে দুধের
মতো ঘন রস থাকে। পাতা, গাছের ছাল এবং ফলেও সেই রস পাওয়া যায়। সেই রস কোনোভাবে শরীরের সংস্পর্শে এলে পুড়ে যাওয়ার মতো ক্ষত সৃষ্টি হয়।
nagad

সায়েন্স অ্যালার্ট পত্রিকা বরাত দিয়ে ভারতীয় গণমাধ্যম আনন্দবাজার জানায়, ‘এই রসে ফরবল নামে এক ধরনের বিষ থাকে। যা সহজে পানির সাথে মিশে যায়। তাই বৃষ্টির সময় এই গাছের নিচে আশ্রয় নিতে বারণ। কারণ বৃষ্টির সঙ্গে এই রস মিশে শরীরের সংস্পর্শে এলে বা কোনো কারণে চোখে গেলে দৃষ্টিশক্তির ক্ষতিও হতে পারে।

গিনেস বুকেও বিশ্বের সবচেয়ে বিপজ্জনক গাছ হিসেবে নথিভুক্ত হয়েছে ম্যানশিনীলের নাম। তবে স্থানীয় বাস্তুতন্ত্রকে টিকিয়ে রাখতে এই গাছের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে। সমুদ্রের পানি থেকে মাটিক্ষয় রোধ করে এই গাছ।
0 Share Comment
National/International News Group
28 November 2021, 23:09

ভিকি-ক্যাটরিনার বাগদান সম্পন্ন

ভিকি-ক্যাটরিনার বাগদান সম্পন্ন


ভিকি কৌশল ও ক্যাটরিনা কাইফের বিয়ে নিয়ে নানা কথা শোনা যাচ্ছে। দুজনে ডেট করছেন। বলিউডের অন্দরে গুঞ্জন, ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহেই নাকি বিয়ে করতে চলেছেন ভিকি কৌশল ও ক্যাটরিনা কাইফ। বিয়ের পোশাক তৈরিও নাকি শুরু হয়ে গেছে। এর মধ্যেই জানা গেল, চুপিসারে বাগদান সেরেছেন ভিকি-ক্যাটরিনা।

সূত্রের খবর, পরিচালক কবীর খান ও মিনি মাথুরের বাড়িতেই অ্যাংগেজমেন্ট সারলেন ভিকি-ক্যাটরিনা। ক্যাটরিনা পরিচালক কবীর খানের সঙ্গে নিউ ইয়র্ক, এক থা টাইগার, টাইগার জিন্দা হের মতো হিট ছবি করেছেন। মূলত কবীরকে ক্যাট তার ভাই পাতিয়েছেন, সেই কারণেই হয়ত তার জীবনের বিশেষ মুহূর্তে তাদের সামিল করেছেন।

পুরো অনুষ্ঠানটাই হয়েছিল খুবই ঘরোয়াভাবে। ভিকি-ক্যাটের বাগদানে উপস্থিত এক কাছের বন্ধু জানান, ভীষণ সুন্দরভাবে সবকিছু সাজানো হয়েছিল ভিকি-ক্যাটের বাগদানের অনুষ্ঠান। লেহেঙ্গায় সেজেছিলেন ক্যাটরিনা। সারা বাড়ি সাজানো হয়েছিল আলো দিয়ে।
nagad

ভিকি ও ক্যাটরিনার সেই কাছের বন্ধু আরও জানান, দীপাবলির সময়টা এমনিতেই বেশ শুভ। তাই এ সময়কেই বেছে নিয়েছেন ক্যাটরিনা-ভিকির পরিবার। গোটা অনুষ্ঠানটা দাঁড়িয়ে থেকে হোস্ট করছেন কবীর ও মিনি।

বাগদানের অনুষ্ঠান বিয়ের আগে হয়ে থাকে যেখানে হবু বর-বউ একে অপরের সঙ্গে আংটি বদল করে থাকেন। এমনিতেই বলিউডে লিডিং লেডিদের অ্যাংগেজমেন্ট রিং দেখার জন্যে মুখিয়ে থাকেন দর্শকরা। যেমনটা হয়েছিল শিল্পা শেঠি, অনুশকা শর্মা, দীপিকার বিয়ের সময়। ডিসেম্বরে বিয়ে হলেও হানিমুন নাকি বিয়ের পর করতে পারবেন না ভিকি–ক্যাটরিনা। অন্তত এমনটাই জানা গেছে সূত্রে। একদিকে ক্যাটরিনার ‘টাইগার-৩’র শুটিংয়ের কিছু অংশ বাকি রয়েছে। অন্যদিকে ডিসেম্বরেই নাকি শুরু হবে ভিকির স্যাম বাহাদুর বায়োপিকের শুটিং। এ ছবিতে ভিকিকে দেখা যাবে শ্যাম মিনিক্ষর চরিত্রে।

২০১৯ থেকেই প্রেম করছেন ক্যাটরিনা-ভিকি। বিভিন্ন জায়গায় একসঙ্গে দেখাও গেছে তাদের। বিয়ের ভেন্যু হিসেবে ক্যাটরিনার পছন্দ রাজস্থানের সিক্স সেন্সেস ফোর্ট বারওয়ারা। রাজস্থানের বিখ্যাত রনথাম্ভোর জাতীয় উদ্যান থেকে এ দুর্গের দূরত্ব মাত্র তিরিশ মিনিটের। দুর্গ না বলে একে অভিজাত রিসোর্ট বলাই ভালো। আসলে ক্যাটরিনার বরাবরই রানির মতো বিয়ে করতে চেয়েছিলেন সেই কারণেই রাজস্থানই ক্যাটের প্রথম পছন্দ। রিসোর্টের ওয়েবসাইটের বুকিং সাইটে খোঁজ নিয়ে দেখা গেছে, ৬ ডিসেম্বর থেকে ১১ ডিসেম্বর পর্যন্ত রিসোর্টে কোনো বুকিং করা যাচ্ছে না। স্বাভাবিকভাবে দুই-দুই চার করতে অসুবিধা হচ্ছে না কারও।

সূত্র: এই সময়
0 Share Comment
National/International News Group
28 November 2021, 23:08

শ্রাবন্তীর গলার লকেটে নজর কেড়েছে ভক্তদের

শ্রাবন্তীর গলার লকেটে নজর কেড়েছে ভক্তদের
ভারতীয় অভিনেত্রী শ্রাবন্তী আর বিতর্ক যেন সমার্থক শব্দে পরিণত হয়েছে। এটা এখন টলিপাড়ার প্রচলিত কথা। নায়িকার তিন তিনবার বিয়ে ভাঙা, নতুন প্রেমের চর্চা, অসফল রাজনৈতিক ক্যারিয়ার, কয়েক মাসেই পদ্মশিবিরের মোহভঙ্গ, ফের তৃণমূলে যোগ দেওয়ার জল্পনা- সবই জারি রয়েছে।

কিন্তু এসব বিতর্ক নিয়ে মাথা ঘামাতে রাজি নন শ্রাবন্তী। তিনি বিশ্বাস করেন, ‘জীবন তোমাকে শক্ত হতে শেখায়, তাও নিজের প্রচেষ্টায়।’ এই কথাটা মনেপ্রাণে বিশ্বাস করেন অভিনেত্রী।

কাজ নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন শ্রাবন্তী, পাশাপাশি হুট-হাট বিভিন্ন জায়গায় ঘুরতে যাচ্ছেন। এছাড়া কয়েক মাস আগে ঘটা করে নিজের একটি জিম খুলেছেন অভিনেত্রী। ফিটনেস নিয়ে ব্যাপক মাথা ঘামান শ্রাবন্তী ব্যাপারটা তেমন নয়। এর আগে অনেক সময় শরীর নিয়ে কটাক্ষের মুখে পড়েছেন ৩৫ বছর বয়সী এই নায়িকা।
0 Share Comment
National/International News Group
28 November 2021, 23:06

প্রভার ‘বাগদান’ সম্পন্ন

প্রভার ‘বাগদান’ সম্পন্ন


শোবিজের দুনিয়ায় একটু আড়াল, বড় গুঞ্জন— আড়াল নিয়ে সমালোচকরা রূপকথার গল্পের মতো রঙিন গল্প বলে যান। এ সব গল্পকার ক্লান্ত হওয়ার আগেই ভেঙে যায় আড়াল, উন্মোচন হয় সব খবর। কিছু গুঞ্জন সত্য হয়, আবার কিছু মিথ্যা প্রমাণিত হয়। এ সব আলো-অন্ধকার নিয়েই রঙিন দুনিয়া। এ সব গল্পের প্রধান চরিত্রের মধ্যে বাংলাদেশের নাটকের জনপ্রিয় মুখ অভিনেত্রী সাদিয়া জাহান প্রভা।

ছোট পর্দার লাস্যময়ী এই অভিনেত্রী রূপ-লাবণ্যে যেমন দর্শকের হূদয় হরিণী, অভিনয়েও তার দক্ষতা নিপুণ। শোবিজে আত্মপ্রকাশের পর চমত্কারভাবে নিজেকে মেলে ধরেছিলেন। তার ক্যারিয়ারে যখন বসন্তের হাওয়া লাগে, ঠিক তখনই একটি অপ্রত্যাশিত ঘটনার কারণে মিডিয়া থেকে আড়ালে চলে যান। সেই ধাক্কা সামলে আবারও ঘুরে দাঁড়িয়েছেন প্রভা। নিয়মিত কাজও করছেন। তবে এখন তিনি ব্যক্তিগত জীবন একেবারেই নিজের মতো করে আড়ালে রাখেন। নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টটিও রাখেন প্রাইভেসিতে।

এদিকে শোনা যাচ্ছে— নতুন করে ঘর বাঁধতে চলেছেন প্রভা। ইতোমধ্যে তার বাগদানও হয়ে গেছে। তার সোশ্যাল অ্যাকাউন্টে আপলোড করা বিভিন্ন ছবিতে বাগদানের ইঙ্গিতও মিলেছে। বহু ছবিতে তার অনামিকায় দেখা গেছে আংটি।
nagad

ধারণা করা হচ্ছে, গত বছরই বাগদান সেরেছেন প্রভা। তার সোশ্যাল অ্যাকাউন্ট ঘাঁটলে এমনটাই অনুমান করা যায়। প্রশ্ন উঠতে পারে, তার হাতের আংটি শুটিংয়ের প্রয়োজনেও হতে পারে। এর বিপরীতে জবাব হলো, প্রভা তার অনামিকায় একটি নির্দিষ্ট আংটিই পরেন এবং সেটা গত বছরের মাঝামাঝি সময় থেকে।

মাঝে একবার গুঞ্জন শোনা গিয়েছিল, ছোট পর্দার এক তরুণ অভিনেতার সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়েছেন প্রভা। তার নামের প্রথমে ‘জে’ অক্ষরটি রয়েছে। যদিও প্রভা কিংবা ওই অভিনেতার পক্ষ থেকে এ গুঞ্জনের বিপরীতে কোনো প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

প্রভা প্রথম বিয়ে করেছিলেন জনপ্রিয় অভিনেতা জিয়াউল ফারুক অপূর্বকে। ২০১০ সালে তারা বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন। কিন্তু এর পরই প্রাক্তন প্রেমিক-বাগদত্তার সঙ্গে প্রভার একটি স্ক্যান্ডাল ফাঁস হয়। এ কারণে এক বছরের মাথায় অপূর্বর সঙ্গে ডিভোর্স হয়ে যায় তার।

২০১১ সালে মাহমুদ শান্ত নামের এক ব্যক্তিকে বিয়ে করেন প্রভা। সেই সংসার টিকেছিল ২০১৪ সাল পর্যন্ত। এরপর থেকে একাই ছিলেন অভিনেত্রী। তবে এবার হয়তো একাকীত্ব ঘুচিয়ে নতুন করে সংসারের স্বপ্ন বুনতে চলেছেন তিনি। তবে এই গুঞ্জনের সত্যতার জন্য অপেক্ষা করতে হবে।
0 Share Comment
Deshi Group
28 November 2021, 22:32

শরীরে ছিদ্র করে গিনেস বুকে নাম লিখিয়েছেন ইলাইন

শরীরে ছিদ্র করে গিনেস বুকে নাম লিখিয়েছেন ইলাইন
নিজেকে অন্যদের থেকে আলাদা ভাবেন তিনি। চিন্তা করেন ঠিক অন্যদের উল্টো। তবে তার প্রমাণ দিতে পাল্টে ফেললেন নিজের চেহারাই। শরীরে অসংখ্য ফুটো করেছেন এক নারী। সাধারণ মানুষের পক্ষে যা সহজে করা নয়। কিন্তু কোনো রকম দ্বিমত ছাড়াই তা করেছেন ইলাইন।

ব্রাজিলিয়ান নাগরিক ইলাইন ডেভিডসন শরীরে সর্বোচ্চ সংখ্যক পিয়ার্সিং করিয়েছেন। এজন্য রেকর্ডও দখল করে নিয়েছেন নিজের নামে। ১৯৯৭ সালের জানুয়ারিতে তিনি প্রথম শরীরে ছিদ্র করেন। ৮ ই জুন ২০০৬ সাল পর্যন্ত মোট ৪,২২২ বার নিজের শরীরে ছিদ্র করেছেন এই নারী। এসব ছিদ্রে নানা ধরনের গয়না পরে থাকেন তিনি।
শুধু ছিদ্রই নয়, শরীরে অসংখ্যবার ট্যাটুও করেছেন এ নারী। এমনকি জিহ্বার মধ্যেও বর একটি ছিদ্র করেছেন তিনি। এসব কারণেই তিনি গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ডে নাম লিখিয়েছেন। তবে থেমে নেই শরীরে ছিদ্র করা। এখনো তা চালিয়ে যাচ্ছেন। ২০১৯ সালের জানুয়ারিতে এই সংখ্যা দাঁড়ায় ১১ হাজার তিনটিতে।
nagad

ব্রাজিলিয়ান এ নারী একসময় রেস্তোঁরার মালিক ছিলেন। তাকে সবসময় উজ্জ্বল রঙের মেকআপ ঘুরে বেড়াতে দেখা যায়। মাথায় পরেন পালক এবং স্ট্রিমার। বর্তমানে তার বয়স ৫৬ বছর।

১৯৬৫ সালে জন্ম নেওয়া ইলাইন বিয়ে করেছিলেন। তবে ২০১২ সালে তার স্বামীর সঙ্গে বিবাহবিচ্ছেদ হয়ে যায়। তবে বিচ্ছেদের কারণ জানা যায়নি।

সূত্র: গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ড
0 Share Comment
Deshi Group
28 November 2021, 22:30

মাস্ক ব্যবহারে বাধ্যবাধকতা জারি করেছে ইংল্যান্ড


মাস্ক ব্যবহারে বাধ্যবাধকতা জারি করেছে ইংল্যান্ড


দক্ষিণ আফ্রিকায় শনাক্ত হওয়া করোনার নতুন ধরন ‘ওমিক্রন’র সম্ভাব্য প্রভাব মোকাবিলায় ফেস মাস্ক বাধ্যতামূলক করেছে ইংল্যান্ড। আগামী মঙ্গলবার (৩০ নভেম্বর) থেকে ইংল্যান্ডের দোকানপাট এবং গণপরিবহনে ফেস মাস্কের ব্যবহার বাধ্যতামূলক হবে বলে ঘোষণা দিয়েছেন দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী সাজিদ জাভিদ।

এর ফলে করোনাভাইরাস মহামারি মোকাবিলায় যুক্তরাজ্যের অন্যান্য অংশের মতো ইংল্যান্ডেও ফেস মাস্ক পরার নিয়ম বাধ্যতামূলক হবে। এর আগে দেশটির প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন যুক্তরাজ্যে পৌঁছানোর পর বিদেশিদের পিসিআর পরীক্ষা করাতে হবে বলে ঘোষণা দিয়েছেন।

এছাড়া যুক্তরাজ্যের ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞার লাল তালিকায় থাকা ১০ দেশ থেকে আসা লোকজনকে বাধ্যতামূলকভাবে ১০ দিনের কোয়ারেন্টাইন পালন করতে হবে। এসব পদক্ষেপ নিশ্চিত করার লক্ষ্যে দেশটির সংসদে ভোটাভুটি অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।
nagad

দেশটির সরকার ইংল্যান্ডে ভ্যাকসিন পাসপোর্ট কার্যক্রম আপাতত বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে। করোনাভাইরাসের নতুন ঢেউয়ের ধাক্কা সামলাতে এসব পদক্ষেপ জরুরি বলে দেশটির স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে।

ব্রিটিশ স্বাস্থ্যমন্ত্রী স্কাই নিউজকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন, সরকার যেসব পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে, সেগুলো সব আনুপাতিক এবং ভারসাম্যপূর্ণ। আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্য এসব বিধি-নিষেধ প্রত্যাহার করে নেওয়া হতে পারে বলে প্রত্যাশা করেছেন তিনি।

রোববার স্কাই নিউজের ট্রেভর ফিলিপসকে তিনি বলেছেন, আগামী বড়দিন সম্পর্কে নিশ্চয়তা দেওয়াটা দায়িত্বজ্ঞানহীন হবে। তবে এ ব্যাপারে লোকজনের পরিকল্পনা চালিয়ে যাওয়া উচিত। আমি মনে করি, এবারের বড়দিন দুর্দান্ত হতে যাচ্ছে।

সাজিদ জাভিদ বলেছেন, ব্রিটেনের চার জাতির সঙ্গে চুক্তি অনুযায়ী, আগত বিদেশিদের করোনা পরীক্ষা এবং অন্যান্য সব কঠোর বিধি-নিষেধ শিগগিরই বাস্তবায়ন করা হবে।

ব্রিটেনের এই মন্ত্রী বলেছেন, বাসায় থেকে কাজ করার নিয়ম অথবা সামাজিক দূরত্ব বিধি পুনরায় আরোপের মতো অবস্থায় নেই তার দেশ। এ ধরনের পদক্ষেপে অর্থনৈতিক, সামাজিক এবং মানসিক স্বাস্থ্যের দিক থেকে চড়া মাশুল দিতে হয় বলে যুক্তি দিয়েছেন ব্রিটিশ এই স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

এর আগে শনিবার দেশটিতে দু’জনের শরীরে করোনাভাইরাসের নতুন ধরন ওমিক্রন শনাক্ত হয়। এরপরই নতুন বিধি-নিষেধের ঘোষণা দেওয়া হলো। দেশটির কর্মকর্তারা বলেছেন, ওমিক্রন আক্রান্ত দু’জনের সঙ্গে দক্ষিণ আফ্রিকা ভ্রমণের সম্পর্ক আছে।

বিশ্বজুড়ে ব্যাপক তুলকালাম ফেলে দেওয়া ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্ট গত বুধবার প্রথমবারের মতো দক্ষিণ আফ্রিকায় শনাক্ত হয়। দক্ষিণ আফ্রিকায় শনাক্ত করোনার এই নতুন ধরন তার স্পাইক প্রোটিনে অন্তত ৩০ বার বদল ঘটিয়েছে; যে কারণে এই ধরনটি অন্যান্য ভ্যারিয়েন্টের তুলনায় বিপজ্জনক এমনকি করোনা টিকাকেও ফাঁকি দিতে পারে বলে অনেকে আশঙ্কা করেছেন।
0 Share Comment
Deshi Group
28 November 2021, 22:04

২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীদের বিষয়,
গ্রুপ, শিফট ভার্সন, ছবি পরিবর্তন, ভর্তি বাতিল এবং অনলাইন টিসি ও বিটিসি
কার্যক্রমের মেয়াদ ১৩ ডিসেম্বর পর্যন্ত বাড়িয়েছে ঢাকা বোর্ড। বোর্ড থেকে
বিষয়টি জানিয়ে উচ্চমাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোকে চিঠি পাঠানো
হয়েছে। 

এতে বোর্ড বলছে, শিক্ষার্থী, অভিভাবক এবং
শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধানদের আবেদনের প্রেক্ষিতে ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে একাদশ
শ্রেণিতে ভর্তিকৃত শিক্ষার্থীদের বিষয়, গ্রুপ, শিফট ভার্সন, ছবি
পরিবর্তন, ভর্তি বাতিল এবং অনলাইন টিসি ও বিটিসি কার্যক্রমের মেয়াদ ২১
নভেম্বর থেকে ১৩ ডিসেম্বর পর্যন্ত বৃদ্ধি করা হলো।


এ তারিখের পর আর কোনক্রমেই সময় বৃদ্ধি করা হবে না বলেও চিঠিতে জানিয়েছে ঢাকা বোর্ড।

0 Share Comment
Deshi Group
28 November 2021, 22:03

নৌকাকে হারিয়ে জিতলেন তৃতীয় লিঙ্গের ঋতু

নৌকাকে হারিয়ে জিতলেন তৃতীয় লিঙ্গের ঋতু | ছবি : সংগৃহীত


ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে তৃতীয় লিঙ্গ চেয়ারম্যান প্রার্থী জয়ী হয়েছে। উপজেলার ৬নং ত্রিলোচনপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে বড় ব্যবধানে জয়ী হয়েছেন নজরুল ইসলাম ঋতু। তার প্রতীক ছিল আনারস। এ ইউনিয়নে নৌকা প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন নজরুল ইসলাম ছানা ও হাতপাখা প্রতীকের মাহবুবুর রহমান।

রোববার (২৮ নভেম্বর) অনুষ্ঠিত ভোটে আনারস প্রতিকে নজরুল ইসলাম ঋতু ৯৫৩৮ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী নৌকা প্রতীকের নজরুল ইসলাম ছানা পেয়েছেন ৪৪০৪ ভোট। বিজয়ী চেয়ারম্যান ঋতু উপজেলার ত্রিলোচনপুর ইউনিয়নের দাদপুর গ্রামের মৃত আব্দুল কাদেরের সন্তান। তার আরও তিন ভাই ও তিন বোন রয়েছে। তিন ভাই ঢাকাতে থাকেন এবং বোনদের বিয়ে হয়ে গেছে।

জন্মের পর তৃতীয় লিঙ্গ প্রকাশ পাওয়ায় ৭ বছর বয়সে তাকে গ্রাম ছেড়ে ঢাকা চলে যেতে হয়। সামান্য লেখাপড়া করলেও সামাজিক নানা প্রতিবন্ধকতায় প্রাথমিকের গণ্ডি পেরোনো হয়নি। ছোটবেলা থেকেই ঢাকার ডেমরা থানায় তার দলের গুরুমার কাছেই বেড়ে উঠা। এখন তার বয়স ৪৩ বছর।

ঢাকায় থাকলেও পরিবারের টানে প্রায়ই বাড়িতে আসেন। তার কষ্টার্জিত জমানো অর্থ দিয়ে বিগত প্রায় ১৫ বছর ধরে জন্মস্থান দাদপুর গ্রামসহ ইউনিয়নবাসীর উন্নয়নে আর্থিক সহযোগিতা করছেন। এ পর্যন্ত তার এলাকায় দুইটি মসজিদ করেছেন। এছাড়া বিভিন্ন মন্দিরের উন্নয়নে দান করেছেন অর্থ।

নির্বাচন প্রসঙ্গে নজরুল ইসলাম ঋতু বলেন, সত্যি কথা বলতে নির্বাচন কী তা বুঝিনি। এলাকার মানুষ আমাকে ভালোবেসে দাড় করিয়েছিল। আমার পরিবারের সবাই আওয়ামী লীগ করে। আমার বাবা মারা যাওয়ার সময় বলেছিলেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান দেশের জন্য অনেক কিছু করেছেন, দেশ স্বাধীন করেছেন। তাই যতদিন তোরা বেঁচে থাকবি আওয়ামী লীগের বাইরে যাবি না, নৌকায় ভোট দিবি। প্রয়াত বাবার কথায় নৌকায় ভোট দিলেও কখনো সক্রিয়ভাবে রাজনীতি করা হয়নি।

এর আগে গত উপজেলা নির্বাচনে পার্শ্ববর্তী উপজেলা কোটচাঁদপুরের পিংকি খাতুন নামে এক তৃতীয় লিঙ্গ উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। সে দেশের মধ্যে তৃতীয় লিঙ্গের প্রথম জনপ্রতিনির স্বীকৃতি পায়।
0 Share Comment
আরও খুজুন। এজন্য নিচের বক্সে লিখে এন্টার চাপুন অথবা সার্চ আইকনে ক্লিক করুন। Find out more. To do this, type in the box below and press Enter or click on the search icon.
$
$

Image Product Price
Buy Fashionable Women Wrist Watch & Bracelet 1 100.00 BDT each
+
Add to cart
Race Digital BP Monitor 1 390.00 BDT each
+
Add to cart
Buy Hot Water Tap 2 250.00 BDT each
+
Add to cart
Cell Phone Signal Booster 480.00 BDT each
+
Add to cart
Buy Bathroom Toilet Rack 2 200.00 BDT each 11 items in stock
+
Add to cart
M10 Bluetooth Earbuds 1 000.00 BDT each
+
Add to cart
Buy Doi Maker 800.00 BDT each
+
Add to cart
Buy Baby Bouncer Chair 1 350.00 BDT each
+
Add to cart
Infrared Body Massager 1 000.00 BDT each
+
Add to cart
Buy Fabric Storage Wardrobe 2 150.00 BDT each
+
Add to cart
MINI WIFI CAMERA A9 1 000.00 BDT each
+
Add to cart
Buy Lemon Spray 220.00 BDT each
+
Add to cart
Buy Hot Water Shower 1 200.00 BDT each
+
Add to cart
Buy Cloth Rack 3 layer 2 750.00 BDT each
+
Add to cart
Kids Education Books 6 600.00 BDT each
+
Add to cart
Buy Hot Water Tap Analog 2 300.00 BDT each
+
Add to cart
Buy Benice Facial Sauna 1 650.00 BDT each
+
Add to cart
Buy Multipurpose Silicon hand gloves 1 pair 500.00 BDT each
+
Add to cart
Buy Easy Carry 510.00 BDT each
+
Add to cart
Buy Electric Instant Hot Water 2 000.00 BDT each
+
Add to cart
Buy Power Floss Teeth 650.00 BDT each
+
Add to cart
Buy Electric Popcorn Maker 2 000.00 BDT each
+
Add to cart
Magic Top Dredge Forming Cleaner 500.00 BDT each
+
Add to cart
Buy Self-Suction Sit Up Bars 910.00 BDT each 11 items in stock
+
Add to cart