অনলাইন শপিং,ফ্রিল্যান্সিং ও অন্যান্য কাজ করার জন্য এই ওয়েবসাইটে একটি একাউন্ট থাকতে হবে। একাউন্ট খোলা মানেই টাকা দিতে হবে এমন না। ফ্রিল্যান্সার অথবা বায়ার, এর যে কোন একটি চয়েজ করে একাউন্ট তৈরি করতে হবে।অথবা শপিং সেকশনের যে কোন প্রোডাক্টের এ্যাড টু কার্ট বাটনে ক্লিক করেও আপনি একাউন্ট তৈরি করতে পারবেন।সাইনআপ করুন এবং কাজ পোষ্ট করুন। ফ্রিল্যান্সারগণ কাজ খুজুন ও বিড করুন।একাউন্ট তৈরি হলে আপনি আপনার দেয়া ইউজার আইডি ও পাসওর্য়াড ব্যবহার করে সাইটে লগইন করতে পারবেন। You must have an account on this website for online shopping, freelancing and other activities. Opening an account does not mean that you have to pay. Freelancer or buyer, you have to create an account by choosing one of them. Or you can create an account by clicking on the add to cart button of any product in the shopping section.Sign up and post work. Freelancers find work and bid. Once the account is created, you can login to the site using your given user ID and password.

We have 80 guests and no members online

All Posts

4786 posts found

Bakar
09 October 2020, 17:30

কয়েক দিন আগেই কোয়ারেন্টিন-জটিলতায় শ্রীলঙ্কা সফর স্থগিত হয়ে গেছে বাংলাদেশের। সে সফরের জায়গায় শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট পরিকল্পনা করেছিল ফ্র্যাঞ্চাইজি টি-টোয়েন্টি আসর লঙ্কান প্রিমিয়ার লিগের (এলপিএল)। ক্রিস গেইল, ড্যারেন স্যামি, ড্যারেন ব্রাভো, শহীদ আফ্রিদি এবং বাংলাদেশের সাকিব আল হাসানের মতো তারকারাও ছিলেন এলপিএলের নিলাম-তালিকায়। কিন্তু সেই নিলামই এখন স্থগিত হয়ে গেল করোনার কারণে।

দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলির মধ্যে শ্রীলঙ্কা ছিল করোনা প্রতিরোধে অন্যতম সফল। ভারত, বাংলাদেশ, পাকিস্তান, নেপাল যেমন করোনা মহামারিতে বিপর্যস্ত, শ্রীলঙ্কা ছিল ঠিক উল্টো জায়গাতে। দ্বীপরাষ্ট্রটিতে করোনারোগী কিংবা করোনা মৃত্যুর সংখ্যা খুবই কম। গত ৬ মাসে শ্রীলঙ্কায় করোনায় মৃত্যু হয়েছে মাত্র ১৩জনের। করোনা রোগীর সংখ্যাও ৪,৫০০—আশপাশের দেশগুলোর তুলনায় সংখ্যাটা যথেষ্ট স্বস্তিরই ছিল।

করোনা নিয়ে শ্রীলঙ্কার স্বস্তিতে এবার ছেদ পড়ল। গত ৭২ ঘণ্টায় করোনা রোগীর সংখ্যা বেড়েছে। রাজধানী কলম্বোর কাছেই একটি কারখানায় একসঙ্গে ১০০০ করোনারোগী শনাক্ত হওয়ার পর আবার নড়েচড়ে বসেছে শ্রীলঙ্কা সরকার। গত ছয় মাসে এক সঙ্গে এত মানুষের করোনা আক্রান্ত হওয়ার ঘটনা আর ঘটেনি। এর ফলে নতুন করে শুরু হয়েছে লকডাউন, স্বাস্থ্যবিধিতেও আরোপ করা হয়েছে কড়াকড়ি। বিভিন্ন অনুষ্ঠানাদিও আপাতত স্থগিত করা হয়েছে। শুক্রবার এলপিএলের যে ‘প্লেয়ার ড্রাফট’ অনুষ্ঠান হওয়ার কথা ছিল, স্থগিত হয়ে গেছে সেটাও।
শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটের একজন মুখপাত্র বার্তা সংস্থা এএফপিকে জানিয়েছে, ‘স্বাস্থ্য পরিস্থিতির অবনতি হওয়ায় খেলোয়াড় ড্রাফটের অনুষ্ঠানটি আপাতত হবে না।’ তিনি জানিয়েছেন স্বাস্থ্য পরিস্থিতির উন্নতি হলে আগামী ১৯ অক্টোবর এই প্লেয়ার ড্রাফট আয়োজনের এক সম্ভাবনা আছে।
এলপিএল এর আগে গত আগস্টে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। অনিবার্য কারণে সেটি পিছিয়ে নভেম্বরের ১৪ তারিখে শুরু হওয়ার দিন ধার্য করা হয়েছিল। পরে সেটি সেই তারিখও বদলে ২১ নভেম্বর ঠিক হয়েছে।

0 Share Comment
Bakar
09 October 2020, 17:29

দেশে বছরে একজন ডিম খায় ১০৪টি

দেশে বছরে একজন ডিম খায় ১০৪টি
বাংলাদেশে বছরে একজন মানুষ গড়ে ডিম খায় ১০৪টি। সবচেয়ে কম দামে প্রোটিন পাওয়া যায় ডিম থেকে। ডিমের গুরুত্ব তুলে ধরতে স্কুলে পাঠ্যসূচির পাশাপাশি মিড-ডে মিলে ডিম অন্তর্ভুক্ত করার আহ্বান জানিয়েছেন পোলট্রি খাতের সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা।

আজ শুক্রবার বিশ্ব ডিম দিবস। এ বছরের প্রতিপাদ্য ‘প্রতিদিন ডিম খাই, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াই’। দিবসটি উপলক্ষে প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তর, বাংলাদেশ পোলট্রি ইন্ডাস্ট্রিজ সেন্ট্রাল কাউন্সিল (বিপিআইসিসি) এবং ওয়ার্ল্ড’স পোলট্রি সায়েন্স অ্যাসোসিয়েশন-বাংলাদেশ শাখা একটি ভার্চ্যুয়াল আলোচনা সভার আয়োজন করে।

সভায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের পোলট্রি সায়েন্স বিভাগের শিক্ষক শওকত আলী। সেখানে বলা হয়, গত ১০ বছরে দেশে ডিমের উৎপাদন বেড়েছে ২ দশমিক ৮৬ গুণ। বছরে দেশে মাথাপিছু ডিম খাওয়ার পরিমাণ এখন ১০৪টি। ২০৩০ সাল নাগাদ এ সংখ্যা ১৬৫টিতে উন্নীত হবে।


ডিমের নানা পুষ্টিগুণ তুলে ধরে বলা হয়, ডিমের কুসুমের মধ্যে বেশি পুষ্টি উপাদান আছে, তাই কুসুম খাওয়া বাদ দেওয়া যাবে না।

প্রবন্ধে ইউনাইটেড স্টেটস ডিপার্টমেন্ট অব অ্যাগ্রিকালচার (ইউএসডি) এর গবেষণার সূত্র দিয়ে বলা হয়, প্রোটিন জাতীয় খাবারের মধ্যে ডিম হচ্ছে সহজলভ্য ও গুরুত্বপূর্ণ উৎস। সবচেয়ে কম দামে প্রোটিন পাওয়া যায় ডিম থেকে। একজন সুস্থ ব্যক্তি দিনে তিনটি ডিম খেতে পারবে। ডিম সব বয়সীর জন্য উপকারী। করোনা প্রতিরোধের জন্য ভিটামিন-ডি বেশি প্রয়োজন। আর ডিম হচ্ছে ভিটামিন ডির বড় উৎস।

বিপিআইসিসির সভাপতি মসিউর রহমান ডিমকে পাঠ্যসূচিতে এবং স্কুলের মিড-ডে মিলে অন্তর্ভুক্ত করতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিব রওনক মাহমুদ বলেন, ডিমের বাজার এখন ১২ হাজার কোটি টাকার বেশি। অনেক প্রবাসী দেশে ফিরে এসেছেন। তাঁদের এই পোলট্রি শিল্পের সঙ্গে যুক্ত করার চিন্তা হচ্ছে।


স্কুলে মিড-ডে মিলে ডিমকে অন্তর্ভুক্ত করার বিষয়ে সচিব বলেন, এ বিষয়ে তিনি প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ে কথা বলবেন। পাঠ্যসূচিতে অন্তর্ভুক্ত করার বিষয়টিও শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে আলোচনা করবেন বলে জানান। ডিমকে কীভাবে আরও সহজলভ্য করা যায়, সে বিষয়ে ভাবার জন্য আহ্বান জানান সচিব।

প্রাণিসম্পদ গবেষণা ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক নাথু রাম সরকার বলেন, দেশে পুষ্টি ব্যবস্থার অনেক উন্নতি ঘটেছে। ডিম খাওয়ার প্রবণতা মানুষের মধ্যে বেড়েছে। ২০১০ সালে ডিমের উৎপাদন ছিল ৬০০ কোটি এখন সেটা ১ হাজার ৭৩৬ কোটি। এ ছাড়া বলেন, বাংলাদেশে নকল ডিমের কোনো অস্তিত্ব নেই।

বিপিআইসিসির সভাপতি মসিউর রহমানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন ওয়ার্ল্ড পোলট্রি সায়েন্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি লুৎফে ফজলে রহিম খান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের খাদ্য ও পুষ্টিবিজ্ঞান ইনস্টিটিউটের শিক্ষক খালেদা ইসলাম ও কয়েকজন জেলা ও উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা।
0 Share Comment
Bakar
09 October 2020, 17:27

২০২০ সালে শান্তিতে নোবেল পেয়েছে জাতিসংঘের বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচি (ডব্লিউএফপি)। বিবিসি অনলাইনের প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়।
আজ শুক্রবার নরওয়ের রাজধানী অসলো থেকে নরওয়েজিয়ান নোবেল কমিটি শান্তিতে এবারের নোবেল পুরস্কার বিজয়ীর নাম ঘোষণা করে।
ক্ষুধা নিরসনে অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে ডব্লিউএফপিকে এই পুরস্কার দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে নরওয়েজিয়ান নোবেল কমিটি। তারা বলেছে, যুদ্ধ ও সংঘাতের অস্ত্র হিসেবে ক্ষুধার ব্যবহার রোধের প্রয়াসে চালিকাশক্তি হিসেবে কাজ করেছে ডব্লিউএফপি।
নরওয়েজিয়ান নোবেল কমিটির এবারের শান্তির নোবেল পুরস্কারজয়ীর নাম ঘোষণার প্রতিক্রিয়ায় ডব্লিউএফপি মুখপাত্র বলেছেন, ‘এটা একটা গর্বের মুহূর্ত।’
গত বছর শান্তিতে নোবেল পুরস্কার পান ইথিওপিয়ার প্রধানমন্ত্রী আবি আহমেদ আলী। শান্তি ও আন্তর্জাতিক সহযোগিতার জন্য তাঁকে এ পুরস্কার দেওয়া হয়।
নোবেল পুরস্কারের অর্থমূল্য ১০ মিলিয়ন সুইডিশ ক্রোনা।
শান্তিতে নোবেলজয়ীকে নির্বাচনের দায়িত্ব নরওয়েজিয়ান নোবেল কমিটির। সব নোবেল পুরস্কার সুইডেনের স্টকহোম থেকে ঘোষণা দেওয়া হলেও শান্তি পুরস্কার ঘোষণা দেওয়া হয় নরওয়ের অসলো থেকে। কাজটি আলফ্রেড নোবেলের ইচ্ছাপত্র অনুযায়ীই করা হয়।
সাধারণত প্রতিবছর ১০ ডিসেম্বর সুইডেনের স্টকহোমে জাঁকজমকপূর্ণ আয়োজনের মাধ্যমে বিজয়ীদের হাতে নোবেল পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়। করোনাভাইরাসের অতিমারির কারণে এ বছর সে অনুষ্ঠান বাতিল করা হয়েছে।

0 Share Comment
Bakar
07 October 2020, 17:00

বঙ্গবন্ধুর আত্নজীবনী প্রকাশের পর কোনো অপচেষ্টা সফল হয়নি : প্রধানমন্ত্রী

বঙ্গবন্ধুর আত্নজীবনী প্রকাশের পর কোনো অপচেষ্টা সফল হয়নি : প্রধানমন্ত্রী
জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অসমাপ্ত আত্মজীবনী প্রকাশের পর ইতিহাস বিকৃতির হাত থেকে জাতি কিছুটা রক্ষা পেয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, ৭৫ পরবর্তী সময়ে ইতিহাস থেকে বঙ্গবন্ধুর নাম মুছে ফেলার অপচেষ্টা হয়েছে। বঙ্গবন্ধুর আত্নজীবনী প্রকাশের পর এই অপচেষ্টা সফল হয়নি।

আজ বুধবার সকালে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অসমাপ্ত আত্মজীবনী’র ব্রেইল সংস্করণের মোড়ক উম্মোচন করেন প্রধানমন্ত্রী। পরে নিজের বক্তব্যে এ কথা বলেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘পঁচাত্তরে বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর বাংলাদেশের স্বাধীনতার সংগ্রামের ইতিহাস এমনকি বাহান্নতে বাংলাদেশের ভাষা আন্দোলনের ইতিহাস বিকৃত করা হয়েছিল, তার নাম যেসব জায়গা থেকে মুছে ফেলা হয়েছিল এই বইটি প্রকাশ হওয়ার পর সেই ইতিহাস বিকৃতির হাত থেকে আমরা রক্ষা করতে পারি।’

১৯৬৭ সালের মাঝামাঝি সময়ে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে বন্দী থাকাকালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এটি লেখা শুরু করেছিলেন। ২০১২ সালের ১২ জুন বইটি প্রকাশিত হয়।

সমাজ কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে ছয় খণ্ডে বইটি প্রকাশ করা হয়েছে। এ বইয়ের সংস্করণ দৃষ্টি প্রতিবন্ধীদের জন্য প্রকাশ করা হয়েছে। বইটি যেন সব লাইব্রেরিতে পাওয়া যায় সে নির্দেশও দেন প্রধানমন্ত্রী।

0 Share Comment
Bakar
07 October 2020, 16:57

করোনাভাইরাস সংক্রমিত কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত হয়ে দেশে গত ২৪ ঘণ্টায়
আরও ৩৫ জন মারা গেছে। এ নিয়ে এখন পর্যন্ত করোনা শনাক্ত হয়ে মারা গেছে ৫
হাজার ৪৪০ জন। আজ বুধবার দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ
তথ্য জানানো হয়।
সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় ১০৯টি
পরীক্ষাগারে নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ১৩ হাজার ৩২টি। এতে রোগী শনাক্ত হয়েছে ১
হাজার ৫৪০ জন। এ নিয়ে দেশে এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে মোট ৩
লাখ ৭৩ হাজার ১৫১ জনের। এ ছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন আরও ১ হাজার
৭৯৮ জন। এ নিয়ে মোট সুস্থ হয়েছেন ২ লাখ ৮৬ হাজার ৬৩১ জন।
উল্লেখ্য, গত ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়। আর ১৮ মার্চ প্রথম একজনের মৃত্যু হয়

0 Share Comment
Bakar
07 October 2020, 16:55

করোনাভাইরাসের সংক্রমণের ঝুঁকি
এড়াতে এবছর উচ্চমাধ্যমিক তথা এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা বাতিল করা হয়েছে।
পরীক্ষা সরাসরি হবে না বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। আজ
বুধবার দুপুর ১টায় এ বিষয়ে গণমাধ্যমকে অনলাইনে দেওয়া ব্রিফিংয়ে এ কথা জানান
তিনি। এ সময় এইচএসসি-সমমান মূল্যায়ন ভিন্নভাবে করা হবে বলেও তিনি জানান।
এইচএসসি-সমমানের ফলাফলের ক্ষেত্রে জেএসসি ও এসএসসির ফলাফল মূল্যায়ন করা হবে। আগামী ডিসেম্বরে ফলাফল ঘোষণার কথাও জানিয়েছেন মন্ত্রী।
শিক্ষামন্ত্রী
বলেন, ‘কোনো শিক্ষার্থী পরীক্ষা চলাকালীন করোনা আক্রান্ত হয় বা তার
পরিবারের কেউ আক্রান্ত হয় তাহলে কীভাবে পরীক্ষা চলবে। এ নিয়ে আমরা ভেবেছি।
বিভিন্ন বিশেষজ্ঞের সাথে আলাপ আলোচনা করে পরীক্ষার্থী ও সংশ্লিষ্টদের
নিরাপত্তার কথা বিবেচনা করে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। ফলাফল মূল্যায়নের
জন্য একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। দীপু
মনি বলেন, ‘২০২০ সালের এইচএসসি পরীক্ষা সরাসরি গ্রহণ না করে ভিন্ন
পদ্ধতিতে মূল্যায়নের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এরা দুটি পাবলিক পরীক্ষা অতিক্রম
করে এসেছে। এদের জেএসসি ও এসএসসির ফলের গড় অনুযায়ী এইচএসসির ফল নির্ধারণ
করা হবে। ডিসেম্বরের মধ্যে তারা এইচএসসির চূড়ান্ত মূল্যায়ন ঘোষণা করতে চান,
যাতে জানুয়ারি থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি প্রক্রিয়া শুরু হতে পারে।’
এক প্রশ্নের উত্তরে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘গতবার যারা ফেল করেছে, তাদেরও জেএসসি ও এসএসসির ফলের ভিত্তিতে মূল্যায়ন করা হবে।’
এর
আগে গত ৩০ সেপ্টেম্বর শিক্ষাবিষয়ক রিপোর্টারদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায়
শিক্ষামন্ত্রী জানিয়েছিলেন, ৬ অক্টোবর বা ৭ অক্টোবর পরীক্ষার তারিখ জানানো
হবে। ওইদিন তিনি বলেন, শিক্ষার্থীদের ২৮ দিন সময় দিয়ে পরীক্ষার তারিখ ঘোষণা
করা হবে।
উল্লেখ্য, করোনার কারণে গত ১৭ মার্চ থেকে আগামী ৩১ অক্টোবর
পর্যন্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। গত ১ এপ্রিলে এইচএসসি পরীক্ষা
শুরুর কথা ছিল। করোনার কারণে তা স্থগিত করা হয়।


0 Share Comment
Bakar
07 October 2020, 16:54

এইচএসসিতে গত বছরের অকৃতকার্যদের ফলাফল মূল্যায়ন হবে যেভাবে

এইচএসসিতে গত বছরের অকৃতকার্যদের ফলাফল মূল্যায়ন হবে যেভাবে
২০২০ সালের এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা হবে না, মূল্যায়ন হবে ভিন্ন পদ্ধতিতে। আর ফলাফল জানানো হবে ডিসেম্বরের মধ্যে। আজ বুধবার দুপুর ১টার দিকে এইচএসসি পরীক্ষার বিষয়ে অনলাইনে ব্রিফিংয়ে এ কথা জানান শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘এ বছর এইচএসসি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে না। শিক্ষার্থীর এসএসসি ও জেএসসি’র পরীক্ষার ফলাফল গড় বিবেচনা করে এইচএসসি’র পরীক্ষার ফলাফল ঘোষণা করা হবে। এ ছাড়া যারা গত বছর এক বা একাধিক বিষয়ে ফেল করেছে তাদের ফলাফলও এসএসসি ও জেএসসি’র ফলাফলের ভিত্তিতে বিবেচনা করা হবে।’

দীপু মনি বলেন, ‘কোনো শিক্ষার্থী পরীক্ষা চলাকালীন যদি করোনা আক্রান্ত হয় বা তার পরিবারের কেউ আক্রান্ত হয় তাহলে কীভাবে পরীক্ষা চলবে। এ নিয়ে আমরা ভেবেছি। বিভিন্ন বিশেষজ্ঞের সঙ্গে আলাপ আলোচনা করে পরীক্ষার্থী ও সংশ্লিষ্টদের নিরাপত্তার কথা বিবেচনা করে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।’

ফলাফল মূল্যায়নের জন্য একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে জানিয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘যারা বিভাগ পরিবর্তন করেছে, তারা মনে করতে পারে যে জেএসসি এবং এসএসসি পরীক্ষার ফলাফলের ওপর মূল্যায়ন করলে তাদের মূল্যায়ন সঠিক হবে না। ফলাফল মূল্যায়নের বিষয়ে আমরা একটি বিশেষজ্ঞ কমিটি গঠন করেছি। এই কমিটিতে আমাদের মন্ত্রণালয়ের (শিক্ষা মন্ত্রণালয়) একজন অতিরিক্ত সচিব আহ্বায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন। ঢাকা বোর্ডের চেয়ারম্যান, যিনি সকল বোর্ডের সমন্বয়কের দায়িত্ব পালন করেন, তিনি এই পরামর্শক কমিটির সদস্য সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।’

কমিটির অন্যান্য সদস্যদের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘কমিটিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, বুয়েট, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়, স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তরের একজন করে প্রতিনিধি এবং কারিগরি শিক্ষা বোর্ড ও মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান থাকবেন।’

‘আমরা আশা করছি এই সকল বিষয় বিবেচনায় নিয়ে এ বছর ডিসেম্বরের মধ্যে চূড়ান্ত ফলাফল ঘোষণা করব। যাতে জানুয়ারি থেকে শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি শুরু হতে পারে,’ যোগ করেন দীপু মনি।

এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ‘অসুস্থতার কারণে হোক বা অন্য কোনো কারণে হোক তার পরীক্ষাটা ভালো নাও হতে পারত। হতে কী পারে, কী হতে পারত সেরকম অনেক প্রশ্ন থাকতেই পারে। সেগুলো সব বিবেচনায় নেওয়ার সুযোগ নেই। আমাদের কাছে দুটি পাবলিক পরীক্ষার ফলাফল আছে। এর বাইরে যদি অন্য কোনো ধরনের মূল্যায়নে যেতে হয়, সেটি এই ১৩ লাখ পরীক্ষার্থী নিয়ে এই মুহূর্তে, এই পরিস্থিতিতে যাওয়া সম্ভব নয়। আবার টেস্ট পরীক্ষার ফলাফল মূল্যায়নে নেব কিনা প্রশ্ন করতে পারেন। সেখানেও তো অনেক ধরনের সমস্যা আছে। এই মুহূর্তে প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে সেই ফলাফল নিতে গেলে সেখানেও নানান ধরনের জটিলতার উদ্ভব হতে পারে।’

মূল্যায়নে জেএসসি এবং এসএসসির কোনটি থেকে কত শতাংশ নম্বর নেওয়া হবে জানতে চাইলে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, সেটি পরামর্শক কমিটি সিদ্ধান্ত নেবেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পদ্ধতি সম্পর্কে দীপু মনি বলেন, ‘আমরা তো আশা করছি এবার সমন্বিত পদ্ধতিতেই সকল ধরনের বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা নিতে পারব। সেই পরীক্ষাগুলো কিভাবে হবে সেটি বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে আলোচনা করেই এবং তখনকার কোডিভ পরিস্থিতি বিবেচনায় সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে।’

উল্লেখ্য, করোনার কারণে গত ১৭ মার্চ থেকে আগামী ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। গত ১ এপ্রিলে এইচএসসি পরীক্ষা শুরুর কথা ছিল। করোনার কারণে তা স্থগিত করা হয়।

0 Share Comment
Online Desk
07 October 2020, 13:39

টিভিতে আজকের খেলা
#ক্রিকেট:
>আইপিএল ২০২০
>কলকাতা নাইট রাইডার্স-চেন্নাই সুপার কিংস
>সরাসরি, রাত ৮টা
>গাজী টিভি, স্টার স্পোর্টস সিলেক্ট ১
# টেনিস:
>ফ্রেঞ্চ ওপেন
>সরাসরি, বিকেল ৪টা
>স্টার স্পোর্টস ২

0 Share Comment
Online Desk
07 October 2020, 13:35

আইপিএলে ক্যারিয়ারের সেরা বোলিং বুমরাহর

আইপিএলে ক্যারিয়ারের সেরা বোলিং বুমরাহর
চলতি আইপিএল আসরে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের অন্যতম বোলিং অস্ত্র লাসিথ মালিঙ্গা নেই। তার অনুপস্থিতিতে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের বোলিং আক্রমণের মূল দায়িত্ব পড়েছে এবার জাসপ্রিত বুমরাহর কাঁধে। গত কয়েক ম্যাচে সেভাবে জ্বলে উঠতে পারেননি এই ভারতীয় পেসার। নিজেকে ফিরে পেলেন রাজস্থান রয়্যালসের বিপক্ষে। শুধু ফেরা না রীতিমতো নিজের ক্যারিয়ার সেরা বোলিং করে ফেললেন এই পেসার। আইপিএলে নিজের সেরা বোলিং করে জানিয়ে দিলেন ফুরিয়ে যাননি তিনি।

মঙ্গলবার (৯ অক্টোবর) আবুধাবির শেখ জায়েদ স্টেডিয়ামে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের জয়ের অন্যতম কারিগর ছিলেন বুমরাহ। ১৯৪ রান তাড়া করতে নেমে তার দুর্দান্ত বোলিংয়ে ১৩৬ রানে গুটিয়ে যায় রাজস্থান রয়্যালস।

বুমরাহ ব্যক্তিগত ৪ ওভার বোলিং করে ২০ রান খরচায় নিয়েছেন ৪ উইকেট। আইপিএলে এটিই তার সেরা বোলিং ফিগার। এর আগে ২০১৭ আসরে কলকাতা নাইট রাইডার্সের বিপক্ষে ৩ ওভারে ৭ রান দিয়ে ৩ উইকেট নিয়েছিলেন বুমরাহ।

প্রথম চার ম্যাচে ৬ উইকেট নিয়েছেন বুমরাহ। কিন্তু রান দেয়ার ক্ষেত্রে ছিলেন ব্যয়বহুল। এক ম্যাচে ৪১ রান দিয়ে পেয়েছেন ২ উইকেট। আরেক ম্যাচে ৪২ রান দিয়েও উইকেটের দেখা পাননি।
0 Share Comment
Online Desk
07 October 2020, 13:33

ধর্ষণের প্রতিবাদে উত্তাল সারাদেশ, ধর্ষকদের বিচারের দাবি

ধর্ষণের প্রতিবাদে উত্তাল সারাদেশ, ধর্ষকদের বিচারের দাবি
নারী, শিশু নির্যাতন ও ধর্ষণের প্রতিবাদে গতকালও দেশের বিভিন্ন স্থানে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।
নোয়াখালী : নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে গৃহবধূকে বিবস্ত্র করে নির্যাতন ও ভিডিও ধারণসহ দেশব্যাপী নারী, শিশু ধর্ষণ এবং নির্যাতনের প্রতিবাদে গতকাল দ্বিতীয় দিনের মতো উত্তাল ছিল নোয়াখালী। সকালে নোয়াখালী প্রেস ক্লাব, জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনের সড়ক ও মাইজদী প্রধান সড়কে বিক্ষোভ মিছিল, মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে জেলা শহর মাইজদীসহ জেলার বিভিন্ন উপজেলায় মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন।
মানববন্ধন শেষে নোয়াখালীতে গৃহবধূকে বিবস্ত্র নির্যাতনসহ দেশব্যাপী নারী-শিশু ধর্ষণ ও নির্যাতনের ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত ও বিচারের দাবিতে জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার বরাবর স্মারকলিপি দেয়া হয়।

ফরিদপুর : ধর্ষণের প্রতিবাদে ফরিদপুরে মানববন্ধন করেছে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজের (ফমেক) শিক্ষার্থীরা। গতকাল ফরিদপুর প্রেস ক্লাবের সামনে এ কর্মসূচি পালন করা হয়। পরে ফরিদপুর জেলা প্রশাসকের কাছে স্মারকলিপি দেয়া হয়। একই সঙ্গে দেশজুড়ে ধর্ষণের ঘটনায় তীব্র উদ্বেগ প্রকাশ করে তারা বলেন, সচেতন নাগরিক বিশেষ করে শিক্ষার্থীদের মাঝে এ কারণে নিরাপত্তাহীনতা বিরাজ করছে।

গোপালগঞ্জ : গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ায় স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণসহ দেশব্যাপী সংঘটিত নারী নির্যাতন, যৌন হয়রানি ও ধর্ষণের প্রতিবাদে এবং নারীর সুরক্ষা নিশ্চিতের দাবিতে গোপালগঞ্জে মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়েছে।
সাধারণ শিক্ষার্থীর ব্যানারে ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা আলাদাভাবে এ কর্মসূচি পালন করে। গতকাল স্থানীয় প্রেস ক্লাবের সামনে বঙ্গবন্ধু সড়কে দাঁড়িয়ে ঘণ্টাব্যাপী মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেন শিক্ষার্থীরা। এতে বিভিন্ন স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা অংশ নেন। পরে তারা জেলা প্রশাসকের কাছে স্মারকলিপি দেন।

জামালপুর : নারী, শিশু ধর্ষণ এবং নির্যাতনের প্রতিবাদে জামালপুরে মানববন্ধন করেছে জেলার বিভিন্ন পর্যায়ের সংস্কৃতি কর্মীরা। গতকাল শহরের দয়াময়ী মোড় চত্বরে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এতে বক্তব্য রাখেন উদীচীর সংস্কৃতি কর্মী মুক্তিযোদ্ধা আলী ইমাম দুলাল, মানবাধিকার কর্মী জাহাঙ্গীর সেলিম, নারী নেত্রী শামীমা খান। ধর্ষণকারীদের জন্য আলাদা ট্রাইব্যুনাল গঠন করে দ্রæত বিচারের মাধ্যমে তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে। অন্যথায় কঠোর আন্দোলনে যাওয়ার হুঁশিয়ারি দেয়া হয় মানববন্ধন থেকে।

রংপুর : বেগমগঞ্জসহ সারাদেশে ধর্ষণ, নিপীড়ন ও সহিংসতা বন্ধ ও ধর্ষকদের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবিতে গতকাল উত্তাল ছিল রংপুরের রাজপথ। ধর্ষকদের শাস্তি চেয়ে মানববন্ধন ও সমাবেশ করেছে বিভিন্ন সংগঠন। সকালে রংপুর প্রেস ক্লাবের সামনে ?ধর্ষণ ও নিপীড়ন বিরোধ ছাত্র-জনতা ও সাধারণ শিক্ষার্থীর ব্যানারে পৃথকভাবে এ কর্মসূচি পালন করা হয়। একই দাবিতে বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে মানববন্ধন সমাবেশ করেছে বহ্নিশিখা ও গ্রিন ভয়েসসহ ২৫টির বেশি সামাজিক সাংস্কৃতিক ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন।

চুয়াডাঙ্গা : চুয়াডাঙ্গায় মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভায় বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন। গতকাল চুয়াডাঙ্গা সরকারি কালেজের সামনে এ কর্মসূচি পালন করা হয়। প্রতিবাদ সভায় বক্তারা বলেন, দেশে ধর্ষণ, নারী নির্যাতন ও হত্যার মতো ঘটনা বন্ধ করতে হবে। ধর্ষণের শাস্তি মৃত্যুদণ্ড নিশ্চিত করতে তারা দাবি তোলেন।

দিনাজপুর : সারাদেশে অব্যাহত হারে বৃদ্ধি পাওয়া ধর্ষণ, নারীর প্রতি সহিংসতাসহ সব ধরনের সামাজিক অনাচারের বিরুদ্ধে দিনাজপুর সামাজিক প্রতিরোধ কমিটি দেশব্যাপী কর্মসূচির অংশ হিসেবে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ কর্মসূচি পালন করেছে। গতকাল মঙ্গলবার দিনাজপুর প্রেস ক্লাবের সামনের সড়কে ঘণ্টাব্যাপী এ প্রতিবাদ কর্মসূচিতে দিনাজপুর সামাজিক প্রতিরোধ কমিটির আহ্বায়ক মো. সফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ দিনাজপুর জেলা শাখার সভাপতি কানিজ রহমান, সচেতন নাগরিক কমিটির সভাপতি জলিল আহমেদ, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সহসভাপতি রেজাউর রহমান রেজু, গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশনের সংগঠন সম্পাদক তারেকুজ্জামান তারেক, উদীচী শিল্পী গোষ্ঠীর সভাপতি হাবিবুল ইসলাম বাবুল, জেলা কমিউনিস্ট পার্টির সাধারণ সম্পাদক মো. বদিউজ্জামান বাদল, দিনাজপুর সামাজিক প্রতিরোধ কমিটির সদস্য সচিব ও মহিলা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক ড. মারুফা বেগম, মহিলা পরিষদের লিগ্যাল এইড সম্পাদক জিন্নুরাইন পারু প্রমুখ।

পূর্বধলা (নেত্রকোনা) : দেশব্যাপী নারী নির্যাতন, হত্যা ও ধর্ষণের প্রতিবাদে নেত্রকোনায় পদযাত্রা, বিক্ষোভ ও জেলা প্রশাসক কার্যালয় ঘেরাও কর্মসূচি পালন করেছে সাধারণ শিক্ষার্থীরা। সোমবার সাধারণ শিক্ষার্থীদের ব্যানারে এ কর্মসূচি পালিত হয়। শিক্ষার্থীরা জেলা শহরের ছোট বাজার থেকে পথযাত্রা শুরু করে জেলা শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে ঘণ্টাব্যাপী অবস্থান কর্মসূচি পালন করে।
বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন জেলা শাখা ও জেলা সদরের বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সাধারণ শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে এ কর্মসূচি পালিত হয়।

রামগঞ্জ (লক্ষীপুর) : বেগমগঞ্জে গৃহবধূর শ্লীলতাহানি ও পৈশাচিক নির্যাতনের প্রতিবাদে লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ উপজেলা ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলনের উদ্যোগে বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার সোনাপুর বড় মসজিদ প্রাঙ্গণ থেকে বিক্ষোভ মিছিলটি শহরের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে পুলিশ বক্সের সামনে প্রতিবাদ সমাবেশে মিলিত হয়।

মাধবপুর (হবিগঞ্জ) : সারাদেশে ধর্ষণ বৃদ্ধির প্রতিবাদে ও ধর্ষকদের বিচারের দাবিতে হবিগঞ্জের মাধবপুরে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল করেছে সামাজিক সংগঠন ফ্রেন্ডস ক্লাব। গতকাল ঢাকা সিলেট মহাসড়কের হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলার সদরে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় ক্লাবের সভাপতি আমান উল্লাহ আমান, সাধারণ সম্পাদক জুয়েল আহাম্মেদ, রিপন, মাহিন, রিয়াজ, দ্বিপ, রনি ও সংগঠনের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। পরে বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি শহরের বিভিন্ন রাস্তা প্রদক্ষিণ করে।

বাউফল (পটুয়াখালী) : দেশজুড়ে ধর্ষণ ও নারী নির্যাতনের প্রতিবাদে বাউফলে বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদ, বাউফল উপজেলা শাখার উদ্যোগে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বাউফল প্রেস ক্লাবের সামনে এ কর্মসূচি পালিত হয়। ছাত্র অধিকার পরিষদের উপজেলা শাখার যুগ্ম আহ্বায়ক মো. জুবায়ের হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মানববন্ধন কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখেন যুগ্ম আহ্বায়ক মো. হাসান মাহমুদ, এমদাদুল হক ও ইমরান হোসেন প্রমুখ।
0 Share Comment
Online Desk
07 October 2020, 13:30

বিশ বছর পর মায়ের বুকে ফিরল আসমা

বিশ বছর পর মায়ের বুকে ফিরল আসমা
বাংলা সিনেমায় নায়ক-নায়িকাদের আজগুবি হারিয়ে যাওয়া ও ফিরে পাওয়ার গল্প নিয়ে অনেক হাসি-ঠাট্টা হয়। শুনুন সত্যিকারের এক হারিয়ে যাওয়া ও ফিরে পাওয়ার গল্প। ২০ বছর আগে ২০০১ সালে চট্টগ্রামে হারিয়ে যাওয়া জোহরা খাতুন আসমা নামের শিশুকে এক পরিবার বাসায় কাজ করাতে পথ থেকে নিয়ে যায়। একদিন মারধর করলে সে ওই বাসা থেকে রাস্তায় বেরিয়ে পড়ে। পরে নোয়াখালীর ফেরদৌসী নামে একজন কান্নারত আসমাকে কয়েক দিন নিজের কাছে রাখেন। কিন্তু কেউ খোঁজ-খবর নিচ্ছেন না দেখে তিনি আসমাকে নিয়ে আসেন নিজের এলাকা নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার একলাছপুর গ্রামে।

তারপর নিয়তি তাকে বিভিন্ন জায়গায় টেনে নিয়েছে। ৫ বছর ছিল নোয়াখালীর টেলিফোন বিভাগের কর্মকর্তা ফরহাদ কিসলুর বাসায়। এরপর আরো ২ বাসায় ৬ বছর থেকে পুনরায় ফরহাদ কিসলুর বাসায় ফিরে আসে। ফরহাদ কিসলুর স্ত্রী ফাতেমা জোহরা সীমা তার বাবার বাড়ি একলাছপুরে পাঠিয়ে দেন আসমাকে।

তখন সীমার বাবার বাড়িতে গৃহ নির্মাণের কাজ চলছিল। ডানপিটে আসমার সঙ্গে এক নির্মাণ শ্রমিকের হৃদয় আদান-প্রদান ঘটলে তারা পালিয়ে যায় চট্টগ্রামে। সেখানে ৩ বছরের দাম্পত্য জীবনে এক মেয়ের জন্ম দেয় আসমা। সংসারে কখনো সুখে কখনো স্বামীর অত্যাচারে জীবন বয়ে যাচ্ছিল। হঠাৎ স্বামী প্রবাসে চলে গেলে আবার নোয়াখালীতে ফিরে আসে আসমা। আশ্রয় নেয় পুনরায় ফরহাদ কিসলুর বাসায়।

এবার জীবনের নানা চড়াই-উৎরাই পেরিয়ে ফিরে আসা আসমার শেকড়ের খোঁজ কিভাবে পাওয়া যায় তার জন্য ফরহাদ কিসলুর স্ত্রী সীমা নোয়াখালীর সিনিয়র সাংবাদিক মেজবাহ উল হক মিঠুর সহযোগিতা চান। সূত্র ছিল নড়াই গ্রাম, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা এটুকুই। সাংবাদিক মিঠু ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরের বিটিভি ও ইত্তেফাক প্রতিনিধির মাধ্যমে তৃতীয়বারের প্রচেষ্টায় খুঁজে পান আসমার পরিবারকে। আসমা ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নবীনগর উপজেলার নড়োই গ্রামের অ¹ান মিয়া ও রোকাইয়া বেগমের মেয়ে। রবিবার দুপুরে নোয়াখালী পৌরসভার বীর মুক্তিযোদ্ধা রবিউল হোসেন কচি মিলনায়তনে পুনঃএকত্রীকরণ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে আসমাকে তার মা রোকাইয়া বেগমের বুকে ফিরিয়ে দেন নোয়াখালী পৌরসভার মেয়র সহিদ উল্যাহ খান সোহেল।

অনুষ্ঠানে জেলার সিনিয়র সাংবাদিক মেজবাহ উল হক মিঠুর সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের উপপরিচালক সাইফুল ইসলাম চৌধুরী, নোয়াখালী সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক ও ব্রাইটার্স টিম অব বাংলাদেশ নোয়াখালী জেলা শাখার উপদেষ্টা নুসরাত জাহান, সিনিয়র সাংবাদিক মনিরুজ্জামান চৌধুরী, নোয়াখালী পৌরসভার কাউন্সিলর জাহিদুর রহমান শামীম। এ সময় আসমাকে আশ্রয় দাতা ফরহাদ কিসলু, তার স্ত্রী ফাতেমা জোহরা সীমা এবং নবীনগর উপজেলার নড়োই গ্রামের সমাজপতি মো. তাজুল ইসলাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

আসমাকে ফিরে পেয়ে হাউমাউ করে কান্নায় ভেঙে পড়েন মা রোকাইয়া বেগম ও ছোট বোন রানু বেগম। এ সময় আসমাও আবেগপ্রবণ হয়ে পড়ে। এ যেন এক আবেগপূর্ণ দৃশ্য!
0 Share Comment
Online Desk
07 October 2020, 13:28

গানে হাদিসের ব্যবহার, ক্ষমা চাইলেন রিয়ানা

গানে হাদিসের ব্যবহার, ক্ষমা চাইলেন রিয়ানা
ফ্যাশন শো অনুষ্ঠানে একটি গানে হাদিসের ব্যবহার করায় ক্ষমা চেয়েছেন মার্কিন পপ তারকা রিয়ানা। সম্প্রতি রিয়ানার সেভেজ এক্স ফেন্টি ফ্যাশন শোতে ওই গানটির ব্যবহার করা হয়।

জানা গেছে, রিয়ানা তার ফ্যাশন শো অনুষ্ঠানে গায়িকা কুকু ক্লো'র গাওয়া ডুম গানটি ব্যবহার করেন। যেখানে হাদিসের ব্যবহার করা হয়েছে। এরপরই অনলাইনে তীব্র সমালোচনার মুখ পড়েন রিয়ানা।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়, শেষ বিচারের দিন বিষয়ক একটি হাদিস ওই গানটিতে ব্যবহার করা হয়েছে। এদিকে গায়িকা কুকু ক্লোও গানে হাদিসের ব্যবহার করায় ক্ষমা চেয়েছেন। ক্লো জানান , এই বিষয়ে অবগত ছিলেন না তিনি।

0 Share Comment
Online Desk
07 October 2020, 13:26

যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মো. জাহিদ আহসান রাসেল বলেছেন,
করোনা মোকাবেলায় শেখ হাসিনার সফল নেতৃত্ব বিশ্বে এক নজিরবিহীন দৃষ্টান্ত
স্থাপন করেছেন। বিশ্ব নেতৃবৃন্দ করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে আমাদের
প্রধানমন্ত্রীর গৃহীত বিভিন্ন পদক্ষেপের ভূয়সী প্রশংসা করেছেন এবং তা নিজ
নিজ দেশে অনুসরণ করছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিশ্বের অন্যতম সেরা
মানবিক প্রধানমন্ত্রী হিসেবে আবির্ভূত হয়েছেন। আর তাই প্রধানমন্ত্রীর এসব
মানবিক কর্মকাণ্ডকে স্মরণীয় করে রাখতে এবং তাঁর প্রতি সম্মান জানিয়ে এ
বছর থেকে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে ‘শেখ হাসিনা ইয়ুথ
ভলান্টিয়ার অ্যাওয়ার্ড’ চালুর উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে।


তিনি বলেন, বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় প্রধানমন্ত্রী শেখ
হাসিনার দূরদর্শী ও বিচক্ষণ সিদ্ধান্তের ফলে দ্রুততম সময়ে মহামারি
নিয়ন্ত্রণ এবং সংক্রমণ ও প্রাণহানি নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হয়েছে। করোনা
মহামারীসহ বিভিন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগ যেমন ঘূর্ণিঝড় জলোচ্ছ্বাস, বন্যা
মোকাবেলায় রোল মডেল হিসেবে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা এক উজ্জ্বল নাম।
বিভিন্ন দুর্যোগ মোকাবেলায় যুবসমাজকে উদ্বুদ্ধ করার প্রয়াসে ঢাকা ওআইসি
ইয়ুথ ক্যাপিটাল ২০২০ অনুষ্ঠানে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নামে জাতীয় এবং
আন্তর্জাতিক পর্যায়ে ‘শেখ হাসিনা ইয়ুথ ভলান্টিয়ার অ্যাওয়ার্ড-২০২০’
প্রদান করা হবে এবং আগামী বছর হতে এ যুব পুরস্কার প্রদান অব্যাহত থাকবে।


গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে গাজীপুর জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে গাজীপুর জেলা
প্রশাসন ও জেলা সমাজসেবা কার্যালয় আয়োজিত ক্যান্সার, কিডনী, লিভার
সিরোসিস, স্ট্রোকে প্যারালাইজড, জন্মগত হৃদরোগী ও থ্যালাসেমিয়া
রোগীদের আর্থিক সহায়তা কর্মসূচির চেক এবং স্বেচ্ছাসেবী সমাজকল্যাণ সংস্থা
সমূহের মাঝে এককালীন অনুদান বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি
এসব কথা বলেন।


তিনি আরও বলেন, এ বছর ‘শেখ হাসিনা ইয়ুথ ভলান্টিয়ার
অ্যাওয়ার্ড-২০২০’ পুরস্কার প্রদানের ক্ষেত্রে যেসব যুবক কোভিড ১৯
মোকাবিলায় মানবিক সহায়তা কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করে দেশে এবং বিদেশে অনন্য
দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন তাদেরকে বিবেচনায় নেওয়া হবে।


এ সময়ে প্রতিমন্ত্রী গাজীপুর জেলার ৮৫ জন দুরারোগ্য ব্যাধিতে
আক্রান্ত রোগীদের মধ্যে জনপ্রতি ৫০,০০০টাকা করে মোট ৪২,৫০,০০০ টাকার চেক
বিতরণ করেন এবং ৮০ টি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের মাঝে মোট ২৩,৬০,০০০ টাকার
অনুদান বিতরণ করেন।


অনুষ্ঠানে গাজীপুরের জেলা প্রশাসক এস এম তরিকুল ইসলাম, অতিরিক্ত
জেলা প্রশাসক ( সার্বিক ) মামুন সরদার, গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের
উপকমিশনার (ক্রাইম) শরিফুল ইসলাম ও জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের পরিচালক
উপপরিচালক আনোয়ারুল করিম উপস্থিত ছিলেন।

0 Share Comment
Online Desk
07 October 2020, 13:24

কাজলের বিয়ে ৩০ অক্টোবর

কাজলের বিয়ে ৩০ অক্টোবর
বিয়ে করছেন অভিনেত্রী কাজল আগরওয়াল। নতুন জীবন শুরু করার আগে নিজের সোশ্যাল হ্যান্ডেলে সে বিষয়ে ঘোষণা করেন সিঙ্ঘম অভিনেত্রী। আগামী ৩০ অক্টোবর বিয়ের পিঁড়িতে বসবেন কাজল। মুম্বাইতে বসবে বিয়ের আসর। তবে করোনা পরিস্থিতিতে দুই পরিবারের ঘনিষ্ঠদের নিয়েই বিয়ের পিঁড়িতে কাজল আগরওয়াল বসবেন বলে জানান।

গৌতমের সঙ্গে নতুন জীবন শুরু করতে যাচ্ছেন। তাই তিনি উচ্ছ্বসিত। জীবনে চলার পথে ভক্তরা যেভাবে তার পাশে দাঁড়িয়েছেন, ভালবেসেছেন, ভবিষ্যতেও তা বজায় থাকবে বলে আশা প্রকাশ করেন অজয় দেবগনের রিল স্ত্রী কাজল আগরওয়াল।

২০০৪ সালে হিন্দি ছবি কিঁউ- হো গ্যায়া না দিয়ে বলিউডে পা রাখেন কাজল আগরওয়াল। এরপর ২০০৭ সালে লক্ষ্মী কল্যানম নামে একটি জনপ্রিয় তামিল সিনেমা দিয়ে সিনেমা জগতে ফের নিজের অস্তিত্ব প্রকাশ করেন কাজল।

বাহুবলি পরিচালক এসএস রাজামৌলির মাগাধীরা-তেও দেখা যায় কাজল আগরওয়ালকে। এসবের পাশাপাশি মোসাগাল্লু, ইন্ডিয়ান পার্ট টু, মুম্বাই সাগা, প্যারিস প্যারিসসহ দক্ষিণের একাধিক জনপ্রিয় সিনেমায় অভিনয় করেন কজল আগরওয়াল। সূত্র: জি-২৪ নিউজ।

0 Share Comment
Online Desk
07 October 2020, 13:19

বেসরকারি খাতে বৈদেশিক ঋণের নীতিমালা
শিথিল করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। বৈদেশিক মুদ্রার মজুদের চাপ কমাতে প্রতি তিন
মাস অন্তর এসব ঋণ পরিশোধ করতে হতো। কিন্তু এখন পরিশোধ করতে হবে ঋণের মেয়াদ
পূর্তিতে। তবে একসাথে ঋণ পরিশোধ করতে গিয়ে বৈদেশিক মুদ্রার মজুদে চাপ বেড়ে
যাওয়ার আশঙ্কা করছেন সংশ্লিষ্টরা।


জানা গেছে, ২০১৩ সাল থেকে স্থানীয়
ব্যবসায়ীরা ব্যাপকভিত্তিতে বৈদেশিক মুদ্রায় ঋণ নিচ্ছেন। বাংলাদেশ ব্যাংক
পরিসংখ্যান মতে, শুধু স্বল্পমেয়াদি বৈদেশিক ঋণই দাঁড়িয়েছে প্রায় এক হাজার
৪০০ কোটি ডলার, যা স্থানীয় মুদ্রায় প্রায় সোয়া লাখ কোটি টাকা। বৈদেশিক
মুদ্রায় ঋণ নেয়ায় একদিকে যেমন সুদে-আসলে মেয়াদ শেষে বৈদেশিক মুদ্রায় পরিশোধ
বেড়ে যায়, অপর দিকে স্থানীয় ব্যাংকের উদ্বৃত্ত তারল্য বেড়ে যায়।


এমনি পরিস্থিতিতে বেসরকারি খাতে বৈদেশিক
মুদ্রায় ঋণের হ্রাস টেনে ধরতে কেন্দ্রীয় ব্যাংক থেকে নীতিমালা কঠোর করা হয়।
এর মধ্যে অন্যতম ছিল, তিন মাস অন্তর ঋণ পরিশোধের নির্দেশনা। অর্থাৎ যে
পরিমাণ ঋণ নেয়া হবে তা তিন মাস অন্তর পরিশোধ করতে হবে। প্রতি তিন মাস অন্তর
বৈদেশিক মুদ্রায় ঋণ পরিশোধ করলে বৈদেশিক মুদ্রার ওপর চাপ যেমন কমে যাবে,
তেমনি বৈদেশিক মুদ্রার দায়ও কমে যাবে।


বাংলাদেশ ব্যাংক সূত্র জানিয়েছে, করোনার
প্রাদুর্ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীরা স্বাভাবিকভাবে ঋণ পরিশোধ করতে
পারছিলেন না। অনেকের বিরুদ্ধেই স্থানীয় ব্যাংক থেকে ঋণ করে তা বৈদেশিক
মুদ্রায় রূপান্তর করে ঋণ পরিশোধ করার অভিযোগ ওঠে। এমনি পরিস্থিতিতে
ব্যবসায়ীদের সুবিধা দেয়ার জন্য তিন মাস অন্তর ঋণ পরিশোধের শর্ত রহিত করা
হয়েছে।


গতকাল মঙ্গলবার কেন্দ্রীয় ব্যাংক থেকে এ
বিষয়ে জারি করা এক সার্কুলারে বলা হয়েছে, সাপ্লায়ার্স/বায়ার্স ক্রেডিটের
আওতায় আমদানির ক্ষেত্রে তিন মাস অন্তর দায় পরিশোধের ব্যবস্থা সম্পূর্ণরূপে
প্রত্যাহার করা হলো। অর্থাৎ এখন থেকে ব্যবসায়ীরা আগের মতো মেয়াদ পূর্তিতে
ঋণ পরিশোধের সুযোগ পেলেন।


গতকাল দেয়া অপর দুইটি নির্দেশনায় উৎপাদনশীল খাত ও জীবন রক্ষাকারী ওষুধ আমদানির দায় পরিশোধের সময়সীমা ছয় মাস বাড়ানো হয়েছে।


আগে জীবন রক্ষাকারী ওষুধ, চিকিৎসাসামগ্রী
প্রভৃতি আমদানির ক্ষেত্রে বাংলাদেশ ব্যাংকের অনুমোদন ছাড়াই পাঁচ লাখ
মার্কিন ডলার অগ্রিম আমদানি মূল্য বিদেশে পাঠানোর নির্দেশনা ৩০ সেপ্টেম্বর
পর্যন্ত ছিল। গতকাল তা ছয় মাস বাড়িয়ে ৩১ মার্চ পর্যন্ত সময় দেয়া হয়েছে। অপর
দিকে উৎপাদনশীল পণ্য, কৃষি পণ্য ও রাসায়নিক সার আমদানির দায় পরিশোধের
সময়সীমা ছয় মাস থেকে বৃদ্ধি করে ৩৬০ দিন পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে।


বৈদেশিক মুদ্রায় অভ্যন্তরীণ ব্যাক টু
ব্যাক ঋণপত্রের আওতায় উপকরণাদি সরবরাহের বিপরীতে পরিশোধ কার্যক্রম
ব্যাংলাদেশ ব্যাংকে পরিচালিত এফসি ক্লিয়ারিং হিসাবের মাধ্যমে নিষ্পত্তির
নির্দেশনা শিথিল করে এডি ব্যাংকের নস্ট্রো হিসাবের মাধ্যমে সম্পাদনের
অনুমোদন দেয়া হয়েছে।


অন্য একটি সার্কুলারের মাধ্যমে
সাপ্লায়ার্স/বায়ার্স ক্রেডিটের আওতায় গত সেপ্টেম্বরে স্থাপিত ব্যাক টু
ব্যাক ঋণপত্রের দায় পরিশোধের জন্য রফতানি উন্নয়ন তহবিলের আওতায় ১৮০ দিন
সময়ের জন্য পুনঃঅর্থায়ন সুবিধা আগামী ৩১ মার্চ পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে।
কেন্দ্রীয় ব্যাংকের এ নীতিমালায় ছাড় দেয়ায় ব্যবসায়ীরা স্বস্তি প্রকাশ
করেছেন। তারা বলেছেন, ব্যবসায়ীরা কেন্দ্রীয় ব্যাংকের এ নীতিমালায় উপকৃত
হবেন।

0 Share Comment
Online Desk
07 October 2020, 12:57

প্রথমবারের মতো ফরাসী সশস্ত্র বাহিনীর প্রশিক্ষণ দল কর্তৃক
বাংলাদেশ ন্যাশনাল ডিফেন্স কলেজ আর্মড ফোর্সেস ওয়ার কোর্স মেম্বারদের
জন্য একটি ভার্চুয়াল সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে।


বাংলাদেশ ন্যাশনাল ডিফেন্স কলেজ, ফরাসী সশস্ত্র বাহিনী এবং
ফ্রান্সস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসের প্রতিরক্ষা শাখার যৌথ উদ্যোগে সেমিনারটি
অনুষ্ঠিত হয়। সেমিনারে ফরাসী সশস্ত্র বাহিনীর মেজর রাফহেল পেসন্ট , ফরাসী
শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের প্রতিরক্ষা বিষয়ক উপদেষ্টা ড. গুলিয়াম
লেস্কনজারেইজ, ডিজিআরআইএস এর কর্মকর্তা জুলিয়েট লয়েশ, অপারশেন প্লানিং,
অপরাশেন ওভার লোড এবং ইন্দোপ্যাসিফিক স্ট্র্যাটেজির উপর বক্তব্য উপস্থাপন
করেন ।


এছাড়াও বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ ডিফেন্স কলেজের কমান্ড্যান্ট
লেফটেন্যান্ট জেনারেল শেখ মামুন খালেদ , ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. শামীম,
ঢাকাস্থ ফরাসী দূতাবাসের হেড অব মিশন ফ্রাংক গ্রুয়েটজমাচির টেকোর,
ফ্রান্সে নিযুক্ত বাংলাদেশ দূতাবাসের রাষ্ট্রদূত কাজী ইমতিয়াজ হোসেন এবং
প্রতিরক্ষা উপদেষ্টা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ মোহসীন।


সেমিনারে ফ্রান্সের প্রথম প্রতিরক্ষা উপদেষ্টা হিসাবে বিগত ১৬ মাসে
বাংলাদেশ ফ্রান্স প্রতিরক্ষা সহযোগিতার একটি চিত্র তুলে ধরেন ব্রিগেডিয়ার
জেনারেল মোহাম্মদ মোহসীন।

ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. হাকিমুজ্জামানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সেমিনারে
ভবিষ্যতে দু'দেশের প্রতিরক্ষা সহযোগিতা আরো সম্প্রসারিত হবে বলে উল্লেখ
করেন বক্তারা ।

0 Share Comment
Online Desk
07 October 2020, 12:56

আগামী ডিসেম্বরে ২৫৬ পৌরসভায় সাধারণ
নির্বাচন আয়োজনের পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। তবে আগামী
ডিসেম্বরের শীতে করোনা ভাইরাসের প্রকোপ বাড়তে পারে—এ আশঙ্কায় ভোট না করতে
প্রধান নির্বাচন কমিশনারকে (সিইসি) চিঠি দিয়েছেন পৌর মেয়ররা। ৩২৮ পৌরসভার
মধ্যে ২৮৪ পৌরসভা নির্বাচন আয়োজনে উপযোগী বলে নির্বাচন কমিশনকে তালিকা
পাঠিয়েছে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়। এর মধ্যে আগামী ফেব্রুয়ারির মধ্যে ২৫৬
পৌরসভার মেয়াদ শেষ হবে।


এ বিষয়ে স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র
সচিব মো. হেলালুদ্দীন আহমেদ বলেন, ‘আমরা ৩২৮টি পৌরসভা সম্পর্কে
বিস্তারিত তথ্য নির্বাচন কমিশনকে দিয়েছি। এর মধ্যে ভোট উপযোগী পৌরসভার
সংখ্যাও নির্দিষ্ট ফরম্যাটে জানানো হয়েছে। কমিশন এখন পর্যালোচনা করে
দেখবেন, কোন পৌরসভার ভোট আগে করা দরকার, আর কোনটি পরে। এছাড়াও করোনায় ভোট
হবে নাকি ভোট হবে না—সে বিষয়েও সিদ্ধান্ত নেবেন সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানটি।’


ইসির সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, আগামী
অক্টোবর থেকে পৌরসভাগুলো নির্বাচন উপযোগী হবে। ডিসেম্বরে ভোটগ্রহণের
পরিকল্পনা করা হয়েছে। এ লক্ষ্যে গত ৯ সেপ্টেম্বর নির্বাচন উপযোগী পৌরসভা
সম্পর্কে সর্বশেষ তথ্য জানতে চেয়ে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়কে চিঠি দিয়েছিল
ইসি। স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমদকে পাঠানো
চিঠিতে পৌরসভা নির্বাচনের প্রস্তুতি গ্রহণের লক্ষ্যে (ক) সর্বশেষ নির্বাচন
অনুষ্ঠানের পর শপথ ও মেয়াদ উত্তীর্ণের তারিখ; (খ) সীমানা পরিবর্তন বা
ওয়ার্ড বিভক্তিকরণ প্রক্রিয়াধীন রয়েছে এমন পৌরসভার বিবরণী; (গ) সীমানা বা
ওয়ার্ড বিন্যাসজনিত কারণে স্থগিত অথবা ইতিপূর্বে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়নি
এরূপ পৌরসভার তথ্য ও সর্বশেষ অবস্থা; (ঘ) মামলাজনিত কারণে ইতিপূর্বে
নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়নি অথবা নির্বাচন স্থগিত হয়েছে এরূপ পৌরসভার তথ্যসহ
মামলার বর্তমান অবস্থা জানানোর অনুরোধ করা হয়।


আগামী বছরের ডিসেম্বর পর্যন্ত যেসব
পৌরসভা মেয়াদোত্তীর্ণ হবে সেসব পৌরসভার সংখ্যা ২৮৪টি। যার মধ্যে ২৮টি
পৌরসভায় ভোট হবে আগামী বছরের এপ্রিল থেকে ডিসেম্বরের মধ্যে এবং বাকি ২৫৬
পৌরসভায় আসন্ন ডিসেম্বরে ভোট হওয়ার সম্ভাব্য সময় নির্ধারণ আছে। এখন এগুলোতে
এক দিনে নাকি ধাপে ধাপে ভোটগ্রহণ করা হবে সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে ইসি।
তবে করোনা সংকট পরিস্থিতি ও স্কুল খোলা এবং বার্ষিক পরীক্ষার তারিখ বিবেচনা
করে পৌরসভা নির্বাচনের ভোটগ্রহণের তারিখ নির্ধারণ করা হবে। ডিসেম্বরে ভোট
হলে নভেম্বরে তপশিল ঘোষণা করা হতে পারে।


শীতে ভোট নিয়ে সংশয়, পেছানোর দাবি :
পৌরসভা নির্বাচন করার উদ্যোগ শুরু হলে বিভিন্ন পৌর মেয়র প্রধান নির্বাচন
কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদার কাছে ভোট না করার জন্য চিঠি দিয়েছেন।
এতে তারা উল্লেখ করেন, বিশ্ব আজ করোনা ভাইরাসের ভয়ে কাঁপছে। এ ঝুঁকির
মধ্যেও জনপ্রতিনিধিদের জনগণের সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষা করে চলতে হচ্ছে। এমন
পরিস্থিতিতে নির্বাচনি কার্যক্রম গ্রহণ করলে কোনো প্রার্থী ঘর থেকে বের হতে
পারবেন না, আবার ভোটাররাও ভোটকেন্দ্রে আসতে পারবেন না। এজন্য দুর্যোগের
সময়ে নির্বাচন আয়োজন না করার জন্য অনুরোধ জানান তারা।


এ বিষয়ে ইসির সিনিয়র সচিব মো. আলমগীর
বলেন, কমিশনের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী নির্বাচনের প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে। করোনার
দ্বিতীয় ওয়েভ নিয়ে এখনো নিশ্চিত করে কেউ কিছু বলতে পারেননি। পরিস্থিতি কী
দাঁড়ায় তার ওপর নির্ভর করছে সবকিছু।

0 Share Comment
Deshi Group
06 October 2020, 23:24

এ্যান্টি-ভাইরাস কোম্পানির প্রতিষ্ঠাতাকে স্পেনে গ্রেফতার

এ্যান্টি-ভাইরাস কোম্পানির প্রতিষ্ঠাতাকে স্পেনে গ্রেফতার
সুপরিচিত এ্যান্টি-ভাইরাস সফটওয়্যার কোম্পানির কর্ণধার জন ম্যাকএ্যাফিকে স্পেনে গ্রেফতার করা হয়েছে। তিনি কর ফাঁকির এক মামলায় অভিযুক্ত হয়েছেন এবং তাকে বিচারের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের হাতে তুলে দেয়া হতে পারে।

কৌঁসুলিরা বলছেন, তিনি চার বছর ধরে ট্যাক্স রিটার্ন জমা দেননি - যদিও তিনি এর মধ্যে পরামর্শদাতা হিসেবে কাজ করে, বক্তৃতা দিয়ে, ক্রিপটোকারেন্সির ব্যবসা করে এবং তার জীবনী প্রকাশের কপিরাইট বিক্রি করে লক্ষ লক্ষ ডলার আয় করেছেন।

এসব আয়ের সাথে অবশ্য তার নিজের নামে তৈরি ম্যাকএ্যাফি এ্যান্টিভাইরাস সফটওয়্যার প্রতিষ্ঠানের সম্পর্ক নেই।

যুক্তরাষ্ট্রের বিচার বিভাগ এক বিবৃতিতে বলেছে, ম্যাকএ্যাফি তার নিজের আয় তার মনোনীত অন্য লোকদের নানারকম এ্যাকাউন্টে জমা দিয়েছিলেন। ২০১৪ থেকে ২০১৮ পর্যন্ত তিনি কর দেবার দলিল জমা দেননি। এ ছাড়া তার বিরুদ্ধে অন্যদের নামে থাকা প্রমোদতরী ও বাড়ি-জমির মতো সম্পদ গোপন করার অভিযোগ আছে।

তিনি সবার নজর কাড়েন ১৯৮০র দশকে - যখন তিনি ম্যাকএ্যাফি ভাইরাসস্ক্যান নামে প্রথম বাণিজ্যিক এ্যান্টিভাইরাস সফটওয়্যার বাজারে ছাড়েন।

এটা তারপর শত শত কোটি ডলারের এক শিল্পে পরিণত হয়। ম্যাকএ্যাফি অবশ্য পরে সেই ব্যবসা ইনটেল কোম্পানির কাছে বিক্রি করে দেন। তবে তিনি এখনো তার নিজের উদ্যোগে বিভিন্ন সাইবার-সিকিউরিটি পণ্য তৈরি করছেন।

তিনি নিজে বহুবার ট্যাক্স দেবার ব্যাপারে তার বিরাগ প্রকাশ করেছেন। তিনি মনে করেন ট্যাক্স জিনিসটাই অবৈধ।

### বিচিত্র কর্মকান্ড:

ম্যাকএ্যাফির নানা বিচিত্র কর্মকান্ড বিভিন্ন সময় খবর হয়েছে। মধ্য আমেরিকার দেশ বেলিজে ২০১২ সালে তার প্রতিবেশীকে গুলিবিদ্ধ এবং মৃত অবস্থায় পাওয়া যাবার পর তিনি ছদ্মবেশ ধরে পালিয়ে গিয়েছিলেন।

বিবিসিকে তিনি বলেছিলেন - ওই মৃত্যুর সাথে তার কোন সম্পর্ক নেই। তবে পুলিশ এখনো তার ব্যাপারে খোঁজখবর নিচ্ছে। তার প্রকাশিত ভিডিও ফুটেজে দেখা গেছে তরুণী মেয়ে 'বন্ধু'রা তার উল্কি-আঁকা খালি গায়ে হাত বুলিয়ে দিচ্ছে।

ডমিনিকান রিপাবলিকে তাকে একবার কিছু সময়ের জন্য গ্রেফতার করা হয়েছিল - দেশটিতে অস্ত্র নিয়ে আসার অভিযোগে।

২০১৬ ও ২০২০ সালে মি. ম্যাকএ্যাফি লিবার্টারিয়ান পার্টি থেকে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রার্থী হবার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হন।

কেউ কেউ মনে করেন তিনি একজন বিকারগ্রস্ত উন্মাদ মানসিকতার লোক। একজন সাংবাদিক - যিনি বহুবার তার সাক্ষাতকার নিয়েছেন - বর্ণনা করেন যে ম্যাকএ্যাফি মিথ্যে বলেন, প্রতারণা করেন এবং পরিস্থিতিকে নিজের স্বার্থে ব্যবহার করতে ওস্তাদ।

ম্যাকএ্যাফি নিজে স্বীকার করেন যে তাকে `সন্দেহবাতিকগ্রস্ত, স্কিৎসোফ্রেনিক, এবং সিলিকন ভ্যালির বন্য শিশু' বলা হয়েছে, কিন্তু তিনি আসলে একজন উদ্যোক্তা, কৌতুহলী এবং সমস্যা সমাধান করতে ভালোবাসেন।

ম্যাকএ্যাফির জন্ম যুক্তরাজ্যে। তার মা ইংরেজ, এবং বাবা ছিলেন দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় ব্রিটেনে থাকা একজন আমেরিকান সৈন্য। তার বাবা পরে এ্যালকোহল-আসক্ত এবং অত্যাচারী হয়ে পড়েন এবং নিজের গুলিতে আত্মহত্যা করেন।

ম্যাকএ্যাফির বয়স তখন ১৫। তিনি নিজেও বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সময় এ্যালকোহল এবং মাদকে আসক্ত হন। তিনি পড়াশোনায় ভালো ছিলেন, তবে অন্য একজন ছাত্রীর সাথে যৌনসম্পর্কের কারণে তার পিএইচডি বাতিল করা হয়।

পরে তিনি বেশ কিছু বড় বড় প্রযুক্তি কোম্পানিতে চাকরি করেন। সাথে সাথে চলছিল নেশা করা। তিনি বলেন, কিছু প্রতিষ্ঠানের বসরাও মাদক নিতেন, কিছু কোম্পানিতে দুপুরের খাবার সময় খোলাখুলি মাদক গ্রহণ করা হতো।

পরে লকহিড মার্টিন কোম্পানিতে কাজ করার সময় তিনি প্রথম কম্পিউটার ভাইরাসের সাতে পরিচিত হন, এবং বের করেন কম্পিউটারগুলোকে ভাইরাসমুক্ত করার এক পদ্ধতি।

এর পরই তিনি নিজের নামে এক কোম্পানি চালু করে এর ব্যবসা শুরু করেন। অনেক পরে তিনি এই কোম্পানি ইনটেলের কাছে বিক্রি করে দেন ৭৬০ কোটি ডলারে। তারই নামে কোম্পানি এ্যান্টিভাইরাস সফটওয়্যার বিক্রি করলেও , ম্যাকএ্যাফি বলেন, তিনি নিজে কখনো তার পণ্য ব্যবহার করেননি।

`আমি সবসময়ই আক্রান্ত হচ্ছি, কিন্তু আমি কোন সফটওয়ার সুরক্ষা ব্যবহার করি না। আমি সব সময় আমার আইপি ঠিকানা পরিবর্তন করতে থাকি, কোন ডিভাইসে আমার নাম দিই না এবং ভাইরাস ঢুকতে পারে এমন কোন সাইটে আমি যাই না।'

`আমি নিরাপদ কম্পিউটিং করি। কেউ আমাকে ইমেইল করলে তাকে ফোন করে জেনে নেই তিনি আমাকে ইমেইল করেছেন কিনা - তার আগে সেই ইমেইল খুলি না।'

সূত্র : বিবিসি
0 Share Comment
Deshi Group
06 October 2020, 22:59

# চলতি বছরের এইচএসসি বা সমমানের পরীক্ষার
বিষয়ে এখনো চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হয়নি। ৫ বা ৬ অক্টোবরের মধ্যে সিদ্ধান্ত
জানানোর কথা থাকলেও মঙ্গলবার পর্যন্ত কাজ শেষ করতে পারেনি শিক্ষা
মন্ত্রণালয়। তবে বুধবার সরকারি সিদ্ধান্ত ঘোষণা করা হতে পারে বলে জানিয়েছেন
মন্ত্রণালয় সংশ্লিষ্ট সূত্র।

জানা
গেছে, আসন্ন নভেম্বর মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহে এইচএসসি পরীক্ষা নেয়া যায় কি
না তা নিয়ে বর্তমানে আলোচনা করছে আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় সাব কমিটিসহ
নীতি নির্ধারকরা। তবে এখন পর্যন্ত কোনো দিনক্ষণ চূড়ান্ত করা সম্ভব হয়নি।

এর
আগে ৫ বা ৬ অক্টোবরের মধ্যে এইচএসসি পরীক্ষার পরিপূর্ণ পরিকল্পনাসহ
সুনির্দিষ্ট তারিখ ঘোষণা করা হবে বলে জানিয়েছিলেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু
মনি। গত ৩০ সেপ্টেম্বর সাংবাদিকদের তিনি বলেন, বিকল্প অপশন রাখার পাশাপাশি
পরীক্ষার প্রস্তুতি সম্পন্ন করতে শিক্ষার্থীদের চার সপ্তাহ সময় দেয়া হবে।
যারা যৌক্তিক কারণে পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবে না, তাদের বিকল্প উপায়ে
মূল্যায়ন করা হবে। সেটা কীভাবে করা যায়, তা নিয়েও পরিকল্পনা থাকবে।

শিক্ষামন্ত্রী
বলেন, দ্রুত সময়ের মধ্যে সর্বোচ্চ কতগুলো বিষয়ের পরীক্ষার নেয়া সম্ভব তা
নিয়ে আলোচনা ও পরিকল্পনা করা হচ্ছে। একই সঙ্গে কোনো পরীক্ষার্থী যেন
ক্ষতিগ্রস্ত না হয়, সেই বিষয়টিকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে।
পরীক্ষা আয়োজনে প্রশ্ন, উত্তরপত্র তৈরিসহ সব প্রস্তুতি রয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, এখন শুধু পরীক্ষা শেষ করা বাকি আছে।

0 Share Comment
Deshi Group
06 October 2020, 22:58

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগে বিজ্ঞপ্তি জারির নির্দেশনা

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগে বিজ্ঞপ্তি জারির নির্দেশনা
সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শূন্যপদে নিয়োগের জন্য বিজ্ঞপ্তি জারির জন্য প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরকে নির্দেশনা দিয়েছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। ইতোমধ্যে ৩২ হাজার ৫৭৭ জন সহকারী শিক্ষক নিয়োগের বিষয়টি চূড়ান্ত করেছে মন্ত্রণালয়।


জানা গেছে, এর মধ্যে প্রাক-প্রাথমিক স্তরে নিয়োগ দেওয়া হবে ২৫ হাজার ৬৩০ জন। আর ৬ হাজার ৯৪৭ জনকে প্রাথমিক স্তরের জন্য সহকারী শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ দেয়া হবে।

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, সারাদেশে প্রাক-প্রাথমিক শিক্ষকের যেসব পদ শূন্য রয়েছে এবং গত জুন মাস থেকে এখন পর্যন্ত সহকারী শিক্ষকের যেসব পদ খালি হয়েছে- এই নিয়োগের মাধ্যমে সেই শূন্য পদগুলো পূরণ করা হবে।
0 Share Comment
আরও খুজুন। এজন্য নিচের বক্সে লিখে এন্টার চাপুন অথবা সার্চ আইকনে ক্লিক করুন। Find out more. To do this, type in the box below and press Enter or click on the search icon.
$
$

Image Product Price
Buy LCD Writing Tablet 850.00 BDT each
+
Add to cart
Buy Double Microwave Oven Stand Shelf 1 350.00 BDT each 7 items in stock
+
Add to cart
Buy water spray motor Car 1 550.00 BDT each
+
Add to cart
Buy Sim Supported Land Phone Set 1 950.00 BDT each
+
Add to cart
Buy 5 Piece Silicone Kitchen Spoons Set 870.00 BDT each 10 items in stock
+
Add to cart
Buy Old Man Walking Stick বৃদ্ধ মানুষের হাঁটার লাঠি 2 100.00 BDT each
+
Add to cart
Buy Hot Water Tap Digital 2 700.00 BDT each
+
Add to cart
Race Digital BP Monitor 1 390.00 BDT each
+
Add to cart
Buy Wi-Fi Action IP Security 1 650.00 BDT each
+
Add to cart
Havit MX701 Alarm Clock And Fm Radio Wireless Speaker 1 200.00 BDT each 5 items in stock
+
Add to cart
Cell Phone Signal Booster 480.00 BDT each
+
Add to cart
Buy Baby Bouncer 1 700.00 BDT each
+
Add to cart
MINI WIFI CAMERA A9 1 000.00 BDT each
+
Add to cart
Buy GPS TRACKER MINI A8 1 230.00 BDT each 14 items in stock
+
Add to cart
Buy ATOMIC ZAPPER 1 100.00 BDT each 9 items in stock
+
Add to cart
Buy Lemon Spray 220.00 BDT each
+
Add to cart
Buy Electric Hot water Basine 2 050.00 BDT each
+
Add to cart
M10 Bluetooth Earbuds 1 000.00 BDT each
+
Add to cart
Buy Baby walker multi 5 000.00 BDT each
+
Add to cart
Nova Electric Kettle 990.00 BDT each
+
Add to cart
Buy HD Night Vision Sunglass 600.00 BDT each 11 items in stock
+
Add to cart
Magic Top Dredge Forming Cleaner 500.00 BDT each
+
Add to cart
Neck Therapy Instrument 1 750.00 BDT each
+
Add to cart
Flower Candy Box 1 000.00 BDT each
+
Add to cart