অনলাইন শপিং,ফ্রিল্যান্সিং ও অন্যান্য কাজ করার জন্য এই ওয়েবসাইটে একটি একাউন্ট থাকতে হবে। একাউন্ট খোলা মানেই টাকা দিতে হবে এমন না। ফ্রিল্যান্সার অথবা বায়ার, এর যে কোন একটি চয়েজ করে একাউন্ট তৈরি করতে হবে।অথবা শপিং সেকশনের যে কোন প্রোডাক্টের এ্যাড টু কার্ট বাটনে ক্লিক করেও আপনি একাউন্ট তৈরি করতে পারবেন।সাইনআপ করুন এবং কাজ পোষ্ট করুন। ফ্রিল্যান্সারগণ কাজ খুজুন ও বিড করুন।একাউন্ট তৈরি হলে আপনি আপনার দেয়া ইউজার আইডি ও পাসওর্য়াড ব্যবহার করে সাইটে লগইন করতে পারবেন। You must have an account on this website for online shopping, freelancing and other activities. Opening an account does not mean that you have to pay. Freelancer or buyer, you have to create an account by choosing one of them. Or you can create an account by clicking on the add to cart button of any product in the shopping section.Sign up and post work. Freelancers find work and bid. Once the account is created, you can login to the site using your given user ID and password.

We have 32 guests and no members online

All Posts

2587 posts found

Deshi Group
25 July 2021, 13:36

সাধারণ খাবারের অসাধারণ গুণ,পান্তা ভাত নিয়ে বিজ্ঞানীদের গবেষণা

সাধারণ খাবারের অসাধারণ গুণ,পান্তা ভাত নিয়ে বিজ্ঞানীদের গবেষণা
পান্তা ভাত নিয়ে প্রতি বছর বাংলা নববর্ষের দিনে আলোচনা হলেও এই খাবারটি নিয়ে এবার আলোচনা হয়েছে ভিন্ন এক কারণে।

মাস্টারশেফ অস্ট্রেলিয়া প্রতিযোগিতার ফাইনালে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত এক নারী কিশোয়ার চৌধুরী পান্তা ভাত তৈরি করে সবাইকে চমকে দিয়েছেন। কেউ ভাবতেও পারেনি যে রান্নার এরকম একটি আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় পান্তা ভাতের মতো একটি আটপৌরে খাবার পরিবেশন করা যায়।

এই পান্তা ভাতের ওপরেই গবেষণা করেছেন বিজ্ঞানীদের একটি দল।

ভারতের আসাম কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে এই গবেষণাটি পরিচালিত হয়, যাতে নেতৃত্ব দিয়েছেন কৃষি জৈব প্রযুক্তি বিভাগের অধ্যাপক ড. মধুমিতা বড়ুয়া।

এই গবেষণার উদ্দেশ্য ছিল পান্তা ভাতে কী আছে এবং এসব উপাদান শরীরের জন্য কতোটা উপকারী বা অপকারী সেগুলো খুঁজে বের করা। এই গবেষণার ফলাফল পরে এশিয়ান জার্নাল অব কেমিস্ট্রিতে প্রকাশিত হয়েছে।

পান্তা ভাত নিয়ে সম্ভবত এটাই একমাত্র বৈজ্ঞানিক গবেষণা। তবে মধুমিতা বড়ুয়া জানিয়েছেন, তাদের এই গবেষণা এখনও চলছে। তারা এখন জানার চেষ্টা করছেন পান্তা ভাত ডায়াবেটিসের রোগীদের জন্য ভাল না খারাপ।

দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় যেসব অঞ্চলে প্রচুর ধান উৎপন্ন হয় এবং যেসব দেশে ভাত প্রধান খাবার, মূলত সেসব দেশে ভাত পানিতে ভিজিয়ে খাওয়ার সংস্কৃতি চালু আছে।

এসব এলাকায় আবহাওয়া অত্যন্ত গরম এবং আর্দ্র হওয়ার কারণে খুব সহজেই ভাত নষ্ট হয়ে যায়। কিন্তু পানিতে ভিজিয়ে রাখার কারণে এই খাবার দ্রুত নষ্ট হয় না।

মূলত সংরক্ষণের কথা বিবেচনা করেই এই পান্তা ভাতের চল শুরু হয়।

কিভাবে হয় পান্তা ভাত

সাধারণত আগের দিন রাতের বেঁচে যাওয়া ভাতে পানি দিয়ে পান্তা ভাত তৈরি করা হয়। একটি পাত্রের মধ্যে পরিষ্কার পানি ও ভাত একসঙ্গে মিশিয়ে সেটি ঢেকে রাখা হয়।

এভাবে দশ বারো ঘণ্টা ধরে সারা রাত রেখে দেওয়ার ফলে পানি ও ভাতের মধ্যে রাসায়নিক বিক্রিয়া হয়। এসময় পানির নিচে থাকা ভাত বাতাসের অর্থাৎ অক্সিজেনের সংস্পর্শে আসতে পারে না।

বিজ্ঞানীরা বলছেন, পানির কারণে ভাতের এই ফারমেন্টেশন বা গাজন প্রক্রিয়া ত্বরান্বিত হয়। এবং পাত্রের ভেতরে এনারোবিক ফারমেন্টেশনের ঘটনা ঘটে।



“এছাড়াও ভাতের মধ্যে ফাইটেটের মতো যেসব এন্টি-নিউট্রিশনাল ফ্যাক্টর থাকে সেগুলোরও ক্ষয় হয় এবং ভাতটাও হাইড্রেট হয়ে থাকে,” বলেন তিনি।

কী আছে পান্তা ভাতে

গবেষণায় দেখা গেছে পান্তা ভাতে নানা ধরনের মাইক্রোনিউট্রিয়েন্ট বা পুষ্টিকর খনিজ পদার্থ রয়েছে। এগুলো হচ্ছে আয়রন, ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, পটাসিয়াম, জিংক, ফসফরাস, ভিটামিন বি ইত্যাদি।

মধুমিতা বড়ুয়া বলেন, তারা দেখেছেন সাধারণ ভাতের তুলনায় পান্তা ভাতে এসব পুষ্টিদায়ক পদার্থের পরিমাণ অনেক বেশি থাকে।


একটি উদাহরণ দিতে গিয়ে তিনি বলেন, ১০০ মিলিগ্রাম সাধারণ ভাতে আয়রনের পরিমাণ থাকে ৩.৫ মিলিগ্রাম। কিন্তু ১২ ঘণ্টা ভিজিয়ে তৈরি পান্তা ভাতে এর পরিমাণ বেড়ে গিয়ে হয় ৭৩.৯ মিলিগ্রাম।

একইভাবে ক্যালসিয়ামের পরিমাণও অনেক বেড়ে যায়। ১০০ মিলিগ্রাম সাধারণ ভাতে যেখানে ক্যালসিয়াম থাকে ২১ মিলিগ্রাম, সেখানে পান্তা ভাতে এর পরিমাণ দাঁড়ায় ৮৫০ মিলিগ্রাম।

গবেষণায় দেখা গেছে, পান্তা ভাতে পটাসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম ও জিংকের উপস্থিতিও অনেক বেড়ে যায়।

“ভাতের মধ্যে ফাইটেটের মতো যে এন্টি-নিউট্রিশনাল ফ্যাক্টর আছে সেটা আয়রন, ক্যালসিয়াম, পটাসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম ও জিংকের মতো পুষ্টিকর পদার্থকে বেঁধে রাখে।

ফলে ভাত খাওয়ার পরেও মানুষের শরীর এসব গ্রহণ করতে পারে না।

কিন্তু ফারমেন্টেশনের কারণে পান্তা ভাতের ফাইটেট দুর্বল হয়ে পড়ে এবং তখন পুষ্টিকর পদার্থগুলো উন্মুক্ত হয়ে পড়লে আমাদের শরীর সেগুলো গ্রহণ করতে পারে,” বলেন মধুমিতা বড়ুয়া।

উপকারিতা

বিজ্ঞানীরা বলছেন, পান্তা ভাতে থাকা পুষ্টিকর পদার্থগুলো শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বা ইমিউনিটিকে শক্তিশালী করে।

মধুমিতা বড়ুয়া বলেন, দেহের রক্তে অক্সিজেনের মাত্রা বাড়াতে সাহায্য করে আয়রন যেটা পান্তা ভাতে প্রচুর পরিমাণে পাওয়া যায়।

শরীরে হাড়গুলোকে শক্ত রাখে ক্যালসিয়াম। শরীরে নিঃসৃত এনজাইমকে সক্রিয় করতে সাহায্য করে ম্যাগনেসিয়াম।

মধুমিতা বড়ুয়া বলেন, এছাড়াও তারা গবেষণায় দেখেছেন যে পান্তা ভাতে প্রচুর পরিমাণে বিটা-সিটোস্টেরল, কেম্পেস্টেরোলের মতো মেটাবলাইটস রয়েছে যা শরীরকে প্রদাহ বা যন্ত্রণা থেকে রক্ষা করে। এসব কোলেস্টোরেল কমাতেও এসব সাহায্য করে।

“এছাড়াও পান্তা ভাতে রয়েছে আইসোরহ্যামনেটিন-সেভেন-গ্লুকোসাইড ফ্ল্যাভোনয়েডের মতো মেটাবলাইটস যা ক্যান্সার প্রতিরোধে সাহায্য করে।”

তিনি জানান, গবেষণায় তারা দেখেছেন যে পান্তা ভাতে ল্যাকটিক এসিড ব্যাকটেরিয়া রয়েছে যা স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী। সাধারণত দই-এর মধ্যে এই ব্যাকটেরিয়া পাওয়া যায়।

এছাড়াও গরমের সময় পান্তা ভাত শরীরকে ঠাণ্ডা রাখে।

অপকারিতা

আসাম কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণায় পান্তা ভাতের কোনো খারাপ দিক পাওয়া যায় নি।

তবে ডায়াবেটিক রোগীদের জন্য এই খাবার ক্ষতিকর কীনা সেটা জানতে তারা এখনও কাজ করছেন।

তবে মধুমিতা বড়ুয়া বলেছেন, ১২ ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে ভাতের ফারমেন্টেশন হলে সেখানে অ্যালকোহলের উপাদান তৈরি হয় এবং সেই পান্তা ভাত খাওয়ার পর শরীর ম্যাজ ম্যাজ করে ও ঘুম পেতে পারে।

এছাড়াও পান্তা ভাত যদি পরিষ্কার পাত্রে বিশুদ্ধ পানি দিয়ে তৈরি করা না হয়, তাহলে সেখানে ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া তৈরি হতে পারে। তিনি জানান, সেই ভাত খেলে মানুষ অসুস্থ হয়ে পড়বে।

বাংলাদেশ ছাড়াও ভারতের পশ্চিমবঙ্গ, আসাম, বিহার, উড়িষ্যা, দক্ষিণ ভারতের তামিলনাড়ু, অন্ধ্রপ্রদেশ, কেরালা- এসব অঞ্চলেও জনপ্রিয় খাবার এই পান্তা ভাত। তবে একেক জায়গায় পান্তা ভাতকে একেক নামে ডাকা হয়।

থাইল্যান্ড, মিয়ানমার, চীন, ইন্দোনেশিয়াতেও ফার্মেন্টেড রাইস খাওয়া হয় তবে সেটা তৈরি করার প্রক্রিয়া ও স্বাদ পান্তা ভাতের চেয়ে আলাদা।-বিবিসি »
0 Share Comment
Deshi Group
25 July 2021, 13:33

বেড়ার ঘর

0 Share Comment
Deshi Group
25 July 2021, 13:30

ভার্চুয়ালি অলিম্পিকের বিশেষ সম্মাননা পেলেন ড. ইউনূস

ভার্চুয়ালি অলিম্পিকের বিশেষ সম্মাননা পেলেন ড. ইউনূস
শুক্রবার বাংলাদেশ সময় বিকেল পাঁচটায় শুরু হয় টোকিও অলিম্পিকের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। যেখানে ‘অলিম্পিক লরেল’ নামের বিশেষ সম্মাননা দেওয়া হয়েছে বাংলাদেশের নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ ড. মুহাম্মদ ইউনূসকে। অ্যাথলেটদের প্যারেড শুরুর আগে ভার্চুয়ালি তাকে এই সম্মাননা দেওয়া হয়।

খেলাধুলার উন্নয়নের জন্য বিশেষ কাজের স্বীকৃতি হিসেবে এই সম্মাননা পেয়েছেন ইউনূস। পাঁচ বছর আগে ‘অলিম্পিক লরেল’ সম্মাননা দেওয়া শুরু করে আইওসি। ২০০৬ সালে ক্ষুদ্র ঋণ দিয়ে দারিদ্র্য কমানোর স্বীকৃতিস্বরূপ নোবেল পান তিনি।

সংস্কৃতি, শিক্ষা ও শান্তিতে প্রচেষ্টার স্বীকৃতি ও ক্রীড়াঙ্গনের উন্নতির জন্য এই সম্মাননা দেওয়া শুরু করে তারা। ২০১৬ রিও অলিম্পিকে প্রথমবারের মতো এই পুরস্কার দেওয়া হয় কেনিয়ার সাবেক অলিম্পিয়ান কিপ কাইনোকে।
0 Share Comment
Deshi Group
25 July 2021, 13:27

বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাসের সংক্রমণের উদ্বেগজনক ঊর্ধ্বগতি দেখা যাচ্ছে। করোনার নতুন এই ঢেউয়ের জন্য যেসব কারণকে জনস্বাস্থ্যবিদেরা দায়ী করছেন, এর মধ্যে প্রধানতম হলো ডেলটা ধরনের বিস্তার। করোনার অন্য সব ধরনের চেয়ে ডেলটা কেন দ্রুত ছড়াচ্ছে, তা খতিয়ে দেখেছে সিএনএন অনলাইন।
সিএনএন অনলাইনের প্রতিবেদনে বলা হয়, ডেলটা করোনার একটি উচ্চ সংক্রামক ধরন। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) বলেছে, গত বছরের শেষ দিকে যুক্তরাজ্যে প্রথম শনাক্ত হয় করোনার আলফা ধরন। এই ধরনকে অতি সংক্রামক হিসেবে চিহ্নিত করা হয়। কিন্তু আলফার চেয়ে ডেলটা ৫৫ শতাংশ দ্রুত ছড়ায়।
মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের করোনা মোকাবিলা-সংক্রান্ত দলের সাবেক উপদেষ্টা অ্যান্ডি স্লাভিট বলেন, ডেলটাকে কোভিড-১৯-এর ২০২০ সালের সংস্করণ হিসেবে বিবেচনা করা উচিত।

করোনাভাইরাসের উৎপত্তি ও বিস্তার শুরু হয় ২০১৯ সালের শেষ ভাগে চীনে। এরপর এই ভাইরাস সারা বিশ্বে মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়ে। করোনাভাইরাসের বৈশিষ্ট্যই হচ্ছে তা নিয়মিত রূপান্তরিত হয়। এই রূপান্তরের প্রক্রিয়ায় ইতিমধ্যে বিশ্বে ভাইরাসটির অনেকগুলো ধরন বা সংস্করণ সৃষ্টি হয়েছে। এর মধ্যে ডেলটা অন্যতম।
২০২০ সালের শেষ দিকে ভারতে প্রথম করোনার ডেলটা ধরন শনাক্ত হয়। একে শুরুর দিকে করোনার ভারতীয় ধরন বলা হতো। পরে ডব্লিউএইচওর পক্ষ থেকে এই ধরনের নতুন নাম দেওয়া হয় ‘ডেলটা ভেরিয়েন্ট’। ধরনটির বৈজ্ঞানিক নাম (বি.১.৬১৭)। গত মে মাসে করোনার ডেলটা ধরনকে ‘উদ্বেগজনক ধরন’ হিসেবে তালিকাভুক্ত করে ডব্লিউএইচও।
ভারতে করোনার ডেলটা ধরন শনাক্তের পর তা দ্রুত দেশটিতে ছড়িয়ে পড়ে। একপর্যায়ে ভারতে করোনার ডেলটা ধরন প্রাধান্যশীল হয়ে ওঠে। ডেলটা ধরনের কারণেই ভারতে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ মারাত্মক আকার ধারণ করে। সংক্রমণে বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে দেশটি। এতে ভারতের স্বাস্থ্যব্যবস্থা কার্যত ভেঙে পড়ে।
পরে করোনার ডেলটা ধরন যুক্তরাজ্যে শনাক্ত হয়। এরপর একের পর এক দেশে ডেলটা ধরন শনাক্ত হওয়ার খবর আসতে থাকে।
ডব্লিউএইচও বলছে, বর্তমানে বিশ্বের প্রায় ১০০টি দেশে করোনার ‘ডেলটা’ ধরন শনাক্ত হয়েছে। ডব্লিউএইচও সতর্ক করে বলেছে, বিশ্বে ডেলটার সংক্রমণ দ্রুত বাড়ছে। ফলে করোনার এই ধরন অন্য সব ধরনকে দ্রুত ছাপিয়ে যেতে পারে। এভাবে শিগগিরই বিশ্বে ডেলটা করোনার আধিপত্যশীল ধরন হয়ে উঠতে পারে।
ব্রাউন ইউনিভার্সিটির স্কুল অব পাবলিক হেলথের ডিন আশীষ ঝা বলেন, করোনা মহামারি শুরুর পর থেকে এখন পর্যন্ত এই ভাইরাসের যতগুলো সংস্করণ শনাক্ত হয়েছে, তার মধ্যে ডেলটা সবচেয়ে সংক্রামক। তিনি বলেন, ‘এটা (ডেলটা) সত্যিই খুব সংক্রামক।’
যুক্তরাষ্ট্রে গত মার্চে প্রথম করোনার ডেলটা ধরন শনাক্ত হয়। জুলাইয়ের শুরুর দিকে যুক্তরাষ্ট্রে শনাক্ত রোগীদের অর্ধেকের বেশি ছিলেন ডেলটায় সংক্রমিত। যুক্তরাষ্ট্রের সেন্টারস ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন (সিডিসি) জানায়, এখন এই হার এখন ৮৩–তে পৌঁছে গেছে।
সিডিসির পরিচালক রচেল ওয়ালেনস্কি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রে করোনার ডেলটার সংক্রমণ বৃদ্ধির এই হার নাটকীয়।
যুক্তরাষ্ট্রের ৫০টি অঙ্গরাজ্যের সব কটিতেই করোনার ডেলটা ধরন পাওয়া গেছে। তাহলে প্রশ্ন জাগে, করোনার এই ধরন এত দ্রুত কীভাবে ছড়াচ্ছে?
একটি গবেষণা ইঙ্গিত দিয়েছে যে করোনার অন্য সব ধরনের চেয়ে এই ডেলটা ধরন মানুষের মধ্যে দ্রুতগতিতে সংক্রমণ ছড়িয়ে থাকতে পারে। কারণ, ধরনটি মানুষের শরীরে দ্রুত হারে নিজের অনেকগুলো ‘কপি’ করতে পারে।
চীনের বিজ্ঞানীরা ডেলটায় সংক্রমিত রোগীদের নিয়ে গবেষণা করেছেন। এ ক্ষেত্রে তাঁরা মহামারির শুরুর দিকে আক্রান্ত রোগীদের সঙ্গে ডেলটায় সংক্রমিত রোগীদের তুলনা করেছেন। তাঁরা দেখতে পেয়েছেন যে ডেলটায় সংক্রমিত রোগীদের শরীরে ভাইরাসের উপস্থিতি অনেক বেশি। তুলনামূলক বিচারে এই পরিমাণ ১ হাজার ২৬০ গুণ বেশি।
ব্রাউন ইউনিভার্সিটির স্কুল অব পাবলিক হেলথের ডিন আশীষ ঝা বলেন, যাঁরা ডেলটা ধরনে সংক্রমিত হচ্ছেন, তাঁদের শরীরে ভাইরাসের পরিমাণ অনেক বেশি। শরীরে ভাইরাস প্রবেশের খুব অল্প সময়ের মধ্যেই তা অনেক বেড়ে যাচ্ছে। এই সময়টা পাঁচ বা সাত মিনিট। তা ছাড়া এই ধরনে সংক্রমিত হতে আক্রান্ত ব্যক্তির ছয় ফুট দূরত্বের মধ্যেও কাউকে আসতে হবে না।
যাঁরা মানুষ টিকা নেননি, তাঁরাই বেশি ডেলটায় সংক্রমিত হচ্ছেন বলে জানান আশীষ ঝা। তিনি আরও বলেন, ডেলটা থেকে লোকজন সহজেই সংক্রমিত হচ্ছেন।

0 Share Comment
National/International News Group
24 July 2021, 23:11

বৃহস্পতির ‘চাঁদে’ রকেট পাঠাচ্ছে নাসা

বৃহস্পতির ‘চাঁদে’ রকেট পাঠাচ্ছে নাসা-ছবি: সংগৃহীত
বৃহস্পতির ‘চাঁদ’খ্যাত উপগ্রহ ইউরোপায় অভিযান চালাতে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা। আগামী কয়েক বছরের মধ্যে এই অভিযান চালানো হবে।
সেই লক্ষ্যে মার্কিন ধনকুবের ইলন মাস্কের সংস্থা স্পেস এক্সের সঙ্গে চুক্তি করেছে তারা। চুক্তি অনুযায়ী ইউরোপযাত্রায় ব্যবহার করা হবে স্পেস এক্সের তৈরি ফ্যালকন হেভি রকেট। খবর এএফপির।

২০২৪ সালের অক্টোবরে যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা অঙ্গরাজ্যের কেনেডি স্পেস সেন্টার থেকে ইউরোপার দিকে যাত্রা করবে ফ্যালকন হেভি। রকেটটি ব্যবহার করতে ইলন মাস্কের সঙ্গে ১৭ কোটি ৮০ লাখ মার্কিন ডলারের চুক্তি করেছে নাসা।

বৃহস্পতির উপগ্রহটি আদতেই জীবন ধারণের জন্য উপযুক্ত কি না তা জানতেই চালানো হবে এ অভিযান।
বৃহস্পতি গ্রহের এই চাঁদ পৃথিবী থেকে ৬৩০ মিলিয়ন কিলোমিটার দূরে অবস্থিত। ধারণা করা হচ্ছে, সেখানে পৌঁছাতে পাঁচ বছরের বেশি সময় লাগবে।
0 Share Comment
National/International News Group
24 July 2021, 23:09

প্রতি বছর লাখ লাখ রোগী চিকিৎসার জন্য বাংলাদেশ থেকে ভারতে যান। দিন দিন এ সংখ্যা বেড়েই চলছে।
ভারতের কেন্দ্রীয় পর্যটন মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ২০২০ সালে ভারতে চিকিৎসা
নিতে যাওয়া বিদেশি নাগরিকদের মধ্যে ৫৪.৩ শতাংশই বাংলাদেশি। যা অন্য যেকোনো
দেশের তুলনায় অনেক বেশি। 


টাইমস অব ইন্ডিয়ার খবরে বলা হয়, গত বছর ভারতের মেডিকেল ট্যুরিস্টদের
মধ্যে বাংলাদেশি ছিল ৫৪ দশমিক ৩ শতাংশ। দ্বিতীয় ইরাকিরা, তাদের হার ৯
শতাংশ। এরপর আফগানিস্তান থেকে ৬ শতাংশ, মালদ্বীপ থেকে ৪ দশমিক ৫ এবং
আফ্রিকার কয়েকটি দেশ থেকে গেছেন ৪ শতাংশ লোক।


২০০৯ সালে ভারতে চিকিৎসা নিতে যাওয়া বিদেশিদের মধ্যে বাংলাদেশিদের হার
ছিল ২৩.৬ শতাংশ। সে বছর ৫৭. ৫ শতাংশ মেডিকেল ট্যুরিস্ট নিয়ে এ তালিকার
শীর্ষে ছিল মালদ্বীপ। এরপর ক্রমাগত বাংলাদেশিদের হার বেড়েছে এবং কমেছে
মালদ্বীপের।


২০১৯ সালে ভারতে মেডিকেল ট্যুরিস্টদের মধ্যে বাংলাদেশিদের হার দাঁড়ায় ৫৭
দশমিক ৫ শতাংশ, বিপরীতে মালদ্বীপের হার নেমে আসে মাত্র ৭ দশমিক ৩ শতাংশে। 


ভারতীয় স্বাস্থ্যসেবা প্রতিষ্ঠান ফোরটিস হেলথকেয়ারের ভাইস-প্রেসিডেন্ট
ডা. মনীষ মাত্তো বলেন, দিল্লি এবং মুম্বাইয়ের বেশিরভাগ মেডিকেল ট্যুরিস্ট
আসেন বাংলাদেশ এবং পশ্চিম এশিয়া থেকে। চেন্নাই পায় মালদ্বীপ, শ্রীলঙ্কা এবং
মরিশাস থেকে। ব্যাঙ্গালুরুর অধিকাংশ মেডিকেল ট্যুরিস্ট বাংলাদেশ, পশ্চিম
এশিয়া এবং আফ্রিকান দেশগুলো থেকে আসে।


ভারতের ন্যাশনাল মেডিকেল অ্যান্ড ওয়েলনেস ট্যুরিজম প্রমোশন বোর্ডের
সদস্য প্রখ্যাত চিকিৎসক দেবী শেঠি জানান, বাংলাদেশিরা চিকিৎসা সেবার জন্য
ভারতের প্রতি আকৃষ্ট হওয়ার ক্ষেত্রে সেখানকার উন্নত চিকিৎসার ব্যবস্থা
ছাড়াও একই ধরনের খাবার, ভাষা, সাশ্রয়ী মূল্যে চিকিৎসা এবং সাংস্কৃতিক
স্বাচ্ছন্দ্য অন্যতম প্রভাবক হিসেবে কাজ করে।


ডা. দেবী শেঠির মতে, তাদের বিদেশি রোগীদের মধ্যে বেশিরভাগই যান জটিল
হার্ট সার্জারি এবং ক্যান্সারের চিকিৎসা করাতে। করোনাভাইরাস মহামারি শুরুর
পর থেকে বিদেশি রোগীর সংখ্যা একেবারেই কমে গেছে। এটি আবার আগের অবস্থায়
ফিরতে কয়েক মাস লাগতে পারে।

0 Share Comment
National/International News Group
24 July 2021, 23:07

নভেল করোনাভাইরাসে যারা দীর্ঘদিন ভুগে নেগেটিভ হয়েছেন, তারা দুই শতাধিক সমস্যায় পড়তে পারেন বলে জানিয়েছেন ব্রিটিশ গবেষকেরা।


ইউনিভার্সিটি কলেজ লন্ডনের গবেষকেরা বলছেন, করোনার সমস্যা কতটা প্রকট
হতে পারে এবং কীভাবে মানুষকে দীর্ঘদিন ভোগাতে পারে এই গবেষণা তার উদাহরণ।


সায়েন্স অ্যালার্টের প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, ৫৬টি দেশের ৩ হাজার ৭৬২ জন করোনা রোগীকে নিয়ে গবেষণাটি করা হয়েছে।


উপসর্গগুলোর মধ্যে প্রথমেই রয়েছে ক্লান্তি। রয়েছে শারীরিক ও মানসিক
অস্বাচ্ছন্দ্য বোধ। স্নায়ুঘটিত ব্রেন ফগ রোগ। পরিচিতদের চিনতে না পারা,
পুরোনো কথা ভুলে যাওয়া, আত্মীয় পরিজনদের নাম ভুলে যাওয়া। এ ছাড়া রয়েছে
ভিজ্যুয়াল হ্যালুসিনেশন বা চোখে গোলকধাঁধা দেখা, হাত, পা ও সারা শরীরে
কাঁপুনি, যৌনেচ্ছা এবং যৌনক্ষমতায় হ্রাস এবং ডায়রিয়ার মতো বহু জটিল উপসর্গ।


যে সাড়ে ৩ হাজারেরও বেশি কভিড রোগীকে পরীক্ষা করা হয়েছে, গবেষকেরা
দেখেছেন তাদের প্রত্যেককেই এই সবকটি উপসর্গে গড়ে ৫৬ শতাংশ হারে ভুগছেন।


তাদের প্রায় ১০টি অঙ্গপ্রত্যঙ্গের অস্বাভাবিকতা দীর্ঘ দিন ধরে লক্ষ্য করা গেছে।


নর্থ ব্রিস্টল এনএইচএস ট্রাস্টের আরেকটি গবেষণায় দেখা গেছে, হাসপাতালে
ভর্তি হওয়া ৭৫ শতাংশ রোগী কয়েক মাস পরেও সমস্যায় ভুগছেন। এর নামই মূলত ‘লং
কভিড’।

0 Share Comment
National/International News Group
24 July 2021, 22:55

বিশ্বের দ্রুততম সুপারকম্পিউটার তৈরির দাবি চীনের

বিশ্বের দ্রুততম সুপারকম্পিউটার তৈরির দাবি চীনের
চীনের বিজ্ঞানীরা নতুন একটি সুপারকম্পিউটার তৈরি করেছেন, যার মাধ্যমে ৮ বছরের হিসাব ৭২ মিনিটে করা সম্ভব বলে দাবি তাদের।

দেশটির ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজির গবেষক প্যান জিয়ানওয়ের নেতৃত্বাধীন টিম সম্প্রতি একটি গবেষণা প্রতিবেদন প্রকাশ করেছেন। সেটি এখনো পিয়ার-রিভিউড হয়নি।

ওই প্রতিবেদনে প্যান জিয়ানওয়ে বলেছেন, ‘অন্য সুপার কম্পিউটারের যেসব হিসাব করতে কয়েক বছর লেগে যাবে, আমরা তা করতে পারবো কয়েক ঘণ্টায়।’

বছর দুই আগে গুগল একটি সুপার কম্পিউটার তৈরির দাবি তোলে। সেটিই এখন পর্যন্ত সবচেয়ে শক্তিশালী সুপার কম্পিউটার হিসেবে বিবেচিত হচ্ছিল।

চীন বলছে তাদের সুপারকম্পিউটার আরও বেশি শক্তিশালী। ৬৬ কিউবিটের এই সুপারকম্পিউটারের নাম দেওয়া হয়েছে ‘জুশংসি’।

সাধারণ বা ‘ক্ল্যাসিক্যাল’ কম্পিউটারে যেটা ‘বিটস’ সেটাই কোয়ান্টাম কম্পিউটারের ক্ষেত্রে ‘কোয়ান্টাম বিটস’ বা ‘কিউবিটস’। রিভিউ পর্যায় পেরিয়ে গবেষণাপত্রটি একটি আন্তর্জাতিক বিজ্ঞান গবেষণা পত্রিকায় এখন প্রকাশের অপেক্ষায়।

ইম্পিরিয়াল কলেজ লন্ডনের পদার্থবিদ পিটার নাইট বলেছেন, ‘মানতেই হবে গবেষকেরা অসাধ্যসাধন করেছেন। এত তাড়াতাড়ি এমন দ্রুত সুপারকম্পিউটার আমরা বানিয়ে ফেলতে পারব বলে আমার অন্তত আশা ছিল না। এই উদ্ভাবন জ্যোতির্বিজ্ঞান, মহাকাশবিজ্ঞানে তো বটেই সাধারণ মানুষেরও কাজে লাগতে শুরু করবে হয়তো আর কয়েক বছর পর থেকেই।’
0 Share Comment
National/International News Group
24 July 2021, 22:52

৬০০ কিমি গতির বিশ্বের দ্রুততম ট্রেন উদ্বোধন হলো চীনে

৬০০ কিমি গতির বিশ্বের দ্রুততম ট্রেন উদ্বোধন হলো চীনে
‘বিশ্বের দ্রুততম ট্রেন’ উদ্বোধন করেছে চীন। চীনের পূর্ব শ্যাংডং প্রদেশের কিংডাও শহরে এ নতুন ম্যাগলেভ বুলেট ট্রেনের উদ্বোধন হয়। ট্রেনটি ঘণ্টায় ৬০০ কিলোমিটার বা ৩৭৩ মাইল বেগে চলতে পারে বলে সিএনএন এক প্রতিবেদনে জানায়।

ট্রেনটি তৈরি করছে চীনের সরকারি রেল নির্মাণ প্রতিষ্ঠান ‘চায়না রেলওয়ে রোলিং স্টক করপোরেশন (সিআরআরসি)’।

সিআরআরসি এর ডিজিএম ও প্রধান প্রকৌশলী লিয়াং শিয়ানইং চীনের জাতীয় গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, অন্যান্য দ্রুতগতির ট্রেনের তুলনায় ট্রেনটিতে শব্দ দূষণের পরিমাণ উল্লেখযোগ্য পরিমাণে কম এবং এর রক্ষণাবেক্ষণের খরচও তূলনামুলকভাবে কম।

বর্তমানে চীনের একটি দ্রুতগতির রেলগাড়ি গড়ে ঘণ্টায় ৩৫০ কিলোমিটার গতিতে চলতে পারে। আর উড়োজাহাজগুলো চলে ঘণ্টায় ৮০০ থেকে ৯০০ কিলোমিটার গতিতে।

বাণিজ্যিক ব্যবহারের জন্য চীনে একটিমাত্র ম্যাগলেভ লাইন চালু আছে। এটি সাংহাই শহরের পুডং বিমানবন্দর থেকে লংইয়াং রোড স্টেশনের মধ্যে সংযোগ স্থাপন করেছে। ৩০ কিলোমিটার (১৯ মাইল) দীর্ঘ যাত্রাটি সম্পন্ন করতে সময় লাগে সাড়ে সাত মিনিট এবং এই ট্রেনটির গতিবেগ ঘণ্টায় ৪৩০ কিলোমিটার (ঘণ্টায় ২৬৭ মাইল)।

‘ম্যাগনেটিক লেভিটেশন’ এর সংক্ষিপ্ত রূপ হলো ‘ম্যাগলেভ’। তড়িচ্চুম্বকীয় শক্তিতে চালিত ট্রেনটি যখন লাইনের ওপর দিয়ে ছুটে যায়, তখন মনে হয় এটি যেন ভেসে যাচ্ছে। ভেসে যাওয়া বোঝাতেই ইংরেজিতে লেভিটেশন শব্দটি ব্যবহার করা হয়েছে। এর গতিকে বন্দুক থেকে ছুটে যাওয়া গুলির সঙ্গে তুলনা করে ট্রেনটিকে ম্যাগলেভ বুলেট ট্রেন নামকরণ করা হয়েছে।

২০১৯ এ গণমাধ্যমের কাছে এই ট্রেনের একটি প্রোটোটাইপ প্রকাশ করা হয়েছিল। একই বছরে চীন বড় শহরগুলোর মধ্যে ‘৩ ঘণ্টায় যাতায়াতের’ উচ্চাভিলাষী পরিকল্পনাটিও ঘোষণা করেছিল।

চীন বর্তমানে দ্রুত গতির রেল যোগাযোগ নিয়ে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে কাজ করছে। দেশটির সব বড় বড় শহরের মধ্যে যাতায়াতের সময় ও খরচ কমিয়ে আনাই চীন সরকারের মূল লক্ষ্য।
0 Share Comment
National/International News Group
24 July 2021, 22:51

বছরের সবচেয়ে পাতলা ও হালকা স্মার্টফোন মি ১১ লাইট বাজারে

বছরের সবচেয়ে পাতলা ও হালকা স্মার্টফোন মি ১১ লাইট বাজারে
গ্লোবাল টেকনোলজি লিডার শাওমি বাংলাদেশের বাজারে উন্মোচন করেছে ২০২১ সালের সবচেয়ে পাতলা ও হালকা ওজনের স্মার্টফোন মি ১১ লাইট।

নজর কাড়া ডিজাইনের এই ডিভাইসটি ফ্ল্যাগশিপ লেভেলের পারফরম্যান্স দেবে। হালকা ওজনের পাশাপাশি ভালো পারফরম্যান্সের স্মার্টফোন খুঁজলে মি ১১ লাইট হতে পারে আপনার জন্য সেরা ডিভাইস।

স্মার্টফোনটির উন্মোচন উপলক্ষে শাওমি বাংলাদেশের কান্ট্রি জেনারেল ম্যানেজার জিয়াউদ্দিন চৌধুরী বলেন, ‘শাওমি ব্র্যান্ড হিসেবে উপলব্ধি করতে পারে মি ফ্যানদের জন্য প্রযুক্তি কতটা অপরিহার্য। সে কারণেই মি সিরিজের মাধ্যমে আমাদের লক্ষ্য অর্থবহ উদ্ভাবন ও সেরা প্রযুক্তির মাধ্যমে গ্রাহকদের সকল চাহিদা পরিপূর্ণ করা। মি ১১ সিরিজটিও এর ব্যতিক্রম নয়।

আগের সফলতায় অনুপ্রাণিত হয়ে, ফ্যাশনেবল তরুণদের জন্য হালকা-পাতলা ডিজাইন ও ফ্ল্যাগশিপ লেভেলের পারফরম্যান্স দিতে আমরা নিয়ে এসেছি মি ১১ লাইট।

ফোনটির ওজন মাত্র ১৫৭ গ্রাম; মি ১১ লাইট ডিভাইসটিত আছে পাতলা ও প্রিমিয়াম ফিনিশ, প্রায় বেজেলহীন ৯০ হার্জ ডিসপ্লে এবং দারুন ট্রিপল ক্যামেরা সেটআপে।’ ডিজাইন যারা সবসময় নতুন ডিজাইন খোঁজেন তাদের জন্য আনা হয়েছে ২০২১ সালের সবচেয়ে পাতলা ও হালকা ওজনের স্মার্টফোন মি ১১ লাইট। এর পুরুত্ব মাত্র ৬.৮মিমি এবং ওজন মাত্র ১৫৭ গ্রাম। মি ১১ লাইট ফোনটি হাতে ধরে ব্যবহারের জন্য খুবই উপযোগী একটি ডিভাইস।

ফোনটির সামনে পাঞ্চ-হোল ডিজাইনের ক্যামেরা ও বেজেলহীন ডিসপ্লে রয়েছে। যারা বড় স্ক্রিন চান তাদের জন্যই ডিভাইসটি ডিজাইন করা হয়েছে। ফোনটির পাশে দেয়া হয়েছে কার্ভড ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর, যা খুব দ্রুত ও মসৃণভাবে ফোন আনলক করার অভিজ্ঞতা দিবে। মি ১১ লাইট ফোনটি আসছে জ্যাজ ব্লু, স্ক্যানি কোরাল এবং ভিনিল ব্ল্যাক রঙে। এই তিনটি কালার ভ্যারিয়েন্টই ফোনটিকে দেখতে অনন্য করে তুলেছে। উন্নত অ্যামোলেড অভিজ্ঞতা মি ১১ লাইট ফোনটিতে দেয়া হয়েছে স্পোর্টস ৬.৫৫ ইঞ্চির ১০-বিট অ্যামোলেড ডট-ডিসপ্লে।

এই ক্যাটাগরির স্মার্টফোনের মধ্যে এটিই প্রথম যা এমন ডিসপ্লে দিয়েছে। ডিভাইসটি আসছে ১.০৭ বিলিয়ন অন স্ক্রিন কালারে, যা এর পূর্বসূরিদের থেকে ৬৪ গুণ বেশি (৮-বিট ডিসপ্লে)। ফোনটির ডিসপ্লেতে চমৎকার কালার গ্রাডিয়েশন থাকায় ফোনটি দিয়ে যেকোনো অ্যাঙ্গেল থেকে ছবি দেখার ক্ষেত্রে দেবে অসাধারণ অভিজ্ঞতা।

ডিসপ্লের ফিচার হিসেবে আরও আছে ১০০% ডিসিআই-পি৩ কালার গামুট, যা নিশ্চিত করে উচ্চমানের ছবি, উচ্চ রঙের সুক্ষ্মতা এবং রঙ ধরে রাখার সক্ষমতা। ডিসপ্লেতে ৯০ হার্জ রিফ্রেশ রেট ও ২৪০ হার্জ টাচ-স্যাম্পল রেট থাকায় টাচ হবে দুর্দান্ত, ফলে ব্যবহারকারীরা ডিসপ্লেতে কোনো ল্যাগ পাবেন না। ডিসপ্লের স্থায়িত্ব বাড়াতে সামনে ও পিছনে দেয়া হয়েছে কর্নিং গরিলা গ্লাস ৫ এর সুরক্ষা। মি ১১ লাইট ডিভাইসটি স্পষ্ট শব্দের সঙ্গে দেবে দুর্দান্ত সব ছবি। মি ১১ লাইট ফোনে রয়েছে ডুয়েল স্পিকার সেটআপ, সাপোর্ট করে হাই-রেস অডিও এবং সঙ্গে আছে হাই-রেস অডিও ওয়্যারলেস সার্টিফিকেশন, তৈরি করা যাবে সব মিডিয়ার জন্য কনটেন্ট। ক্যামেরা পারফরম্যান্স সরু ও হালকার মধ্যে মি ১১ লাইট ফোনটিতে দেয়া হয়েছে ট্রিপল ক্যামেরা সেটআপ।

এর প্রাইমারি ক্যামেরা ৬৪ মেগাপিক্সেলের, আছে ৮ মেগাপিক্সেলের আল্ট্রা-ওয়াইড লেন্স এবং তার সঙ্গে একটি ৫ মেগাপিক্সেলের টেলিম্যাক্রো ক্যামেরা। মি ১১ লাইট ফোনটিতে পাওয়া যাবে সেরা ক্যামেরা পারফরম্যান্স। খুব সহজেই ফোনটি দিয়ে ব্যবহারকারীরা প্রফেশনাল গ্রেডের ছবি তুলতে পারবেন।

ওয়াইড শট নেয়ার জন্য সহায়তা করবে ৮ মেগাপিক্সেলের আল্ট্রা-ওয়াইড সেন্সর, যেখানে সর্বোচ্চ ডিটেইলসহ কোনো বিষয়ের ছবি তুলতে সহায়তা করবে ৫ মেগাপিক্সেলের টেলিম্যাক্রো ক্যামেরা। মি ১১ লাইট সামনে দিয়েছে ১৬ মেগাপিক্সেলের সেলফি ক্যামেরা। এই ক্যামেরা দিয়ে দিন ও রাতের যে কোনো সময় স্পষ্ট ও আকর্ষণীয় সেলফি তুলতে পারবেন ব্যবহারকারীরা। প্রাকৃতিক কালার ও গতিশীল ইমেজ প্রসেসিংসহ ৩০ এফপিএস-এ ফোরকে ভিডিও শ্যুট করা যাবে। ক্যামেরা অ্যাপটি ২৩টি ডিরেক্টর মোডে এসেছে। অতিরিক্ত লেন্স ছাড়াই ফোনটিতে করা যাবে প্রো লেভেলের শ্যুট। মি ১১ লাইট ফোনে রয়েছে বেশ কিছু বিল্ট-ইন ফিচার, যার মধ্যে রয়েছে ম্যাজিক জুম, প্যারালাল ওয়ার্ল্ড, ভ্লগ মোড এবং আরও অনেক কিছু। কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৭৩২ জি প্রসেসর পূর্বসূরিদের মতো ফ্ল্যাগশিপ পারফরম্যান্স দিতে মি ১১ লাইট ফোনটিতে দেওয়া আছে কোয়ালকমের স্ন্যাপড্রাগন ৭৩২ জি প্রসেসর। এটি ৮ ন্যানোমিটার প্রযুক্তিতে তৈরি, যা দেবে শক্তিশালী, দক্ষ ও অসামান্য গতি।

প্রসেসরটি তৈরি করা হয়েছে গেইমিং পারফরম্যান্সের জন্য, এ জন্য দেয়া হয়েছে আল্ট্রা-লাইট লিকুইড-কুল প্রযুক্তি, যা স্মার্টফোনটিকে গরম হতে দেয় না। মি ১১ লাইট ফোনটিতে মাল্টিটাস্কিং এ পাওয়া যাবে দুর্দান্ত অভিজ্ঞতা।

এ ছাড়া থাকছে এলপিডিডিআর৪এক্স র‍্যাম এবং ইউএফএস ২.২, এটি ফোনটির পারফরম্যান্সকে আরও বাড়িয়ে দেয়। শক্তিশালী ব্যাটারি স্মার্টফোনে শক্তিশালী পারফরম্যান্স দিতে প্রয়োজন শক্তিশালী ব্যাটারি। তাই মি ১১ লাইট ডিভাইসে দেয়া হয়েছে শক্তিশালী ৪,২৫০ এমএএইচের ব্যাটারি। ফোনটি সাপোর্ট করবে ৩৩ ওয়াটের ফাস্ট চার্জিং। শক্তিশালী ব্যাটারি যে কোনো ভারী কাজ করার পরও সারা দিন ব্যাকআপ দেবে। হালকা ও পাতলা ফোন হিসেবে এটাই প্রথম যেখানে এতো শক্তিশালী ব্যাটারি দেয়া হয়েছে।

দাম মি ১১ লাইট স্মার্টফোনটি দেশের বাজারে জ্যাজ ব্লু, স্ক্যানি কোরাল এবং ভিনিল ব্ল্যাক তিনটি কালার ভ্যারিয়েন্টে পাওয়া যাচ্ছে। ফোনটির ৬+১২৮ জিবি ও ৮+১২৮ জিবি ভ্যারিয়েন্টের দাম যথাক্রমে ২৯,৯৯৯ ও ৩১,৯৯৯ টাকা।

0 Share Comment
National/International News Group
24 July 2021, 18:46

সারাদেশে কোরবানি হয়েছে ৯০ লাখ ৯৩ হাজার ২৪২ পশু

সারাদেশে কোরবানি হয়েছে ৯০ লাখ ৯৩ হাজার ২৪২ পশু
ঈদুল আযহায় সারাদেশে মোট ৯০ লাখ ৯৩ হাজার ২৪২টি গবাদিপশু কোরবানি হয়েছে বলে জানিয়েছে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়। শনিবার (২৪ জুলাই) মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. ইফতেখার হোসেন এ তথ্য জানিয়েছেন।

তবে এ বছর কোরবানির জন্য পশু প্রস্তুত ছিল প্রায় ১ কোটি ১৯ লাখ ১৬ হাজার ৭৬৫টি। ঈদের আগে ধারণা করা হয়েছিল যে, এবার কোরবানিতে ৯৯ লাখ ২২ হাজার পশু কোরবানি হতে পারে। সে হিসেবে প্রায় ২০ লাখ গবাদিপশু উদ্বৃত্ত থাকতে পারে বলে ধারণা করা হয়েছিল। তবে ঈদের পর যে হিসাব পাওয়া গেছে সে অনুযায়ী, প্রত্যাশার চেয়ে কম গরু কোরবানি হয়েছে।

যথেষ্ট দাম না পেয়ে পাইকার ও খামারিরা তাদের গবাদি পশু ফেরত নিয়ে গেছেন। অনেকে লোকসানে হলেও বিক্রি করে দিয়েছেন। খামারিরা বলছেন, গবাদি পশু লালন পালন করতে যে খরচ হয়েছে, অনেক সময় সে খরচও উঠে আসেনি।

প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের আগেই বলেছিল যে, চাহিদা কমে যাওয়া ও গ্রাম থেকে শহরে পশু আসতে প্রতিবন্ধকতার কারণে এবার গবাদিপশু অবিক্রীত থাকতে পারে। পাশাপাশি কভিডকালে অর্থনৈতিক সংকট তৈরি হওয়া, বাজার ব্যবস্থাপনায় জটিলতা, বিক্রির শুরুতেই কঠোর বিধিনিষেধের কবলে পড়া, বাজার পর্যন্ত গরু পরিবহন করতে না পারা, বড় শহর থেকে গ্রাম পর্যায়ে পাইকারি ব্যবসায়ী কম যাওয়া, পরিবহন খরচ বৃদ্ধি পাওয়াসহ নানা কারণে বিপণন ব্যবস্থায় এবার জটিলতা তৈরি হয়েছে।
0 Share Comment
National/International News Group
24 July 2021, 18:43

আমার স্বামী নির্দোষ,পর্ণো সাইট নিয়ে কিছু জানি না: শিল্পা

আমার স্বামী নির্দোষ,পর্ণো সাইট নিয়ে কিছু জানি না: শিল্পা
রাজ কুন্দ্রা পর্ণো ভিডিও তৈরির সঙ্গে যুক্ত নন বলে মুম্বাই পুলিশকে জানিয়েছেন বলিউড অভিনেত্রী শিল্পা শেঠি। পর্ণো ভিডিও-কাণ্ডে গ্রেপ্তার তার স্বামী রাজ কুন্দ্রা। শিল্পাকে শুক্রবার এ ব্যাপারে জেরা করে মুম্বাই পুলিশ। নিজেদের বাড়িতেই এদিন পুলিশের প্রশ্নের জবাব দেন অভিনেত্রী শিল্পা।

পুলিশকে শিল্পা জানান, হট শটস ভিডিও অ্যাপের সঙ্গে তার কোনো সম্পর্ক নেই। ওই অ্যাপে কি কনটেন্ট রয়েছে সে ব্যাপারেও কিছু জানেন না তিনি।

এরআগে গত সোমবার, পর্ণো ভিডিও তৈরি ও ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগে রাজ কুন্দ্রাকে গ্রেপ্তার করে মুম্বাই পুলিশ। সংবাদ সংস্থা এনএনআইকে শিল্পার এক ঘনিষ্ঠসূত্র জানিয়েছে, মুম্বাই পুলিশকে অভিনেত্রী সাফ জানিয়েছেন তার স্বামী নির্দোষ। শিল্পা আরও দাবি করেন, তার স্বামী পর্ণোগ্রাফি তৈরি করেন না। পাল্টা রাজের বিজনেস পার্টনার ও আত্মীয় প্রদীপ বকশির কোর্টে বল ঠেলে দেন অভিনেত্রী।

শিল্পা বলেন, লন্ডনে অবস্থানকারী প্রদীব একজন দাগী অভিযুক্ত। ওই অ্যাপের যাবতীয় কর্মকাণ্ড সেই দেখভাল করে।

এদিকে, রাজ-শিল্পার ব্যাংক হিসাব খতিয়ে দেখছে পুলিশ। রাজের অপর কোম্পানি জেএল স্ট্রিমও এখন পুলিশের নজরদাড়িতে।

ভারতীয় গণমাধ্যমের খবর, পাঁচ মাস আগে একটি ওয়েবসাইটের জন্য প্রমোশন্যাল ভিডিও শুট করেন শিল্পা। ওই ওয়েবসাইটেও অ্যাডাল্ট কনটেন্ট তুলে ধরা হয় এবং এখনও তা চালু রয়েছে।

অন্যদিকে, রাজ কুন্দ্রাকে পুলিশি হেফাজতে রাখার মেয়াদ ২৭ জুলাই পর্যন্ত বাড়িয়ে দিয়েছেন মুম্বাইয়ের আদালত। তবে গ্রেপ্তারি চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে আবেদন করেছেন রাজ কুন্দ্রা। তার আইনজীবী বলছেন, যেসব ভিডিওর জেরে রাজকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে, সেগুলো পর্ণো নয় এবং ব্রিটিশ একটি কোম্পানির জন্য তিনি সেগুলো বানিয়েছিলেন।
0 Share Comment
National/International News Group
24 July 2021, 18:40

মামলা জটিলতায় পড়ে দুই বছরেরও অধিক সময়
পর তৃতীয় গণবিজ্ঞপ্তির প্রায় ৫৪ হাজার শিক্ষক নিয়োগের চূড়ান্ত ফলাফল দিয়েছে
বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ)। এবার চতুর্থ
গণবিজ্ঞপ্তিতে আরো ৫০ হাজার শিক্ষক নিয়োগ দেওয়ার উদ্যোগ নিয়েছে সংস্থাটি।
তবে এ সংখ্যা আরো বাড়তে পারে।


বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার
সুবর্ণজয়ন্তীতে শূন্যপদ পূরণে সরকারের এজেন্ডার অংশ হিসেবে এ নিয়োগ চলতি
বছরের মধ্যেই শেষ করতে চায় এনটিআরসিএ।


ইতোমধ্যে নতুন নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি তৈরির কার্যক্রম শুরু করেছে এনটিআরসিএ
সংশ্লিষ্টরা। চতুর্থ গণবিজ্ঞপ্তিতে কত পদের বিপরীতে বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হবে তা
নিয়ে হিসাব-নিকাশ চলছে। তবে অর্ধ লাখ শিক্ষক পদের বিজ্ঞপ্তি হতে পারে বলে
জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।


এ বিষয়ে এনটিআরসিএ সচিব ড. এ টি এম মাহবুব-উল করিম গণমাধ্যমকে বলেন,
‘আশা করছি আগামী তিন মাসের মধ্যে চতুর্থ গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হবে।
ইতোমধ্যে আমরা এ বিষয়ে যাবতীয় কার্যক্রম শুরু করেছি।’


চতুর্থ গণবিজ্ঞপ্তিতে পদের সংখ্যা কত হতে পারে এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি
বলেন, ‘তৃতীয় গণ নিয়োগ বিজ্ঞপ্তিতে ৮ হাজার ৪৪৮টি পদে কোনো আবেদন না পাওয়ায়
এবং ৬ হাজার ৭৭৭টি নারী কোটায় প্রার্থী না পাওয়ায় মোট ১৫ হাজার ৩২৫টি পদে
ফলাফল দেয়া সম্ভব হয়নি। এ পদগুলো চতুর্থ গণবিজ্ঞপ্তিতে যোগ করা হবে। আর এখন
পর্যন্ত আমরা প্রায় ৩৫ হাজার শূন্য পদের চাহিদা পেয়েছি। বলা যায় সবমিলিয়ে
আবারও অর্ধলাখ শূন্য পদে শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি দেয়া হবে। তবে এ পদের
সংখ্যা কম-বেশি হতে পারে।’


এর আগে গত ১৫ জুলাই রাতে তৃতীয় গণবিজ্ঞপ্তির ফল প্রকাশ করে বেসরকারি
শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ এনটিআরসিএ। তৃতীয় গণবিজ্ঞপ্তি থেকে
এমপিওভুক্ত প্রতিষ্ঠানে ৩৪ হাজার ৬১০ জন এবং ননএমপিও প্রতিষ্ঠানে তিন হাজার
৬৭৬ জনকে প্রাথমিকভাবে সুপারিশ করে এনটিআরসিএ।


ওইদিন এক ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি বলেন,
‘বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ৫৪ হাজার শূন্য পদে শিক্ষক নিয়োগ দিতে আবেদন
প্রক্রিয়া শেষ করা হলেও আদালতে মামলার কারণে আবেদনকারীদের ফলাফল এতদিন
প্রকাশ করা সম্ভব হয়নি। আদালতের নির্দেশনা মোতাবেক ৫১ হাজার ৭৬১টি পদে
নিয়োগের ফল আজই প্রকাশ করা হবে।’


এর আগে গত ৩০ মার্চ তৃতীয় ধাপে বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে ৫৪ হাজার ৩০৪ শিক্ষক নিয়োগে গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে এনটিআরসিএ।

0 Share Comment
National/International News Group
24 July 2021, 18:35

পিছিয়ে যেতে পারে অস্ট্রেলিয়া সিরিজ

পিছিয়ে যেতে পারে অস্ট্রেলিয়া সিরিজ
জৈব সুরক্ষাবলয়ে করোনা ঢুকে যাওয়ায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ-অস্ট্রেলিয়া সিরিজ দুই দিন পিছিয়ে গেছে। একই কারণে পিছিয়ে যেতে পারে অস্ট্রেলিয়া দলের বাংলাদেশে আসাও। সে ক্ষেত্রে দুই দিন আগে ঘোষিত বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়া সিরিজের সূচিও পাল্টে যেতে পারে।

২৯ জুলাই ঢাকায় এসে তিন দিনের কোয়ারেন্টিন করে ৩, ৪, ৬, ৭ ও ৯ আগস্ট পাঁচটি টি-টোয়েন্টি খেলার কথা ছিল অস্ট্রেলিয়ার। কিন্তু এক সূত্রে জানা গেছে, পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে পাল্টে যেতে পারে এই সূচি।

বিসিবির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নিজাম উদ্দিন চৌধুরী অবশ্য বিষয়টি নিশ্চিত করেননি। তবে করোনাকালে এমন পরিস্থিতির মুখে পড়লে যে বিসিবির মানিয়ে নিতে সমস্যা হবে না, তা বোঝা গেল নিজাম উদ্দিন চৌধুরীর কথায়, ‘এখনো আমার সঙ্গে আনুষ্ঠানিকভাবে যোগাযোগ হয়নি। যদি এমন কিছু হয়, তাহলে সমস্যা হবে না। অস্ট্রেলিয়া সিরিজের ব্যাপারে আমরা আশাবাদী, কারণ আমাদের খেলার পর অস্ট্রেলিয়ার কোনো সিরিজ নেই। আমাদেরও খেলা নেই। যদি দুই, তিন, চার দিন পিছিয়েও যায়, তাহলে আমাদের সিরিজে কোনো সমস্যা হবে না।’

২২ জুলাই ওয়েস্ট ইন্ডিজ-অস্ট্রেলিয়ার তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচটির আগে ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের সাপোর্ট স্টাফের করোনা ধরা পড়ায় খেলা আর মাঠে গড়ায়নি। কাল সিরিজ–সংশ্লিষ্ট সবার করোনা পরীক্ষার ফল নেগেটিভ আসায় আজ হবে স্থগিত হওয়া দ্বিতীয় ওয়ানডে ম্যাচটি। পূর্বঘোষিত সূচি অনুযায়ী সিরিজের শেষ ম্যাচটি আজ হওয়ার কথা থাকলেও এখন সেটি হবে ২৬ জুলাই।

অস্ট্রেলিয়া সিরিজ কিছুদিন পিছিয়ে গেলে খেলার সুযোগ সৃষ্টি হতে পারে অভিজ্ঞ ক্রিকেটার মুশফিকুর রহিমেরও। এর আগে মুশফিকের অস্ট্রেলিয়া সিরিজে খেলা একদম বাতিলই হয়ে গিয়েছিল।

জিম্বাবুয়ে সিরিজ থেকে মাঝপথে দেশে ফিরে মুশফিক ব্যস্ত ছিলেন করোনায় আক্রান্ত মা–বাবাকে নিয়ে। অস্ট্রেলিয়া সিরিজ খেলতে হলে ২১ জুলাই থেকেই মুশফিককে কোয়ারেন্টিন শুরু করতে হতো। কিন্তু সেটা না করতে পারায় করোনা ঝুঁকির কথা ভেবে মুশফিকের খেলার বিষয়টি বাতিল করে দেয় ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া।

এখন পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে মুশফিকের বিষয়টি পুনর্বিবেচনার সুযোগ এসেছে। বিসিবির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এ ব্যাপারে বলছিলেন, ‘মুশফিকের মতো একজন ক্রিকেটারকে পাব না—এটা তো চিন্তার বিষয়। সেদিক থেকে আমাদের একটা চেষ্টা তো থাকবেই। আমরা এর মধ্যেই যোগাযোগ করছি। দেখি কী প্রতিক্রিয়া আসে। শুধু যে সফর পিছিয়ে যাচ্ছে সে জন্য না। আমরা আগে থেকেই যোগাযোগ করছি।’
0 Share Comment
National/International News Group
24 July 2021, 18:33

ফকির আলমগীরের গণসংগীতের দায়িত্ব যেন পরবর্তী প্রজন্ম নেয়: সুরাইয়া আলমগীর

ফকির আলমগীরের গণসংগীতের দায়িত্ব যেন পরবর্তী প্রজন্ম নেয়: সুরাইয়া আলমগীর,ছবি : সংগৃহীত
শহীদ মিনারে কত শত অনুষ্ঠানে গর্জে উঠেছে তাঁর কণ্ঠ, আজ সেই স্থানে সাদা কাফনে নিথর হয়ে শুয়ে আছেন ফকির আলমগীর। সদা সরব মানুষটির এহেন নীরবতা কিছুতেই মানতে পারছেন না তাঁর ৪৪ বছরের সঙ্গী সুরাইয়া আলমগীর।
ফকির আলমগীরের গণসংগীতের দায়িত্ব যেন পরবর্তী প্রজন্ম নেয়: সুরাইয়া আলমগীর,ছবি : সংগৃহীত
১৯৭৮ সালের ২৫ জানুয়ারি সুরাইয়া আলমগীরের সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন ফকির আলমগীর। বিয়ের পর যেখানে গেছেন, বেশির ভাগ অনুষ্ঠানেই স্ত্রীকে সঙ্গী হিসেবে পেয়েছেন ফকির আলমগীর। গতকাল রাতে সেই বন্ধন ছিন্ন হলো। করোনাক্রান্ত হয়ে রাত ১০টা ৫৬ মিনিটে ঢাকার একটি হাসপাতালে শেষনিশ্বাস ত্যাগ করেন এই গণসংগীতশিল্পী। সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য আজ দুপুর ১২টায় যখন ফকির আলমগীরের মরদেহ শেষবারের মতো শহীদ মিনারে আনা হয়, তখন মাইক্রোফোন হাতে তাঁর স্ত্রী বলেন, এই শহীদ মিনার আর ফকির আলমগীরের কণ্ঠে মুখর হবে না। তিনি চলে গেছেন জাগতিক সব বন্ধন ছিন্ন করে।
ফকির আলমগীরের গণসংগীতের দায়িত্ব যেন পরবর্তী প্রজন্ম নেয়: সুরাইয়া আলমগীর,ছবি : সংগৃহীত
তরুণ প্রজন্মের কাছে অনুরোধ জানিয়ে সুরাইয়া আলমগীর বলেন, ‘গণসংগীতের মশাল এত দিন বয়ে চলেছেন ফকির আলমগীর, তা রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব যেন পরবর্তী প্রজন্ম নেয়। এই ধারার সংগীতের মাধ্যমে যেন মেহনতি মানুষের কথা উচ্চারিত হয়। গণমানুষের জন্য গাইতেন ফকির আলমগীর। তাঁর গানের পরতে পরতে বাংলার নিপীড়িত ও বঞ্চিত মানুষের কথা। যেকোনো আয়োজনে গগনবিদারী কণ্ঠে মানুষের জন্য গেয়ে উঠতেন তিনি।’
ফকির আলমগীরের গণসংগীতের দায়িত্ব যেন পরবর্তী প্রজন্ম নেয়: সুরাইয়া আলমগীর,ছবি : সংগৃহীত
এর আগে বেলা ১১টায় ঢাকার খিলগাঁওয়ের পল্লী মা সংসদ মাঠে ফকির আলমগীরকে ‘গার্ড অব অনার’ দেওয়া হয়। সেখানেই অনুষ্ঠিত হয় তাঁর প্রথম জানাজা। পরে সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য তাঁকে নিয়ে আসা হয় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে। শহীদ মিনারে সুরাইয়া আলমগীর সরকারের কাছে দাবি জানান, ফকির আলমগীর ছিলেন গণমানুষের শিল্পী। তিনি যেমন সাধারণ লোকের জন্য শত শত গান করেছেন, তেমনি মুক্তিযুদ্ধের সময় তাঁর গান বীর মুক্তিযোদ্ধাদের অনুপ্রাণিত করেছে। শোষণ, অন্যায় ও অবিচারের কথা তিনি গানে গানে বলেছেন। তাঁর মতো এমন বলিষ্ঠ কণ্ঠযোদ্ধাকে যেন পাঠ্যবইয়ে অন্তর্ভুক্ত করা হয়। নতুন প্রজন্ম যেন তাঁর মতো আদর্শ শিল্পীকে চিনতে পারে।
0 Share Comment
National/International News Group
24 July 2021, 18:28

২০০ টন অক্সিজেন নিয়ে বাংলাদেশের পথে অক্সিজেন এক্সপ্রেস

২০০ টন অক্সিজেন নিয়ে বাংলাদেশের পথে অক্সিজেন এক্সপ্রেস
ভারতীয় রেলওয়ের অক্সিজেন এক্সপ্রেস ১০টি কনটেইনারে দুই শ মেট্রিক টন তরল মেডিকেল অক্সিজেন নিয়ে আজ শনিবার বাংলাদেশের উদ্দেশে যাত্রা করছে। ভারতের তথ্য অধিদপ্তর আজ এক বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানিয়েছে।

২০২১ সালের ২৪ এপ্রিল ভারতে এই বিশেষ ট্রেন সেবা শুরুর পর থেকে এই প্রথম প্রতিবেশী দেশে অক্সিজেন এক্সপ্রেস চালু হলো। এ পর্যন্ত ভারতের অভ্যন্তরে এই ধরনের ৪৮০টি অক্সিজেন এক্সপ্রেস চালু করা হয়েছিল।

২৪ জুলাই টাটা দক্ষিণ–পূর্ব রেলওয়ের অধীনে চক্রধরপুর বিভাগের কাছে বাংলাদেশের বেনাপোলে দুই শ মেট্রিক টন তরল মেডিকেল অক্সিজেন পরিবহনের চাহিদা জানায়। এই চালানটি বাংলাদেশের তরল মেডিকেল অক্সিজেনের প্রয়োজনীয় মজুত উল্লেখযোগ্যভাবে বৃদ্ধি করবে।

আজ সকাল ৯টা ২৫ মিনিটে ১০টি কনটেইনারে দুই শ মেট্রিক টন তরল মেডিকেল অক্সিজেন লোডিং সম্পন্ন হয়েছে। এই অক্সিজেন বাংলাদেশে পৌঁছানো হবে এবং দেশের চলমান কোভিড-১৯ মোকাবিলায় ভারতের অংশীদারদের সমর্থন করার জন্য দেশের হাসপাতালগুলোতে সরবরাহ করা হবে।

ভারতের তথ্য অধিদপ্তরের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ভারত তার মহামারি পরিস্থিতি উন্নয়নের সঙ্গে সঙ্গে প্রতিবেশীদের মধ্যে নিকটতম অংশীদারদের সঙ্গে চিকিৎসা সরবরাহ ভাগ করে নেওয়ায় প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।
0 Share Comment
National/International News Group
24 July 2021, 18:25

দেশে ফেসবুকের বিকল্প সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম তৈরি হচ্ছে। তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি (আইসিটি) বিভাগের উদ্যোগে নির্মাণাধীন প্ল্যাটফর্মটির নাম দেওয়া হচ্ছে ‘যোগাযোগ’। এর মাধ্যমে দেশীয় উদ্যোক্তারা তথ্য-উপাত্ত ও যোগাযোগের জন্য নিজস্ব অনলাইন মার্কেটপ্লেস ও গ্রুপ তৈরি করতে পারবে। উদ্যোক্তাদের বিদেশনির্ভর হতে হবে না।
ফেসবুকভিত্তিক নারী উদ্যোক্তাদের প্ল্যাটফর্ম উইমেন অ্যান্ড ই-কমার্স ফোরাম (উই) আয়োজিত এন্ট্রাপ্রেনিউরশিপ মাস্টারক্লাসের দ্বিতীয় সিরিজের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অনলাইনে যুক্ত হয়ে আজ শনিবার এসব কথা বলেন আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ।
আইসিটি বিভাগের উদ্যোগে ভিডিও কনফারেন্সের প্ল্যাটফর্ম জুমের বিকল্প ‘বৈঠক’ তৈরি করা হয়েছে বলেও জানিয়েছেন প্রতিমন্ত্রী। এ ছাড়া করোনা প্রতিরোধে ভ্যাকসিন ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম সুরক্ষা অ্যাপের কথাও উল্লেখ করেন তিনি।
কেবল ফেসবুক বা জুমের বিকল্প নয়, জুনাইদ আহমেদ বলেন, নিজস্ব যোগাযোগের জন্য হোয়াটসঅ্যাপের বিকল্প হিসেবে ‘আলাপন’ নামের একটি প্ল্যাটফর্ম তৈরি করা হচ্ছে। পাশাপাশি স্ট্রিমিংসহ নিজেদের উদ্যোগে বিভিন্ন ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম তৈরির কার্যক্রমের বিস্তারিত তুলে ধরেন তিনি।
নতুন প্ল্যাটফর্মটি ব্যবহার করে উইমেন অ্যান্ড ই-কমার্স ফোরাম উপকৃত হবে বলে অনুষ্ঠানে জানান আইসিটি প্রতিমন্ত্রী। ঝুঁকি নেওয়ার সাহস থাকাই উদ্যোক্তা হওয়ার প্রথম চ্যালেঞ্জ বলে মনে করেন তিনি। সে সঙ্গে সততা, নিষ্ঠা ও স্বচ্ছতার সঙ্গে উদ্ভাবনে নিজেদের নিয়োজিত করতে নারী উদ্যোক্তাদের প্রতি আহ্বান জানান।
ভার্চ্যুয়াল অনুষ্ঠানে আইসিটি অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক রেজাউল মাকসুদ এবং উইয়ের বৈশ্বিক উপদেষ্টা সৌম্য বসু ও সভাপতি নাসিমা আক্তার যুক্ত ছিলেন।

0 Share Comment
Deshi Group
21 July 2021, 22:02

বাংলাদেশে বিমান চলাচলে ফের নিষেধাজ্ঞা বাড়াল আমিরাত

বাংলাদেশে বিমান চলাচলে ফের নিষেধাজ্ঞা বাড়াল আমিরাত
বাংলাদেশের সঙ্গে বিমান চলাচলের নিষেধাজ্ঞা আবারও বাড়িয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরাত। এছাড়া ভারত, শ্রীলঙ্কা এবং পাকিস্তানের সঙ্গেও আন্তর্জাতিক বিমান চলাচলের নিষেধাজ্ঞা বাড়িয়েছে মধ্যপ্রাচ্যের এই দেশটি। নতুন এই নিষেধাজ্ঞা আগামী ১ আগস্ট পর্যন্ত কার্যকর থাকবে বলে জানিয়েছে দেশটির বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ।

আমিরাতের সব ধরনের ভিসাধারীদের ক্ষেত্রে এই নিষেধাজ্ঞা কার্যকর হবে। অর্থাৎ এই চার দেশের নাগরিকরা নতুন নিষেধাজ্ঞা অনুযায়ী দেশটিতে যেতে পারবেন। তবে আমিরাতে যাওয়ার জন্য দীর্ঘ অপেক্ষা করতে হবে তাদের।

এর আগে, গত ২৪ এপ্রিল বাংলাদেশসহ কয়েকটি দেশের ভ্রমণকারীদের সংযুক্ত আরব আমিরাতে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে দেশটির সরকার। পরে ২৯ জুন বাংলাদেশসহ ১৪টি দেশের ভ্রমণকারীদের নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ বৃদ্ধি করা হয়। এতে বলা হয়, আগামী ২১ জুলাই পর্যন্ত এই নিষেধাজ্ঞা বহাল থাকবে।

ওই সময় আমিরাতের বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (জিসিএএ)এক বিবৃতিতে জানায়, মালবাহী কার্গো ফ্লাইট এবং বাণিজ্যিক ও ব্যক্তিগত ফ্লাইটসমূহ এই নিষেধাজ্ঞার আওতায় পড়বে না। তবে আমিরাতের নাগরিক, কূটনীতিক এবং গোল্ডেন ভিসাধারীরা এই ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞার বাইরে থাকবেন বলে জানানো হয়েছে। আমিরাতের উদ্দেশে দেশ ছাড়ার ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে করোনার আরটিপিসিআর পরীক্ষার সনদ দেখাতে হবে বলে নির্দেশ দেওয়া হয়।
0 Share Comment
Deshi Group
21 July 2021, 22:01

‘৫জি একাডেমি’ চালু করলো রিয়েলমি

‘৫জি একাডেমি’ চালু করলো রিয়েলমি
তরুণ প্রজন্মের পছন্দের স্মার্ট ফোন ব্র্যান্ড রিয়েলমি সবার মাঝে ৫জি বিষয়ক জ্ঞান এবং এই প্রযুক্তির সুবিধা সম্পর্কে অবহিত করতে রিয়েলমি ৫জি একাডেমির কার্যক্রম শুরু করেছে।

৫জি সম্পর্কে সচেতনতা তৈরির লক্ষ্যেই তো মধ্যে রিয়েলমি ৫জি একাডেমির প্রথম পর্ব প্রচার করেছে।

প্রথম পর্বে ডিজিটাল ট্রান্সফর্মেশন টেক উদ্যোক্তা রিসালাত সিদ্দিক এ প্রযুক্তি সম্পর্কে তাঁর দৃষ্টিকোণ তুলে ধরেন। সেখানে তিনি ৫জি প্রযুক্তির বিভিন্ন দিক এবং৫জি কীভাবে আমাদের প্রতিদিনের জীবনে বৈপ্লবিক পরিবর্তন আনবে তা নিয়ে আলোচনা করেন।

রিসালাত সিদ্দিক বলেন, ‘পাঁচটি মৌলিক চাহিদা ছাড়াও এখন আমাদের আরও একটি চাহিদা তৈরি হয়েছে, সেটি হলো ইন্টারনেট। দুর্দান্ত গতির ৫জি নেটওয়ার্ক আমাদেরকে এই ৫টি মৌলিক চাহিদা অর্জনেও সহায়তা করবে। এটিবি২বি (বিজনেসটুবিজনেস) ও বি২সি (বিজনেসটুকনজিউমার) কার্যক্রম বাস্তবায়নে ভূমিকা রাখবে।

উদাহারণ হিসেবে বলা যায়, এখন কোনো জটিলরোগ বা অসুস্থতার জন্য মানুষকে রাজধানীতে আসতে হয়, তবে ৫জি নেটওয়ার্ক চালু হলে গ্রামে থেকেই চিকিৎসা নেয়া যাবে। ৫জি’র সুপারলো-ল্যাটেন্সি ইন্টারনেটের সাহায্যে চিকিত্সকরা রাজধানী থেকেই প্রান্তিক পর্যায়ের মানুষের অপারেশন করতে পারবেন।’

তরুণ প্রজন্ম কেন্দ্রিক ব্র্যান্ড হিসেবে রিয়েলমি সব সময়ই তরুণদের জন্য সর্বোচ্চ সুবিধা প্রদান করছে। এখন যেহেতু ৫জি-তে ট্রান্সফরমেশনের সময় এসেছে, তাই রিয়েলমি তরুণদের জন্য সেরা ৫জি অভিজ্ঞতা নিশ্চিত করতে সর্বাত্মক ভাবে কাজ করে যাচ্ছে।
0 Share Comment
Deshi Group
21 July 2021, 21:59


গ্লোবাল টেকনোলজি লিডার শাওমি বাংলাদেশের বাজারে উন্মোচন করেছে ২০২১ সালের সবচেয়ে পাতলা ও হালকা ওজনের
স্মার্টফোন মি ১১ লাইট। নজরকাড়া ডিজাইনের এই ডিভাইসটি ফ্ল্যাগশিপ লেভেলের
পারফরম্যান্স দেবে। হালকা ওজনের পাশাপাশি ভালো পারফরম্যান্সের স্মার্টফোন
খুঁজলে মি ১১ লাইট হতে পারে আপনার জন্য সেরা ডিভাইস।

স্মার্টফোনটির
উন্মোচন উপলক্ষে শাওমি বাংলাদেশের কান্ট্রি জেনারেল ম্যানেজার জিয়াউদ্দিন
চৌধুরী বলেন, ‘শাওমি ব্র্যান্ড হিসেবে উপলব্ধি করতে পারে মি ফ্যানদের জন্য
প্রযুক্তি কতটা অপরিহার্য। সে কারণেই মি সিরিজের মাধ্যমে আমাদের লক্ষ্য
অর্থবহ উদ্ভাবন ও সেরা প্রযুক্তির মাধ্যমে গ্রাহকদের সকল চাহিদা পরিপূর্ণ
করা। মি ১১ সিরিজটিও এর ব্যতিক্রম নয়। আগের সফলতায় অনুপ্রাণিত হয়ে,
ফ্যাশনেবল তরুণদের জন্য হালকা-পাতলা ডিজাইন ও ফ্ল্যাগশিপ লেভেলের
পারফরম্যান্স দিতে আমরা নিয়ে এসেছি মি ১১ লাইট। ফোনটির ওজন মাত্র ১৫৭
গ্রাম; মি ১১ লাইট ডিভাইসটিত আছে পাতলা ও প্রিমিয়াম ফিনিশ, প্রায় বেজেলহীন
৯০ হার্জ ডিসপ্লে এবং দারুন ট্রিপল ক্যামেরা সেটআপে।’

২০২১ সালের
সবচেয়ে পাতলা ও হালকা ওজনের স্মার্টফোন মি ১১ লাইট এর পুরুত্ব মাত্র
৬.৮মিমি এবং ওজন মাত্র ১৫৭ গ্রাম। মি ১১ লাইট ফোনটি হাতে ধরে ব্যবহারের
জন্য খুবই উপযোগী একটি ডিভাইস। ফোনটির সামনে পাঞ্চ-হোল ডিজাইনের ক্যামেরা ও
বেজেলহীন ডিসপ্লে রয়েছে। যারা বড় স্ক্রিন চান তাদের জন্যই ডিভাইসটি ডিজাইন
করা হয়েছে। ফোনটির পাশে দেয়া হয়েছে কার্ভড ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর, যা খুব
দ্রুত ও মসৃণভাবে ফোন আনলক করার অভিজ্ঞতা দিবে।   

মি ১১ লাইট
ফোনটিতে দেয়া হয়েছে স্পোর্টস ৬.৫৫ ইঞ্চির ১০-বিট অ্যামোলেড ডট-ডিসপ্লে।
ডিভাইসটি আসছে ১.০৭ বিলিয়ন অন স্ক্রিন কালারে, যা এর পূর্বসূরিদের থেকে ৬৪
গুণ বেশি (৮-বিট ডিসপ্লে)। ফোনটির ডিসপ্লেতে চমৎকার কালার গ্রাডিয়েশন থাকায়
ফোনটি দিয়ে যেকোনো অ্যাঙ্গেল থেকে ছবি দেখার ক্ষেত্রে দেবে অসাধারণ
অভিজ্ঞতা। ডিসপ্লেতে ৯০ হার্জ রিফ্রেশ রেট ও ২৪০ হার্জ টাচ-স্যাম্পল রেট
থাকায় টাচ হবে দুর্দান্ত, ফলে ব্যবহারকারীরা ডিসপ্লেতে কোনো ল্যাগ পাবেন
না। ডিসপ্লের স্থায়িত্ব বাড়াতে সামনে ও পিছনে দেয়া হয়েছে কর্নিং গরিলা
গ্লাস ৫ এর সুরক্ষা। 

মি ১১ লাইট ডিভাইসটি স্পষ্ট শব্দের সঙ্গে দেবে
দুর্দান্ত সব ছবি। মি ১১ লাইট ফোনে রয়েছে ডুয়েল স্পিকার সেটআপ, সাপোর্ট
করে হাই-রেস অডিও এবং সঙ্গে আছে হাই-রেস অডিও ওয়্যারলেস সার্টিফিকেশন, তৈরি
করা যাবে সব মিডিয়ার জন্য কনটেন্ট। 

সরু ও হালকার মধ্যে মি ১১ লাইট
ফোনটিতে দেয়া হয়েছে ট্রিপল ক্যামেরা সেটআপ। এর প্রাইমারি ক্যামেরা ৬৪
মেগাপিক্সেলের, আছে ৮ মেগাপিক্সেলের আল্ট্রা-ওয়াইড লেন্স এবং তার সঙ্গে
একটি ৫ মেগাপিক্সেলের টেলিম্যাক্রো ক্যামেরা। মি ১১ লাইট ফোনটিতে পাওয়া
যাবে সেরা ক্যামেরা পারফরম্যান্স। খুব সহজেই ফোনটি দিয়ে ব্যবহারকারীরা
প্রফেশনাল গ্রেডের ছবি তুলতে পারবেন। ওয়াইড শট নেয়ার জন্য সহায়তা করবে ৮
মেগাপিক্সেলের আল্ট্রা-ওয়াইড সেন্সর, যেখানে সর্বোচ্চ ডিটেইলসহ কোনো বিষয়ের
ছবি তুলতে সহায়তা করবে ৫ মেগাপিক্সেলের টেলিম্যাক্রো ক্যামেরা। মি ১১ লাইট
এর সামনে আছে ১৬ মেগাপিক্সেলের সেলফি ক্যামেরা। এই ক্যামেরা দিয়ে দিন ও
রাতের যে কোনো সময় স্পষ্ট ও আকর্ষণীয় সেলফি তুলতে পারবেন ব্যবহারকারীরা।
প্রাকৃতিক কালার ও গতিশীল ইমেজ প্রসেসিংসহ ৩০ এফপিএস-এ ফোরকে ভিডিও শ্যুট
করা যাবে। 

পূর্বসূরিদের মতো ফ্ল্যাগশিপ পারফরম্যান্স দিতে মি ১১
লাইট ফোনটিতে দেওয়া আছে কোয়ালকমের স্ন্যাপড্রাগন ৭৩২ জি প্রসেসর। এটি ৮
ন্যানোমিটার প্রযুক্তিতে তৈরি, যা দেবে শক্তিশালী, দক্ষ ও অসামান্য গতি।
প্রসেসরটি তৈরি করা হয়েছে গেইমিং পারফরম্যান্সের জন্য, এ জন্য দেয়া হয়েছে
আল্ট্রা-লাইট লিকুইড-কুল প্রযুক্তি, যা স্মার্টফোনটিকে গরম হতে দেয় না। মি
১১ লাইট ফোনটিতে মাল্টিটাস্কিং এ পাওয়া যাবে দুর্দান্ত অভিজ্ঞতা। এ ছাড়া
থাকছে এলপিডিডিআর৪এক্স র্যা ম এবং ইউএফএস ২.২, এটি ফোনটির পারফরম্যান্সকে
আরও বাড়িয়ে দেয়।

স্মার্টফোনে শক্তিশালী পারফরম্যান্স দিতে প্রয়োজন
শক্তিশালী ব্যাটারি। তাই মি ১১ লাইট ডিভাইসে দেয়া হয়েছে শক্তিশালী ৪,২৫০
এমএএইচের ব্যাটারি। ফোনটি সাপোর্ট করবে ৩৩ ওয়াটের ফাস্ট চার্জিং। শক্তিশালী
ব্যাটারি যে কোনো ভারী কাজ করার পরও সারা দিন ব্যাকআপ দেবে। হালকা ও পাতলা
ফোন হিসেবে এটাই প্রথম যেখানে এতো শক্তিশালী ব্যাটারি দেয়া হয়েছে।  

মি
১১ লাইট স্মার্টফোনটি দেশের বাজারে জ্যাজ ব্লু, স্ক্যানি কোরাল এবং ভিনিল
ব্ল্যাক তিনটি কালার ভ্যারিয়েন্টে পাওয়া যাবে। অচিরেই বাংলাদেশের অথরাইজড
মি স্টোর, পার্টনার স্টোর ও রিটেইল চ্যানেলে পাওয়া যাবে ফোনটি। ফোনটির
৬+১২৮ জিবি ও ৮+১২৮ জিবি ভ্যারিয়েন্টের দাম যথাক্রমে ২৯,৯৯৯ ও ৩১,৯৯৯ টাকা।

0 Share Comment
Deshi Group
21 July 2021, 21:58


ঈদ-উল-আজহাকে সামনে রেখে চমকপ্রদ এক অফারের
ঘোষণা দিয়েছে গ্লোবাল স্মার্টফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ভিভো। এখন ভিভো
স্মার্টফোন কিনে অনলাইন লটারিতে অংশ নিলেই গ্রাহকরা পেতে পারেন চমৎকার সব
পুরস্কার। 

ভিভো’র এই ঈদ ক্যাম্পেইন শুরু হয়েছে গত ১৩ জুলাই, যা শেষ হতে চলেছে আগামীকাল সোমবার, ১৯ জুলাই। 

ভিভো জানায়, পুরস্কারগুলোর মধ্যে গ্র্যান্ড প্রাইজ বিজয়ী পাবেন এক (০১) লাখ টাকা পুরস্কার। 

এছাড়া
প্রথম পুরস্কার হিসেবে ফ্রিজ, দ্বিতীয় পুরস্কার এয়ার কুলার, তৃতীয়
পুরস্কার ৫০০ টাকা, চতুর্থ পুরস্কার একটি আকর্ষণীয় ভিভো ব্যাকপ্যাক এবং
পঞ্চম পুরস্কার হিসেবে দেয়া হবে একটি ভিভো ছাতা। আরো রয়েছে সকল নতুন
গ্রাহকদের জন্যে নিশ্চিত ডেটা অফার। 

দেশের যেকোনো ভিভো স্টোরে গিয়ে
এই ক্যাম্পেইনে অংশগ্রহণ করা যাবে। যেকোনো গ্রাহক সেখান থেকে যেকোনো
মডেলের একটি ভিভো ফোন কিনলেই লটারিতে অংশ নিতে পারবেন। প্রতিটি বিক্রেতার
কাছেই ভিভো বাংলাদেশের পক্ষ থেকে একটি বিশেষ লিংক শেয়ার করা রয়েছে।
স্মার্টফোনটি কেনার পর, কিছু তথ্য ওই লিংকে দিলেই দেখা যাবে, কি জিতলেন ওই
ক্রেতা। 

এই ক্যাম্পেইনটি সম্পর্কে ভিভো বাংলাদেশের সেলস ডিরেক্টর
শ্যারন বলেন, ‘বাংলাদেশে আমাদের তিন বছরের কাজ করার অভিজ্ঞতায় বলতে পারি,
এদেশের মানুষেরা খুবই উৎসবপ্রিয়। আর উৎসবের সময়টাতে আমাদের স্মার্টফোনের
চাহিদাও থাকে অনেক বেশি। গ্রাহকদের উৎসবের আনন্দটাকে আরো বাড়িয়ে দিতেই আমরা
এই ঈদ ক্যাম্পেইনের আয়োজন করেছি।’

0 Share Comment
Deshi Group
21 July 2021, 21:56


যমুনা গ্রুপের অঙ্গ প্রতিষ্ঠান যমুনা
ইলেকট্রনিক্স অ্যান্ড অটোমোবাইলস্ লিমিটেডে বিভিন্ন পদে নিয়োগ দেওয়া হবে।
আগ্রহীরা আগামী ১৭ আগস্ট পর্যন্ত আবেদন করতে পারবেন।

প্রতিষ্ঠানের নাম: যমুনা ইলেকট্রনিক্স অ্যান্ড অটোমোবাইলস্ লিমিটেড

পদের নাম: মেকানিক্যাল ডিপার্টমেন্ট: মল্ড মেকার/সহকারী মল্ড মেকার (ইনজেকশন মল্ড)
পদসংখ্যা: ০৩ জন
শিক্ষাগত যোগ্যতা: ডিপ্লোমা মেকানিক্যাল/এইচএসসি
অভিজ্ঞতা: ০৬-১০ বছর

পদের নাম: মেকানিক্যাল ডিপার্টমেন্ট: মল্ড মেকার/সহকারী মল্ড মেকার (থার্মোফোমিং ও ডোর ফোমিং)
পদসংখ্যা: ০৭ জন
শিক্ষাগত যোগ্যতা: ডিপ্লোমা মেকানিক্যাল/এইচএসসি
অভিজ্ঞতা: ০৩-১০ বছর

পদের নাম: মেকানিক্যাল ডিপার্টমেন্ট: মল্ড মেকার/সহকারী মল্ড মেকার (পাওয়ার প্রেস)
পদসংখ্যা: ০৭ জন
শিক্ষাগত যোগ্যতা: ডিপ্লোমা মেকানিক্যাল/এইচএসসি
অভিজ্ঞতা: ০৩-১০ বছর

পদের নাম: মেকানিক্যাল মেইনটেইনেন্স ডিপার্টমেন্ট: ফোরম্যান/সুপারভাইজার/মেকানিক/সহকারী মেকানিক
পদসংখ্যা: ০৭ জন
শিক্ষাগত যোগ্যতা: ডিপ্লোমা মেকানিক্যাল/এইচএসসি
অভিজ্ঞতা: ০৩-১০ বছর

0 Share Comment
Deshi Group
21 July 2021, 21:56


আবুল খায়ের টোব্যাকো কোম্পানি
লিমিটেড   ‘ট্রেড মার্কেটিং অফিসার (টিএমও)’ পদে জনবল নিয়োগ দেবে। আগ্রহীরা
আগামী ৩১ জুলাই পর্যন্ত আবেদন করতে পারবেন।

প্রতিষ্ঠানের নাম: আবুল খায়ের টোব্যাকো কোম্পানি লিমিটেড

পদের নাম: ট্রেড মার্কেটিং অফিসার (টিএমও)
পদসংখ্যা: নির্ধারিত নয়
শিক্ষাগত যোগ্যতা: স্নাতকোত্তর
অভিজ্ঞতা: ০১ বছর

শারীরিক যোগ্যতা: ৫ ফুট ৬ ইঞ্চি
চাকরির ধরন: ফুল টাইম
প্রার্থীর ধরন: নারী-পুরুষ
বয়স: ৩২ বছর

কর্মস্থল: যেকোনো স্থান
বেতন: ৪০,০০০ টাকা
আবেদনের ঠিকানা: আগ্রহীরা career@abulkhairgroup.com এর মাধ্যমে আবেদন করতে পারবেন।
আবেদনের শেষ সময়: ৩১ জুলাই ২০২১

0 Share Comment
Deshi Group
21 July 2021, 21:41

বিশ্বের সেরা এয়ারলাইন্স ‘কাতার এয়ারওয়েজ’

বিশ্বের সেরা এয়ারলাইন্স ‘কাতার এয়ারওয়েজ’
মহামারির প্রভাব পড়েছে বিমান পরিবহন ব্যবস্থাতেও। বিশ্বের অনেক দেশে এখনো কোভিড-১৯ বিধিনিষেধ মেনে সীমিত সংখ্যক যাত্রী পরিবহন করতে হচ্ছে। এর মাঝেই চলমান ২০২১ সালের বিশ্বের সেরা এয়ারলাইন্সের খেতাব জিতেছে কাতার এয়ারওয়েজ। খবর প্রকাশ করেছে মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন।

প্রতিবেদনে বলা হয়, এয়ারলাইন্সরেটিং.কমের প্রকাশিত সর্বশেষ রেটিংয়ে এয়ার নিউজিল্যান্ডকে হটিয়ে শীর্ষস্থান দখল করেছে কাতার এয়ারওয়েজ। এর আগে তারা ছয় বার তালিকায় শীর্ষে ছিল।


অস্ট্রেলিয়া ভিত্তিক বিমান সুরক্ষা এবং পণ্য রেটিং এজেন্সিটি তালিকা তৈরির ক্ষেত্রে বিমানের বয়স, যাত্রীদের রিভিউ এবং পণ্যের সুবিধার দিক বিবেচনা করেছে।

তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে এয়ার নিউজিল্যান্ড এবং তৃতীয় স্থানে রয়েছে সিঙ্গাপুর এয়ারলাইন্স। চতুর্থ স্থানে অস্ট্রেলিয়ার কোয়ান্টাস, পঞ্চম স্থানে দুবাই ভিত্তিক এমিরেটস এয়ারলাইন্স, ৬ষ্ঠ স্থানে ক্যাথে প্যাসিফিক, সপ্তম স্থানে ভার্জিন আটলান্টিক, অষ্টম স্থানে ইউনাইটেড এয়ারলাইন্স, নবম স্থানে ইভা এয়ার ও দশম স্থানে ব্রিটিশ এয়ারওয়েজ। তবে শীর্ষ- ২০ তে বাংলাদেশের কোনো বিমান সংস্থার নাম নেই।

0 Share Comment
Deshi Group
21 July 2021, 21:40

বোলিং র‌্যাংকিংয়ে শীর্ষ আটে সাকিব

বোলিং র‌্যাংকিংয়ে শীর্ষ আটে সাকিব
জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সদ্য সমাপ্ত ওডিআই সিরিজে ব্যাটে-বলে দুর্দান্ত পারফরম্যান্স প্রদর্শন করে র‌্যাংকিংয়ে বড় লাফ দিলেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। দীর্ঘদিন পর বোলিং র‌্যাংকিংয়ে শীর্ষ দশে ফিরে এসেছেন তিনি।

আজ বুধবার (২১ জুলাই) বিশ্ব ক্রিকেট নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসি প্রকাশিত সর্বশেষ ওডিআই বোলিং র‌্যাংকিংয়ে ৬৫০ রেটিং পয়েন্ট নিয়ে সাকিবের অবস্থান আট নম্বরে। নয় ধাপ এগিয়ে তার এ অবস্থান।

ব্যাটিংয়েও তিন ধাপ এগিয়েছেন বাংলাদেশি পোস্টার বয়। বর্তমানে তার অবস্থান ২৮ নম্বরে। অন্যদিকে, অলরাউন্ডারের তালিকায় আগে থেকেই শীর্ষস্থান দখল করে আছেন তিনি। জিম্বাবুয়ে সিরিজের পর পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪১৬। দ্বিতীয় স্থানে থাকা আফগানিস্তানের মোহাম্মদ নাবীর পয়েন্ট ২৯৪।


তবে র‌্যাংকিংয়ে মোস্তাফিজুর রহমান ও মেহেদী হাসান মিরাজের অবনতি হয়েছে। ইনজুরির কারণে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে মাত্র একটি ম্যাচ খেলার সুযোগ পেয়েছেন কাটার মাস্টার। ৩ উইকেট নিলেও অবস্থার অবনতি হয়েছে। তার বর্তমান অবস্থান ১১ তম স্থানে। ৬৯২ পয়েন্ট নিয়ে চতুর্থ স্থানে অবস্থান করছেন মিরাজ।


বোলিং র‌্যাংকিংয়ে ৭৩৭ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছেন নিউজিল্যান্ডের ট্রেন্ট বোল্ট, ব্যাটিংয়ে ৮৭৩ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে পাকিস্তানের বাবর আজম।

0 Share Comment
$
$